ও দিয়ে মেয়েদের ইসলামিক নাম বাংলা অর্থসহ

BanglaTeach
E-Haq
Digital Marketer at- BanglaTeach

E-Haq is the founder of BanglaTeach. He is expertise on Education, Health, Financial, Banking,...

Sharing is caring!

ও দিয়ে মেয়েদের ইসলামিক নাম
ও দিয়ে মেয়েদের ইসলামিক নাম

ও দিয়ে মেয়েদের ইসলামিক নাম রাখতে চেয়ে অনেকে পিতা-মাতা কিংবা আত্মীয়-স্বজন ইন্টারনেটে সার্চ দিয়ে থাকে। তাদের আগ্রহ ও সহায়তার দিকটিকে কেন্দ্র করেই আজকের আর্টিকেলে আমরা বেশ অনেকগুলো ও দিয়ে মেয়েদের জন্য আধুনিক ইসলামিক নাম দিয়ে তালিকা তৈরি করা হয়েছে। মূলত মুসলিম ধর্মের লোকদেরকে কেন্দ্র করেই উল্লেখিত সকল ও দিয়ে নামগুলো।

যখন একটি শিশু হোক সেটা মেয়ে কিংবা ছেলে ভূমিষ্ঠ হয়, তখন গার্ডিয়ানদের জন্য প্রথম কর্তব্য হলো সেই মেয়ে বাবুর জন্য সুন্দর একটি ইসলামিক নাম রাখার সিদ্ধান্ত নেওয়া। এরই পর আসে কোন বর্ণ কিংবা অক্ষর দিয়ে মেয়ের নাম রাখা যায় । এখন এর মধ্যে অনেকে আছে, যারা তাদের মেয়েদের জন্য ও দিয়ে সুন্দর ও অর্থবহ একটি ভালো ইসলামিক নাম রাখতে চায়। যে বিধায় আমাদের এই আজকের আর্টিকেলটি। আজকের আর্টিকেলে আমরা প্রায় ১৫০+ ইসলামিক নাম নিয়ে আলোচনা করবো এবং সবগুলো নাম ইসলামিক দৃষ্টিতে যেন অর্থবহ এবং হালাল হয়, সেদিকটিকে নজরে রেখে পিক করা হয়েছে। ( আযানের পর ৩ শব্দের দোয়ার বিষ্ময়কর ফজিলত এবং ইসলামি দৃষ্টিতে স্বপ্নে সাপ দেখিলে কি হয় সে সম্পর্কে জানুন )

নাম রাখার ক্ষেত্রে যে কয়েকটি বিষয়কে হাইলাইট করতে হয়, সে কয়েকটি বিষয়কে মাথায় রেখে ও দিয়ে মেয়েদের সকল ইসলামিক নামগুলো এখানে তুলে ধরার চেষ্টা করা হয়েছে। আশা করি একজন গার্ডিয়ান তথা বাবা  কিংবা মা তাঁর সদ্য জন্ম নেওয়া কণ্যা সন্তানের জন্য বেশ সুন্দর ও ইসলামিক একটি ও দিয়ে নাম চয়েজ করতে পারবে এবং ফাইনালি নাম রাখার জন্য সিদ্ধান্ত নিতে সক্ষম হবে। তাহলে চলুন জেন নেওয়া যাক ও দিয়ে মেয়েদের সকল ইসলামিক নামগুলো।

