ইসলামিক নাম (২৫০০+) | ছেলে ও মেয়েদের ইসলামিক নাম অর্থসহ

BanglaTeach
E-Haq
Digital Marketer at- BanglaTeach

E-Haq is the founder of BanglaTeach. He is expertise on Education, Health, Financial, Banking,...

Sharing is caring!

ইসলামিক নাম
ইসলামিক নাম

ইসলামিক নাম সেটা ছেলে-মেয়ে উভয়ের জন্যই রাখা একজন সচেতন গার্ডিয়ান তথা মা-বাবার সন্তান জন্মের পর প্রধান দায়িত্ব। এখন নাম রাখার ক্ষেত্রে বেশ অনেকগুলো জিনিস বা ফ্যাক্টর একজন গার্ডিয়ানের মনে রাখা উচিত। এখন প্রশ্ন আসতে পারে যে জিনিসগুলো কি? যখনই একজন মুসলিম মা-বাবা তাঁর সদ্য জন্ম নেওয়া সন্তানের জন্য নাম রাখতে চাইবে তখন অন্তত ৩টি বিষয়ের উপর সে লক্ষ্য রাখবে। সেগুলো হলো-

  • নামটি ইসলামিক নাম কি-না।
  • নামের অর্থ ইতিবাচক কি-না।
  • নাম কিংবা অর্থ শীরক মুক্ত কি-না।

উপরোক্ত এই তিনটি বিষয় লক্ষ্য রেখে একজন সচেতন গার্ডিয়ান মেয়েদের ইসলামিক নাম কিংবা ছেলেদের ইসলামিক নাম চয়েজ করতে এবং রাখতে পারে। এখন আমদের সবার নিকট কিন্তু ছেলে অথবা মেয়েদের ইসলামিক নামের তালিকা ( List of Islamic Name in Bangla ) নেই। এছাড়াও ইসলামিক নাম এর অর্থ সমূহ কিন্তু আমরা বেশিরভাগ মানুষই জানি না। ইভেন নামটি ইসলামিক নাম কি-না, তা সম্পর্কেও অনেকে অজ্ঞ। যে বিধায় আজকের আর্টিকেলে আমরা এমন কিছু ইসলামিক নাম নিয়ে আলোচনা করবো, যেগুলো একজন গার্ডিয়ান তাঁর ছেলে কিংবা মেয়ের জন্য রাখার ক্ষেত্রে ব্যবহার করতে পারবে। যাইহোক, আলোচনা দীর্ঘায়তি না করে চলুন জেনে নেওয়া যাক অসংখ্য ছেলে ও মেয়ের ইসলামিক নাম অর্থ সহ।  ( জিহাদ নিয়ে উক্তি সহ আধুনিক মিষ্টি মেয়ের নামের তালিকা এবং ইসলামিক উক্তি সম্পর্কে জানুন )

ইসলামিক নাম সমূহ অর্থসহ

ইসলামিক নাম সমূহ অর্থ সহ
ইসলামিক নাম সমূহ অর্থ সহ

স্বাভাবিকভাবে প্রত্যেকটি মুসলিম উম্মাহ চায় তাদের ঘরে জন্ম নেওয়া প্রতিটি শিশুর ইসলামিক নাম হোক এবং যে বিধায় সন্তান জন্মের পর গার্ডিয়ানগণ অভিজ্ঞ আলেম ও হুজুরদের নিকট দৌড়াতে দেখা যায়। তবে যাইহোক, ব্যাসিক জিনিস হলো সন্তানের নাম ইসলামিক ভাবে রাখতে হবে। হোক সেটা ছেলে সন্তান কিংবা মেয়ে বা কণ্যা সন্তান। ছেলে হলে ছেলেদের ইসলামিক নাম এবং মেয়ে হলে মেয়েদের ইসলামিক নাম রাখা একজন সচেতন পিতা-মাতার অন্যতম দায়িত্ব।  ( হাসবুনাল্লাহু এর বিষ্মকর ফজিলত সম্পর্কে জানুন )