ও দিয়ে মেয়েদের ইসলামিক নাম অর্থসহ

ও দিয়ে মেয়েদের ইসলামিক নাম অর্থসহ

ও দিয়ে মেয়েদের ইসলামিক নাম অর্থসহ বলতে সাধারণত সেই নামের বাংলা অর্থ কি হয়, সেটা বোঝতে যাতে একজন গার্ডিয়ানের সুবিধা হয়, সেটিকেই বোঝানো হয়েছে। একটি সুন্দর ইসলামিক নাম রাখার ক্ষেত্রে বেশ কয়েকটি গুরুত্বপূর্ণ বিষয়কে মাথায় রাখতে হয়। এর মধ্যে প্রধান দু’টি হলো- সেই নামটি ধর্মীয় দিক থেকে ইসলামিক কি-না এবং সেই নামের অর্থ ইতিবাচক কি-না। যদি এই দুটি বিষয়কে একটি ইসলামিক নাম ফুল-ফিলাপ করতে সক্ষম হয়, তাহলে কোনো রকম দ্ধিধা ছাড়াই যে কেউ তাঁর মেয়ে কিংবা কণ্যা সন্তানের জন্য নামটি রাখার সিদ্ধান্ত নিতে পারে। আর আজকের আর্টিকেলেও আমরা সেইম একই কাজটি করেছি। অর্থাৎ এখানে সমস্ত ও দিয়ে মেয়েদের ইসলামিক নামগুলো তুলে ধরা হয়েছে, সবগুলোই হলো ইসলামিক নাম এবং একই সাথে নামগুলো হলো ইতিবাচক অর্থবহ। আলোচনা বিলম্ব না করে চলুন তাহলে আজকের আর্টিকেলটি শুরু করি।

ও দিয়ে মেয়েদের ইসলামিক নামের তালিকা

  • ওয়াফিয়া আত্বিয়া =  Wafia atia = অনুগতা দানশীলা
  • ওয়াফিয়া সানজিদা   = Wafeeasan zeeda = অনুগতা সহযোগিনী
  • ওয়াহফুন =  Wahfun = ঘন কালো কেশ
  • ওয়াদীয়াত =  Wadeeat = কোমলমতি / আমানত
  • ওয়াহফাত =  Wahfat = আওয়াজ / কালো পাথর
  • ওয়াস্বীক্কা =   Waseqa = বিশ্বাসী
  • ওয়াসীমা মাকসূরা  = Waema maksura = সুন্দরী পর্দানশীন স্ত্রীলোক
  • ওয়াজীহা শাকেরা =  Wazeeha shakira = সম্ভ্রান্ত কৃতজ্ঞতা প্রকাশকারিণী
  • ওয়াফীয়া মুকারামা  =  Wafia mokarama = অনুগতা সম্মানিতা
  • ওয়াজীহা মুবাশশিরাহ =  Wazeeh mubsaihira = সম্ভ্রান্ত সুসংবাদ বহন কারিণী
  • ওরদাহ ক্বাসিমাত  = Wordah Quasimad = গোলাপী চেহারা
  • ওয়ালীদা  =  Walida = বালিকা
  • ওয়ালীয়া  =  Waliya = বান্ধবী / হিতকারী
  • ওয়াসিলা =  Wasela = সাক্ষাৎ কারিণী
  • ওয়াজেদাহ  =  Wazada = সংবেদনশীলা
  • ওয়াফিয়াহ =  Wafiah = অনুগত / যথেষ্ট
  • ওয়াজদিয়া  = Wazdea = আবেগময়ী / প্রেমময়ী
  • ওয়াফা   = Waafa = অনুরক্ত
  • ওরদাত = Ordat = গোলাপী
  • ওয়াদীফা  = Wadifa = সবুজঘন বাগান
  • ওয়াসামা  = Wasama = চমৎকার
  • ওয়াফীকা  =  Wafiqa = সামঞ্জস্য
  • ওয়াসীমা জিন্নাত =  Waseemat zinnat = সুন্দরী সম্ভ্রান্ত স্ত্রীলোক
  • ওয়াফিয়া সাদিকা  =  Wafeeasadiqa = অনুগতা সত্যবাদিনী
  • ওয়াসীমা তায়্যেবা =  Wasima Taiybah = সুন্দরী পবিত্রা

ও দিয়ে মেয়েদের ইসলামিক নামের তালিকার এটি হলো প্রথম ব্রেক। আশা করি উপরে যে কয়েকটি ও দিয়ে তৈরি হওয়া মেয়েদের ইসলামিক নাম পড়েছেন, তা থেকে মেয়েদের ইসলামিক নাম সম্পর্কে মোটামোটি একটি ধারণা পেয়েছেন। নিম্নে আরো অনেকগুলো ও দিয়ে মেয়েদের জন্য ইসলামিক নাম তুলে ধরা হয়েছে। সুতরাং উপরের নামগুলো থেকে যদি আপনি এখনো কোনো সিঙ্গেল একটি নামও চয়েজ করতে না পেরে থাকেন, তাহলে দয়া করে নিম্নোক্ত বাকি নামগুলো মনোযোগ সহকারে পড়ুন, আশা করি সুন্দর একটি নাম পিক করতে পারবেন।

  • ওয়াফীয়া জিন্নাত =  Wafia Zinnat = অনুগতা সম্ভ্রান্ত স্ত্রীলোক
  • ওয়াদীয়াত খালিসা =  Wadeatkhalisa = কোমলমতী উত্তম স্ত্রীলোক
  • ওয়াফিয়া তায়িবা  =  Wafea Taiyaba = অনুগতা পবিত্রা
  • ওয়াসিফা আনিকা =   Wasefa anika = গুনবতী রূপসী
  • ওয়ালীজা  = Walizaপ = ্রকৃত বন্ধু
  • ওয়াশিজাত   = Washezat = পরস্পরের আত্মীয়তা
  • ওয়াহিদা  = Waheda = এক / একলা / একাকী
  • ওয়ারিসা  = Waresha = উত্তরাধিকারিনী
  • ওয়াসিফা  = Wasefa = প্রশংসাকারিণী
  • ওয়াসিজা   = Waeza = উপদেশ দাতা
  • ওয়ামিয়া  = Wamea = বৃষ্টি
  • ওয়াসীকা  = Wasiqa = প্রমাম / বিশ্বাস / প্রত্যয়পত্র
  • ওয়াজিয়া =  Oajia = সুন্দরী
  • ওয়াজীহা  = Wajiha = সুন্দরী
  • ওয়াহীদা =  Wahida = একক / চিরণ
  • ওয়াসীমা  = Wasima = সুন্দরী / লাবণ্যময়ী
  • ওয়াকীলা = Wakila = প্রতিনিধি
  • ওয়াফীয়া মুকারামা  =  Wafia mokarama = অনুগতা সম্মানিতা
  • ওয়াজীহা মুবাশশিরাহ  =  Wazeeh mubsaihira = সম্ভ্রান্ত সুসংবাদ বহন কারিণী
  • ওরদাহ ক্বাসিমাত  = Wordah Quasimad = গোলাপী চেহারা
  • ওয়াসীমা তায়্যেবা  = Wasima Taiybah = সুন্দরী পবিত্রা
  • ওয়াফীয়া জিন্নাত  = Wafia Zinnat = অনুগতা সম্ভ্রান্ত স্ত্রীলোক
  • ওয়াদীয়াত খালিসা  = Wadeatkhalisa = কোমলমতী উত্তম স্ত্রীলোক
  • ওয়াফিয়া তায়িবা   = Wafea Taiyaba = অনুগতা পবিত্রা
  • ওয়াসিফা আনিকা  = Wasefa anika = গুনবতী রূপসী
  • ওয়াসীকা   = Wasiqa = প্রমাম / বিশ্বাস / প্রত্যয়পত্র

সাধারণত একজন গার্ডিয়ান তাঁর সদ্য জন্ম নেওয়া সন্তানের জন্য হোক সেটা মেয়ে কিংবা ছেলে, তাঁর জন্য ভালো ও আধুনিক একটি ইসলামিক নাম রাখতে চায়, কিন্তু নাম চয়েজ করতে গিয়ে পড়তে হয় নানা রকম প্রতিবন্ধকতার মধ্যে। অনেকে প্রায় নাম রেখেই দেয়, কিন্তু পরোক্ষণে বোঝতে সক্ষম হয় যে, নামটির অর্থ নেতিবাচক কিংবা ধর্মীয় দিক থেকে তা সম্পূর্ণ নিষিদ্ধ নাম। তখন বাধ্য হয়ে পুনরাং নাম পাল্টাতে হয় কিংবা কেউ সেই একই নাম রেখে দেয়। আর যে বিধায় এখানে মেয়েদের জন্য সবগুলো ইসলামিক নাম তুলে ধরা হয়েছে।