আজকের আলোচনায় আমরা প্রধানত দু’টি জিনিসকে কেন্দ্র করেই পুরো নামগুলো আলাদা আলাদা তালিকায় প্রকাশ করবো। আর সেগুলো হলো-

  • ছেলেদের ইসলামিক নাম
  • মেয়েদের ইসলামিক নাম

প্রথমে আমরা ছেলেদের সকল ধরনের ইসলামিক নামগুলো Islamic name জানবো এবং এরপর মেয়েদের সকল ধরনের ইসলামিক নামগুলো জানবো। ( বাবাকে নিয়ে সেরা কিছুৃ উক্তি পড়ুন )

বিভিন্ন বর্ণ, শব্দের মাধ্যমে ছেলে ও মেয়ের ১৫০০+ ইসলামিক নাম নিম্নে তালিকা আকারে প্রকাশ করা হলো। কিছু কিছু সাব-ক্যাটাগরির আন্ডারেও আরো অনেকগুলো ইসলামিক নাম তুলে ধরা হয়েছে। যাইহোক, আলোচনা বিলম্ব না করে চলুন জেনে নেওয়া যাক মেয়ে ও ছেলেদের ইসলামিক নামগুলো-

ছেলেদের ইসলামিক নাম

ছেলেদের ইসলামিক নাম
ছেলেদের ইসলামিক নাম

বর্তমানে ইন্টারনেট তথা গুগলে ছেলেদের ইসলামিক নাম কিংবা আধুনিক ইসলামিক নাম ছেলেদের লিখে প্রচুর পরিমাণে সার্চ হয়ে থাকে। সদ্য জন্ম নেওয়া একজন ছেলে বাবুর নাম রাখার ক্ষেত্রে প্রথম দায়িত্ব তাঁর পিতা কিংবা মাতার উপর এসেই পড়ে। যে বিধায় আমাদের সচারাচর ধর্মীয় জ্ঞান বেশি না থাকায় বাধ্য হয়ে ছেলেদের ইসলামিক নাম কিংবা এরকম কিছু টার্ম ব্যবহার করে গুগলে সার্চ দিতে হয়। কেমন হয়, যদি আজকের আর্টিকেলের মাধ্যমে আপনি ছেলেদের ইসলামিক নামের একটি সম্পূর্ণ তালিকা পেয়ে যান? অর্থাৎ, উক্ত তালিকায় বাংলা ভাষার বিভিন্ন বর্ণ দিয়ে তৈরি ছেলেদের নাম থাকবে, আধুনিক নাম সহ ইত্যাদি ধরনের। তাহলে চলুন ধারাবাহিকভাবে ছেলেদের ইসলামিক নামগুলো জানা যাক।

  • ওয়াকিব উদ্দিন  = Wakir Uddin =  দ্বীনের প্রতিনিধি
  • ওয়াহিদুল ইসলাম =  Wahidul islam =  ইসলামের অতুলনীয়
  • ওয়াক্বিল ইললাম =  Wakkil islam =  ইসলামে পর্যবেক্ষণকারী
  • ওয়াছিক আরীফ = Wasique Arif  = শক্তিশালী মেধাবী
  • ওযাজীহ উদ্দীন  = Wazih Uddin  = দীনের সৌন্দর্য
  • ওয়াকিল উদ্দীন =  Wakil Uddin  = ধর্মের প্রতিনিধিত্বকারী
  • ওয়াসীত্ব হামীদ =  Wasit Hamid =  প্রশংসাকারী সম্ভান্ত ব্যক্তি
  • ওয়াক্বাদ হায়াত =  Wakkad Hayat =  প্রাণবন্ত জীবন
  • ওয়াকার ইউনুস =  Waqar Yunus  = মর্যদাবান ব্যক্তি
  • ওয়াকীল মাহমুদ  = Wakil Ahmed  = প্রশংসাকারী প্রতিনিধি
  • ওয়াজিদুল ইসলাম  = Wazidul islam =  ইসলামের প্রতি সংবেদনশীল
  • ওয়ালিউল্লাহ =  Wali Ullah  = আল্লাহর বন্ধু
  • ওফা  = Wafa  = ভক্তি
  • ওয়াকী =  Waqi  = উচ্চ
  • ওয়াক্কাদ =  Waqqad =  প্রাণবন্ত
  • ওয়াচ্ছাব  = Wassab  = অদ্যমশীলস্ফূর্ত
  • ওয়াজদি  = Wajdi  = আবেগময়
  • ওয়াজ্জাহ =  Wajjah  = উজ্জ্বল
  • ওয়াফির  = Wafir  = পরিপূর্ণ
  • ওয়াবিল  = Wabil =  বর্ষণ
  • ওয়ারিদ  = Warid  = সুদক্ষ
  • ওয়ারেছী  = Waresi  = উত্তরাধিকার
  • ওয়ারেদীন  = Waredin =  প্রবেশকারীগণ
  • ওয়াসী  = Wasi  = সুবিস্তৃত
  • ওয়াসীম  = Wasim  = মনোহর
  • ওসাম  = Wosam  = পদক
  • ওয়াজিদ =  Wajid =  প্রাপক
  • ওয়াহশী =  Wahshi = সিংহ
  • এখলাস = Ikhlas = নিষ্ঠার, আন্তরিকতা
  • এমদাদ = Imdad = মদদ করা, সাহায্যকারী
  • এনায়েত = Anaet (Enayet) = অনুগ্রহ, অবদান
  • এজায = Eja’j = সম্মান, অলৌকিক
  • এতেমাদ = Itemad = আস্থা
  • এহতেশাম = Ehtesham = লজ্জা করা
  • এহসান = Ehsan = উপকার, দয়া
  • টুরাইলাই =  Turalai
  • টুরান = Turan
  • টুরাব = Turab
  • টুলাইভ = Tulive
  • টুফেইল = Tufail
  • ট্রিফ = Trife
  • ট্রয়াল = Trail
  • টলাক = Tolak
  • এহছানুক = Ehsanul Hoq = মহান প্রভুর দয়া
  • এবাদুর রহমান = Ebadur Rahman = করুণাময়ের বান্দা
  • এহতেশামুল হক = Ihtishamul Hoq = সত্যের মর্যাদা
  • এজাজ আহমেদ = Izaz Ahmed = অত্যাধিক প্রশংসাকারী
  • এমরান আহমেদ = Imrah Ahmed = প্রশংসনীয় জনবহুল বসতি
  • একরামুদ্দীন = Ikramuddin = দ্বীনের সম্মান করা
  • লাত্বফান / লাতফান   =  Latfan   =  কল্যাণ কারী
  • লুবান   =  Loban   =  সুগন্ধি দ্রব্য
  • লাযনা   =  Lozna   =  সম্মিলিত হওয়া / বিপ্লব
  • লবীদ   =  Labid   =  এক প্রকারের পাখি / বাসিন্দা
  • লাবিবুদ্দিন   =  Labibuddin   =  দ্বীনের জ্ঞানী / চিন্তাবিদ
  • লুতফুল্লাহ   =  Lutfullah   =  আল্লাহর সৌন্দর্য
  • লিয়াকত আলী   =  Liakat ali  =  উন্নত / উৎকৃষ্ট যোগ্যতা
  • লোকমান হোসাইন   =  Loakman Hossain   =  অভিজ্ঞ সুন্দর জ্ঞানী
  • লুৎফুর রহমান   =  Lutfur Rahman   =  করুণাময়ের শোভা
  • লুবান মুকাদ্দাস   =  Loban mokaddas   =  সুগন্ধি দ্রব্য পাক পবিত্র
  • লুবান মাহফুজ   =  Loban mahfuz   =  সুগন্ধি দ্রব্য সংরক্ষিত