  • ওয়াজিয়া   = Oajia = সুন্দরী (ও দিয়ে মেয়েদের নামের তালিকা)
  • ওয়াজীহা =  Wajiha = সুন্দরী
  • ওয়াহীদা  =  Wahida = একক / চিরণ
  • ওয়াসীমা  = Wasima = সুন্দরী / লাবণ্যময়ী
  • ওয়াকীলা   = Wakila = প্রতিনিধি
  • ওয়াহিদা  = Waheda = এক / একলা / একাকী
  • ওয়ারিসা   = Waresha = উত্তরাধিকারিনী
  • ওয়াসিফা   = Wasefa = প্রশংসাকারিণী
  • ওয়াসিজা   = Waeza = উপদেশ দাতা
  • ওয়ামিয়া =   Wamea = বৃষ্টি
  • ওয়াসামা  =  Wasama = চমৎকার
  • ওয়াফীকা  =  Wafiqa = সামঞ্জস্য
  • ওভিয়া  = = ছবি আঁকা, রং করা
  • ওনুল্যা = = স্বপ্নালু
  • ওস্মী = = ব্যক্তিত্ব, বরফের উজ্জ্বলতা
  • ওয়াফিয়া আত্বিয়া  = Wafia atia = অনুগতা দানশীলা
  • ওয়াফিয়া সানজিদা =  Wafeeasan zeeda = অনুগতা সহযোগিনী
  • ওয়াসীমা জিন্নাত   = Waseemat zinnat = সুন্দরী সম্ভ্রান্ত স্ত্রীলোক
  • ওয়াফিয়া সাদিকা  =  Wafeeasadiqa = অনুগতা সত্যবাদিনী
  • ওয়ালীদা  =  Walida = বালিকা
  • ওয়ালীয়া  = Waliya = বান্ধবী / হিতকারী
  • ওয়াসিলা  = Wasela = সাক্ষাৎ কারিণী
  • ওয়াজেদাহ   = Wazada = সংবেদনশীলা
  • ওয়াফিয়াহ =  Wafiah = অনুগত / যথেষ্ট
  • ওয়ালীজা  =  Waliza = বাংলা অর্থ – প্রকৃত বন্ধু

নামে নিয়ে আসে বৈচিত্র্যতা। আর যদি সেই নামটি একইসাথে আধুনিক এবং ইসলামিক হয়। মুসলিম রীতি-নীতি অনুযায়ী একটি নামের উপর বেশি বাধ্যকতা নেই। শুধু মাত্র সেই নামটিতে কোনো রকম শিরকের সংস্পর্শতা থাকতে পারবে না এবং নামের অর্থটি যাতে ইতিবাচক হয়। অর্থাৎ যেই নামটি আপনার মেয়ের জন্য কিংবা কণ্যার জন্য রাখবেন, সেটি দ্ধারা যেন নেতিবাচক কোনো কিছুকে না বোঝায় অথবা ইঙ্গিতও না করে। এরকম নামকেই ইসলাম পারমিট করে থাকে। আর সেই দিকটিকে লক্ষ্য রেখেই আজকের আর্টিকেলে উল্লেখ করা সম্পূর্ণ নামটি হলো ও দিয়ে মেয়েদের ইসলামিক নাম।