  • লাবীব / লাবিব   =  Labib  =  জ্ঞানী / বুদ্ধিমান
  • লায়েক   =  Laeq   =  যোগ্য / দক্ষ
  • লুতফ   =  Lutfu   =  কবি / করুণা / সৌন্দর্য
  • লাতিফ   =  Latie (latif)  =  পবিত্র / নমনীয় / সূক্ষু
  • লাতাফত   =  Latafat   =  নমনীয়তা
  • লা’ল   =  La’l   =  মুক্তা
  • লাফীয   =  Lafiz   =  বাক পটু
  • লেকা   =  Leqa   =  সাক্ষাৎ / মিলন
  • লোকমান হাসান   =  Lokman hasan   =  সুন্দর জ্ঞানী
  • লোকমান মাওদূদ   =  Lokman moudud   =  জ্ঞানী প্রিয়পাত্র
  • লোকমান মাসউদ   =  Lokman masud   =  জ্ঞানী ভাগ্যবান
  • লোকমান করিম   =  Lokman karim   =  দয়ালু জ্ঞানী
  • লাজনা হাসান   =  Lajna hasan   =  সুন্দর বিপ্লব
  • লাজনা মাহফুজ   =  Lajna mahfuj   =  সুরক্ষিত বিপ্লব
  • লুকমান   =  Luqman   =  কুরআনে উল্লিখিত একজন জ্ঞানী ব্যক্তির নাম
  • লোকমান হাবিব   =  Lokman habib   =  প্রিয়জ্ঞানী
  • লোকমান মাসুম   =  Lokman masum   =  নিষ্পাপ জ্ঞানী
  • লোকমান রফিক   =  Lokman rafiq   =  জ্ঞানী বন্ধু
  • লোকমান হাকীম   =  Lukman hakim   =  জ্ঞানী দার্শনিক
  • লাবীব আব্দুল্লাহ   =  Labib Abdullah   =  বুদ্ধিমান আল্লাহর বান্দা
  • লতিফুর রহমান   =  Lateefur Rahman   =  পবিত্র করুণাময় / নমনীয়
  • লুৎফুজ্জামান   =  Lufuzzaman   =  জামানার সৌন্দর্য
  • লাত্বফান  =  Latfan  =  কল্যাণ কারী
  • লুবান  =  Loban  =  সুগন্ধি দ্রব্য
  • লাযনাLozna  =  সম্মিলিত হওয়া, বিপ্লব
  • লবীদ  =  Labid  =  এক প্রকারের পাখি, বাসিন্দা
  • লাবিবুদ্দিন  =  Labibuddin  =  দ্বীনের জ্ঞানী, চিন্তাবিদ
  • লুটফুল্লাহ  =  Lutfullah  =  আল্লাহর সৌন্দর্য
  • লিয়াকত আলী  =  Liakat ali  =  উন্নত, উৎকৃষ্ট যোগ্যতা
  • লোকমান হোসাইন  =  Loakman Hossain  =  অভিজ্ঞা সুন্দর জ্ঞানী
  • লুৎফুর রহমান  =  Lutfur Rahman  =  করুণাময়ের শোভা
  • লায়েক  =  Laeq  =  যোগ্য, দক্ষ
  • লাবীব  =  Labib  =  জ্ঞানী, বুদ্ধিমান
  • লুতফ  =  Lutfu  =  কবি, করুণা, সৌন্দর্য
  • লাতিফ  =  Latie (latif)  =  পবিত্র, নমনীয়, সূক্ষু
  • লাতাফত  =  Latafat  =  নমনীয়তা
  • লা’ল  =  La’l  =  মুক্তা
  • লাফীয  =  Lafiz  =  বাক পটু
  • লেকা  =  Leqa  =  সাক্ষাৎ, মিলন
  • লুকমান  =  Luqman  =  কুরআনে উল্লিখিত এখন জ্ঞানী ব্যক্তির নাম
  • লোকমান মাওদূদ  =  Lokman moudud  =  জ্ঞানী প্রিয়পাত্র
  • লোকমান মাসউদ  =  Lokman masud  =  জ্ঞানী ভাগ্যবান
  • লোকমান করিম  =  Lokman karim  =  দয়ালু জ্ঞানী
  • লাজনা হাসান  =  Lajna hasan  =  সুন্দর বিপ্লব
  • লাজনা মাহফুজ  =  Lajna mahfuj  =  সুরক্ষিত বিপ্লব
  • লতিফুর রহমান  =  Lateefur Rahman  =  পবিত্র করুণাময়, নমনীয়
  • লুৎফুজ্জামান  =  Lufuzzaman  =  জামানার সৌন্দর্য
  • লাযেম খলীল  =  Lazem Khalil  =  অপরিহার্য বন্ধু
  • লাত্বাফান হাসান  =  Latfan hasan  =  কল্যাণ সাধনকারী সুদর্শন ব্যক্তি
  • লাত্বফান ওয়াসীত্ব  =  Latfan wasit  =  কল্যান সাধনকারী সম্ভ্রান্ত ব্যক্তি