  • ওয়াশিজাত  =  Washezat = পরস্পরের আত্মীয়তা
  • ওয়াহফুন  = Wahfun = ঘন কালো কেশ
  • ওয়াদীয়াত  = Wadeeat = কোমলমতি / আমানত
  • ওয়াহফাত  = Wahfat = আওয়াজ / কালো পাথর
  • ওয়াস্বীক্কা   = Waseqa = বিশ্বাসী
  • ওয়াসীমা মাকসূরা =  Waema maksura = সুন্দরী পর্দানশীন স্ত্রীলোক
  • ওয়াজীহা শাকেরা  = Wazeeha shakira = সম্ভ্রান্ত কৃতজ্ঞতা প্রকাশকারিণী
  • ওয়াজদিয়া   = Wazdea = আবেগময়ী / প্রেমময়ী
  • ওয়াফা   = Waafa = অনুরক্ত
  • ওরদাত   = Ordat = গোলাপী (ঔ দিয়ে মেয়েদের নামের তালিকা)
  • ওয়াফিয়া সানজিদা =  Wafeeasan zeeda = অনুগতা সহযোগিনী
  • ওয়াসীমা জিন্নাত   = Waseemat zinnat = সুন্দরী সম্ভ্রান্ত স্ত্রীলোক
  • ওয়াফিয়া সাদিকা  =  Wafeeasadiqa = অনুগতা সত্যবাদিনী
  • ওয়ালীদা  =  Walida = বালিকা
  • ওয়ালীয়া  = Waliya = বান্ধবী / হিতকারী
  • ওয়াদীফা = Wadifa = সবুজঘন বাগান
  • ওদোতি = Wudoti = ভোর, সঞ্জীবনী
  • ওইশা    = Wisha = লজ্জাবতী
  • ওজসা   = Wojsha = জাঁকজমক, উজ্জ্বলতা, পুরুষত্ব, অসীম ক্ষমতা, সাহস
  • ওজতী  = Wojti= গুরুত্বপূর্ণ শক্তি থাকা, শক্তিশালী
  • ওমজা   = Womoja = আধ্যাত্মিক ঐক্যের ফলাফল
  • ওয়াফা  = Wafa = অনুরক্ত
  • ওসপ্রিয়া = Wospia = সাহসী
  • ওঙ্কারেশ্বরী = Wonkreshori = দেবী পার্বতী, গৌরী
  • ওম্না = Wonna = ধার্মিক, বিশুদ্ধ

ছেলে কিংবা মেয়েদের ইসলামিক নামের ক্ষেত্রে শিরক মুক্ত নাম হওয়া খুব জরুরি। অর্থাৎ এক আল্লাহর সাথে কোনো রকম শিরকী অর্থের মিল থাকে, তাহলে নাম রাখা একজন মুসলিমের জন্য কোনো ভাবেই কাম্য নয়। তাই একজন মুসলিম মেয়ের জন্য নাম রাখতে চাইলে গার্ডিয়ানদের সচেতন বিশেষভাবে কাম্য। অন্যথায়, যে নামটি আপনি আপনার মেয়ে সন্তানের জন্য রাখবেন, সে নামটি আপনার অজ্ঞার্থে যদি তা ইসলাম বহির্ভূত হয়, তাহলে পরোক্ষণে পুনরায় পরিবর্তন করার দরকার পড়তে পারে। তাই আপনাদের সুবিধার্থে আজকের আর্টিকেলে আমরা বেশ অনেকগুলো ও দিয়ে মেয়েদের ইসলামিক নাম নিয়ে আসছি।

  • ওষ্ঠী = Wosthi = কোকিনিয়া গ্র্যান্ডিস গাছ
  • ওমিকা  = Womika = দয়ালু, ভগবানের উপহার
  • ওমিলা  = Womila = রক্ষাকারী, বন্ধু
  • ওম্যা  = Woma = সাহায্য, দয়া, সহায়তা
  • ওয়াফিয়া সাদিকা  = Wafia = অনুগতা সত্যবাদিনী  
  • ওয়াসীমা তায়্যেবা = Wasima =  সুন্দরী পবিত্রা 
  • ওয়াফীয়া জিন্নাত = Wafiya =   অনুগতা সম্ভ্রান্ত স্ত্রীলোক
  • ওয়াদীয়াত খালিসা = Wadiyat Khalisa =  কোমলমতী উত্তম স্ত্রীলোক 
  • ওয়াফিয়া তায়িবা = Wafia Tabia =  অনুগতা পবিত্রা 
  • ওয়াসিফা আনিকা = Wasfia Anika =   গুনবতী রূপসী 
  • ওয়াহিদা = Wahida = এক, একলা, একাকী
  • ওয়ারিসা = Warisha = উত্তরাধিকারিনী
  • ওয়াসিফা = Wasifa =       প্রশংসাকারিণী
  • ওয়াসিজা = Wasija =  উপদেশ দাতা
  • ওয়ামিয়া = Wamia =  বৃষ্টি
  • ওয়াসীকা = Wasika =  প্রমাম, বিশ্বাস, প্রত্যয়পত্র
  • ওয়াজীহা = Wajiha =  সুন্দরী
  • ওয়াহীদা = Wahida =  একক, চিরণ
  • ওয়াসীমা = Wasima =  সুন্দরী, লাবণ্যময়ী
  • ওয়াকীলা = Wakila =  প্রতিনিধি
  • ওয়ালীদা = Walida = বালিকা
  • ওয়াজদিয়া  = Wajidia = আবেগময়ী, প্রেমময়ী
  • ওয়াফা  = Wafa = অনুরক্ত
  • ওসপ্রিয়া = Wospria = সাহসী
  • ওঙ্কারেশ্বরী = = দেবী পার্বতী, গৌরী

এটি হলো ও দিয়ে মেয়েদের ইসলামিক নাম এর শেষ ব্রেক। ইতিমধ্যে আপনারা বেশ অনেকগুলো মেয়েদের ইসলামিক নাম সম্পর্কে জানলেন। আশা করি, উপরোক্ত অসংখ্য ও দিয়ে মেয়েদের ইসলামিক নাম হতে যেকোনো একটি নাম আপনার মেয়ে বাবুর জন্য চয়েজ করতে এবং পিক করতে পেরেছেন। যদিও এখন অবধি কোনো একটি সিঙ্গেল নামও চয়েজ করতে না পেরে থাকেন, তাহলে দয়া করে নিম্নোক্ত বাকি নামগুলো আরেকবার পড়ুন। আশা করি এখানে উল্লেখিত নামগুলো থেকে যেকোনো একটি নাম পিক করতে পারবেন।

  • ওম্না = Wonna = ধার্মিক, বিশুদ্ধ
  • ওষ্ঠী = Wosthi = কোকিনিয়া গ্র্যান্ডিস গাছ
  • ওমবতী = Womboti = ভক্তিমূলক, ওমের শক্তি
  • ওনমপ্রীত = Wonomprit =  সর্বদা ভালবাসা ছড়িয়ে দেয় যে
  • ওজয়িতা = Wojyita =  যিনি সাহসের সাথে আচরণ করেন
  • ওমাক্ষি = Womakkhi = শুভ চোখ যার
  • ওষধি = Woshodi = ওষুধ
  • ওলিয়র্ষী = Wolioworsi = দুর্দান্ত, বুদ্ধিমান
  • ওয়াসীমা মাকসূরা = Wasima Maksura = সুন্দরী পর্দানশীন স্ত্রীলোক
  • ওয়াজীহা শাকেরা =  Wajiha Shakera =  সম্ভ্রান্ত কৃতজ্ঞতা প্রকাশকারিণী।
  • ওয়াফীয়া মুকারামা = Wafia Mukarama = অনুগতা সম্মানিতা
  • ওয়াজীহা  = Wajiha =  মুবাশশিরাহ সম্ভ্রান্ত সুসংবাদ  বহন কারিণী।
  • ওরদাহ ক্বাসিমাত = Wadah Kasimat =  গোলাপী চেহারা
  • ওয়াফিয়া আত্বিয়া = Wafia Atiha =  অনুগতা দানশীলা
  • ওয়াফিয়া সানজিদা = Wafia Sanjida = অনুগতা সহযোগিনী
  • ওয়াসীমা জিন্নাত = Wasima Jinnat =  সুন্দরী সম্ভ্রান্ত স্ত্রীলোক
  • ওয়াফিয়া সাদিকা = Wafia Sadika =  অনুগতা সত্যবাদিনী
  • ওয়াসীমা তায়্যেবা = Wasima Taiba =  সুন্দরী পবিত্রা
  • ওয়াফীয়া জিন্নাত = Wafia Jinnat =  অনুগতা সম্ভ্রান্ত স্ত্রীলোক
  • ওয়াদীয়াত  = Wadiyat = খালিস কোমলমতী উত্তম স্ত্রীলোক
  • ওয়াফিয়া  = Wafia = তায়িবা অনুগতা পবিত্রা
  • ওয়াসিফা  = Wasifa = আনিকা গুনবতী রূপসী
  • ওজা = Woja = গুরুত্ব
  • ওমা = Woma = নেতা, জীবনদাত্রী, সশ্রদ্ধ, অলিভের রঙ, জীবনদান করা, বন্ধু, সর্বোচ্চ
  • ওনা = Wna = ক্ষমায় পূর্ণ, আগুন, অনুগ্রহ, আনুকূল্য, একসাথে, পরম করুনাময়
  • ওশা = Wosha = জ্বলজ্বলে, উজ্জ্বল, দহন, উপহার