ছেলেদের ইসলামিক নাম অর্থসহ

ছেলেদের ইসলামিক নাম রাখার পূর্বে অর্থসহ বিস্তারিত জানা একজন গার্ডিয়ানের কর্তব্য এবং সেই নিয়ম অনুপাতে মুসলিম রাখাও একজন মুসলমান পরিবারের দায়িত্ব। তবে যাইহোক, যেহেতু পাঠকগণ আমাদের এই ইসলামিক নাম এর আর্টিকেলটি পড়ছে, তাহলে ধরে নেওয়া যায় যে, পাঠকগণের অধিকাংশেই হলো নামের অর্থ জানতে চায় অথবা একটি ইসলামিক নাম চয়েজ করে পিক করতে চায়। আর সেই প্রেক্ষিতেই আজকে আমরা বেশ অনেকগুলো ছেলেদের ইসলামিক নাম অর্থসহ জানার চেষ্টা করছি। নিম্নে আরো অনেকগুলো ছেলেদের ইসলামিক নাম অর্থসহ দেওয়া হলো। চলুন সেগুলো জেনে নিই।

  • বায়িস (বায়েস)  =  Ba’ith  =  কারণ, পুনরুঙ্খানকারী
  • বাশশার  =  Basshar  =  সুসংবাদদাতা
  • বদর  =  Badr  =  পূর্ণিমার চাঁদ
  • বাহা  =  Baha  =  আলো
  • বাসীর  =  Basir  =  চক্ষুমান, জ্ঞানী
  • বিলাল  =  Belal  =  বিখ্যাত সাহাবীর নাম, আর্দ্রতা
  • বান্না  =  Banna  =  নির্মাত রাজমিস্ত্রী
  • বনীয়ামীন  =  Baniamin  =  হযরত ইউসুফ (আঃ) এর ছোট ভাই
  • বাহার  =  Bahar  =  ঋতুরাজ
  • বসন্তবুশরা  =  Boshra  =  শুভ নিদর্শনবাদল
  • বাবর (বাবুর)  =  Babar (babur)  =  একজন মোঘল সম্রাটের নাম, সিংহ
  • বাহিছ  =  Bahis  =  hগবেষক
  • বেশারাতুল হাসান  =  Besharatul Hasan  =  সুন্দর সুসংবাদ
  • বেলাল হোসাইন  =  Belal Hossain  =  সুন্দর পানি
  • বখতিয়ারুদ্দিন  =  Bokhtiuruddin  =  সৌভাগ্যবান দ্বীন
  • বজলুর রহমান  =  Bazlur Rahman  =  করুণাময়ের দান দক্ষিণা
  • বখতিয়ার আশহাব   = Bokhtiar Ashab =  সৌভাগ্যবান বীর
  • বখতিয়ার আসলাম   = Bokhtiar Aslam =  সৌভাগ্যবান নিরাপদ
  • বখতিয়ার আজিম   = Bokhtiar Ajim =  সৌভাগ্যবান শক্তিশালী
  • বখতিয়ার আবিদ   = Bokhtiar Abid =  সৌভাগ্যবান এবাদতকারী
  • বখতিয়ার আদিল   = Bokhtiar Adil =  সৌভাগ্যবান ন্যায়পরায়ণ
  • বখতিয়ার আখতাব   = Bokhtiar Akhtar =  সৌভাগ্যবান বক্তা
  • বখতিয়ার আকরাম   = Bokhtiar Akram =  সৌভাগ্যবান দানশীল
  • বখতিয়ার আহবাব   = Bokhtiar Ahbab =  সৌভাগ্যবান বন্ধু
  • বখতিয়ার মুইজ   = Bokhtiar Muis =  সৌভাগ্যবান সম্মানিত
  • বখতিয়ার মুস্তাফিজ   = Bokhtiar Mustafij =  সৌভাগ্যবান উপকৃত
  • বখতিয়ার গালিব   = Bokhtiar Galib =  সৌভাগ্যবান বিজয়ী
  • বখতিয়ার মাহবুব   = Bokhtiar Mahbub =  সৌভাগ্যবান প্রিয়