উপরের নামগুলোই হলো মূলত আজকের আর্টিকেলের ও দিয়ে মেয়েদের ইসলামিক নামগুলো। আশা করি আপনি যদি প্রথম হতে এখন অবধি মনোযোগ সহকারে পড়ে থাকেন, তাহলে এখানে উল্লেখিত সবগুলো নাম থেকে যেকোনো একটি সুন্দর ও অর্থবহ ইতিবাচক ও দিয়ে মেয়েদের ইসলামিক নাম চয়েজ করতে পারবেন।

ও দিয়ে মেয়েদের ইসলামিক নামের তালিকা বাংলা অর্থসহ

ও দিয়ে মেয়েদের ইসলামিক নামের তালিকা বাংলা অর্থসহ

ও দিয়ে মেয়েদের ইসলামিক নামের তালিকা থেকে আশা করি একজন গার্ডিয়ান তাঁর সন্তানের জন্য ভালো ও অর্থবহ একটি নাম পিক করতে পারবে। আর যে বিধায় আজকের আমাদের এই সম্পূর্ণ আর্টিকেলটি। আশা করি, যদি মনোযোগ সহকারে কোনো একজন পাঠক পুরো নামগুলো পড়ে থাকে, তাহলে এখান থেকে ত দিয়ে তৈরি হওয়া মেয়েদের জন্য যে নামগুলো রয়েছে, সেখান হতে যেকোনো একটি নাম রাখার সিদ্ধান্ত নিতে তাঁর জন্য বেশ সুবিধা হবে। যেহেতু একজনের নাম থেকেই তাঁর ধর্মীয় পরিচয় বহন করে, সেহেতু সেই নামটিকে অবশ্যই হতে হবে ধর্মীয় দিক থেকে পারফেক্ট সহ ইতিবাচক অর্থবহ। আর যেটা মেইনটেইন করে আমাদের আজকের সম্পূর্ণ আর্টিকেলটি। আশা করি, আপনারা যারা নাম রাখার জন্য সিরিয়াস হয়ে ও দিয়ে একটি মেয়ের নাম খুঁজছেন,তাঁরা এখান থেকে একটি নাম পিক করতে পারবেন।

ও দিয়ে মেয়ে বাবুর ইসলামিক নামের তালিকা

ও দিয়ে মেয়ে বাবুর ইসলামিক নামের তালিকা

ও দিয়ে মেয়ে  বাবুর ইসলামিক নামের তালিকা দ্ধারা একজন গার্ডিয়ান উপকৃত হোক বা হবে, এরকম মানসিকতা নিয়েই মূলত আজকের আর্টিকেলটি। এখন একটি মেয়ের নাম ইসলামিক হলেই রেখে দিতে হবে, ব্যাপারটি তেমন নয়। অবশ্যই এই ক্ষেত্রে আপনাকে বেশ কয়েকটি বিষয় মনোযোগ সহকারে মেনে চলতে হবে। অর্থাৎ নাম রাখার ক্ষেত্রে মাথায় উক্ত জিনিসগুলোকে রেখে একটি ভালো, আধুনিক ও ইসলামিক নাম রাখতে হবে।

এখন অনেকের প্রশ্ন আসতে পারে যে, ভালো ও অর্থবহ একটি ইসলামিক নাম রাখতে হলে কি কি বিষয়গুলোকে অনুসরণ করা উচিত? যদিও এর উত্তর ইতমধ্যে আর্টিকেলের মধ্যে দেওয়া হয়েছে। সুতরাং মনোযোগ সহকারে যদি আপনি আজকের আর্টিকেলটি অর্থাৎ ও দিয়ে মেয়েদের ইসলামিক নাম পড়ে থাকেন, তাহলে এখন আপনার জন্য একটি ইসলামিক নাম হোক সেটা ছেলে কিংবা মেয়ের জন্য নাম চয়েজে কোনো রকম হেজিটেশনে পড়তে হবে না।

ও দিয়ে মেয়েদের ইসলামিক নাম নিয়ে শেষ কথা

ও দিয়ে মেয়েদের ইসলামিক নাম নিয়ে শেষ কথা

ও দিয়ে মেয়েদের ইসলামিক নাম নিয়ে শেষ কথা বলতে তেমন কিছু বলার নেই। যদিও ইতিমধ্যে এই নিয়ে বিস্তর আলোচনা হয়েছে আমাদের সাইটে। আপনারা মেয়েদের নাম রাখার ক্ষেত্রে কোন কোন বিষয়গুলোকে ফোকাসে নিয়ে নাম রাখতে হবে এবং তা রাখার সিদ্ধান্ত নিবেন সহ আরো আনুসাঙ্গিক অনেক বিষয় নিয়ে আলোচনা হয়েছে। সুতরাং আপনি যদি সত্যিকার অর্থেই ও দিয়ে এমন একটি ইসলামিক নাম রাখতে চান, যা আপনার মেয়ের জন্য বেশ ভালো ও অর্থবহ, তাহলে ইতিমধ্যে আপনি ও দিয়ে এমন একটি নাম পেয়ে যাওয়া কথা । এখানে নাম চয়েজের ক্ষেত্রে কোন কোন বিষয়গুলোকে ফোকাসে রাখা দরকার জন্য সবগুলো বিষয় নিয়েই আলোচনা হয়েছে। তাই আপনি ইচ্ছা করলে এখান থেকেই একটি নাম চয়েজ করতে পারেন।

ও দিয়ে মেয়েদের ইসলামিক নাম নিয়ে প্রশ্ন-উত্তর

ও দিয়ে মেয়েদের ইসলামিক নাম রাখার ক্ষেত্রে কোন বিষয়গুলোকে গুরুত্ব দেওয়া উচিত?

বিশেষ করে নামটি ইসলামিক কি-না এবং নামের অর্থটি ইতিবাচক কি-না। এর পাশাপাশি দেখতে হবে নামটির সাথে শিরকের কোনো সম্পর্ক রয়েছে কি-না। এই বিষয়গুলোকেই গুরুত্ব দেওয়া উচিত নাম চয়েজের ক্ষেত্রে।

এখানে উল্লেখিত নামগুলো কি ইসলামিক?

হ্যাঁ, এখানে উল্লেখিত প্রায় সবগুলো নামই হলো ইসলামিক এবং মেয়েদের জন্য ও দিয়ে তৈরি নাম।

ও দিয়ে মেয়েদের ইসলামিক নাম সম্পর্কে আরো জানতে

BanglaTeach
E-HaqDigital Marketer at- BanglaTeach

E-Haq is the founder of BanglaTeach. He is expertise on Education, Health, Financial, Banking, Religious and so on.

Leave a Comment