  • বখতিয়ার মুহিব   = Bokhtiar Muhib =  সৌভাগ্যবান প্রেমিক
  • আবরার নাসির   = Abrar Nasir =  ন্যায়বান সাহায্যকারী
  • বখতিয়ার মাদীহ   = Bokhtiar Madih =  সৌভাগ্যবান মধর্মযোদ্ধা
  • বখতিয়ার মাশুক   = Bokhtiar Masuk =  সৌভাগ্যবান প্রেমাস্পদ
  • বখতিয়ার মুজিদ   = Bokhtiar Mujid =  সৌভাগ্যবান আবিষ্কারক
  • বখতিয়ার খলিল   = Bokhtiar Khalil =  সৌভাগ্যবান বন্ধু
  • বখতিয়ার করিম   = Bokhtiar Karim =  সৌভাগ্যবান দয়ালু
  • বখতিয়ার জলিল   = Bokhtiar Jalil =  সৌভাগ্যবান মহান
  • বিজয়   = Bijoy =  জয়
  • বখতিয়ার হামিম   = Bokhtiar Hamim =  সৌভাগ্যবান বন্ধু
  • বখতিয়ার হামিদ   = Bokhtiar Hamid =  সৌভাগ্যবান বন্ধু
  • বখতিয়ার হাসিন   = Bokhtiar Hasin =  সৌভাগ্যবান সুন্দর
  • বখতিয়ার গালিব  = Bokhtiar Galib =  সৌভাগ্যবান বিজয়ী
  • ফারহান নাদিম = Farhan Nadim = প্রফুল্ল সঙ্গী
  • ফালাহ = Falah =  সফল
  • ফারহান মাশুক = Farhan Masuk = প্রফুল্ল প্রেমাস্পদ
  • ফারহান মনসুর = Fahran Monsur = প্রফুল্ল বিজয়ী
  • ফারহান মাহতাব = Farhan Mahtab = প্রফুল্ল চাঁদ
  • ফারহান লতিফ = Farhan Latif = প্রফুল্ল পবিত্র
  • ফারহান লাবিব = Farhan Labib = প্রফুল্ল বুদ্ধিমান
  • ফারহান খলিল = Farhan Kholil = প্রফুল্ল বন্ধু
  • ফারহান ইশরাক = Farhan Israk = প্রফুল্ল সকাল
  • ফারহান ইহসাস = Farhan Ihsas = প্রফুল্ল অনুভূতি
  • ফারহান হাসিন = Farhan Hasin = প্রফুল্ল সুন্দর
  • ফারহান ফুয়াদ = Farhan Fuyad = প্রফুল্ল অন্তর
  • ফারহান বাসিম = Farhan Basim = প্রফুল্ল হাস্যোজ্ব্যল
  • ফারহান আতেফ = Farhan Atef = প্রফুল্ল দয়ালু
  • ফারহান আখতার = Farhan Akhtar = প্রফুল্ল নেতা
  • ফাহাদ = Fahad =  সিংহ
  • ফাতেহ = Fateh = বিজয়ী
  • ফিদা = Fida = উৎসর্গ
  • ফারহাত = Farhat =  আনন্দ, উল্লাস
  • ফুরকান = Furkan =   সত্য মিথ্যার পার্থক্যকারী
  • ফখর = Fokhor =   গর্ভ
  • ফেরদাউস = Ferdous =   উদ্যান,। শ্রেষ্ঠ বেহেশত
  • ফরীদ = Forid =   অনুপম
  • ফাসাহাত = Fasahat =   বিশুদ্ধ ভাষণ, বাক চাতুর্থ
  • ফাসীহ = Fasih =   বিশুদ্ধভাষী, বাকপটু
  • ফাদল (ফযলু) = Fadol =   অনুগ্রহ
  • ফাতীন = Fatin =   বুদ্ধিমান, সুচতুর
  • ফুদায়ল (ফুদায়ল) = Fudayal =   সাহাবীর নাম, জ্ঞানী

আধুনিক ইসলামিক নাম

বর্তমানে ইন্টারনেটে প্রচুর পরিমাণ সার্চ হয়ে থাকে ছেলেদের আধুনিক ইসলামিক নাম জানতে চেয়ে। আর সেই বিধায় আজকের এই দীর্ঘ আর্টিকেলে আমরা ছেলেদের অন্য সকল নাম জানার পাশাপাশি আধুনিক নামগুলো সম্পর্কেও জানবো। যদিও বর্তমান ২০২২-২৩,২৪ সালে এসে ছেলেদের আধুনিক নামের উপর ভিত্তি করে একটি ইসলাম সমর্থিত নাম পাওয়া বেশ মুশকিলের কাজ। তবে সার্বিকভাবে ইসলামিক অনেক নাম রয়েছে, যেগুলো এখনো বর্তমান যুগের সাথে তাল মিলিয়ে আধনিক ইসলামিক নাম এর সিরিয়ালে রয়েছে। তাহলে কোন নামগুলো আধুনিক ইসলামিক নাম? ছেলেদের আধুনিক ইসলামিক নামগুলো হলো-

  • ফেরদাউস   = Ferdous = বেহেশত
  • ফরীদ   = Forid = অনুপম
  • ফাওক = Fawok =   উর্ধ্ব
  • ফাইদ (ফায়েয) = Faid =  শ্রেত, উচ্ছ্বাস, বান
  • ফুয়ুদ (ফুয়ুয) = Foyud = স্রোতধারা, আনুকম্পার ধারা
  • ফিরোজ = Firoj = সমৃদ্ধশীল
  • ফাতিক = Fatik = বীর পুরুষ
  • ফাখীম = Fakhim = মর্যাদা সম্মান মহৎব্যক্তি
  • ফাহীম ফায়সাল               = Fahim Faysal = বুদ্ধিমান বিচারক
  • ফাতীন ইশরাক্ব = Fatib Ishrak =  তীক্ষ্ম বুদ্ধিমান সুন্দর
  • ফাতিক দিলীর = Fatik Dilir = সুন্দর সকাল
  • ফিরোজ মাহমুদ = Firoz Mahmud =  বীরপুরুষ সাহসী
  • ফাহীম আনীস = Fahim Anis =  সমৃদ্ধিশালী প্রশংসিত
  • ফাতীন আনজুম = Fatin Anjum =  করুনাময়ের দয়া
  • ফাহীম আনীস  = Fahim Anis =  প্রফুল্ল আলোকিফারহান আমের = Farhan Amer = প্রফুল্ল শাসক
  • ফারহান আলমাস = Farhan Almas = প্রফুল্ল হীরা
  • ফারহান আখইয়ার = Farhan Akhaiar = প্রফুল্ল চমৎকারমানুষ
  • ফারহান আবসার = Farhan Absar = প্রফুল্ল তারা
  • ফাহীম হাবিব = Fahim Habib =  তীক্ষ্ম বুদ্ধিমান বন্ধু
  • ফুয়াদ হাসান = Fuhad Hasan =  সুন্দর মন, অন্তর
  • ফারহান মাসুক = Farhan Masuk =  প্রফুল্ল প্রেমাস্পদ
  • ফাহীম মুর্শিদ = Fahim Murshid =  বুদ্ধিমান পথ প্রদর্শক
  • ফাহীম শাহরিয়া = Fahim Sahriya =  বুদ্ধিমান রাজা
  • ফখরুল ইসলাম                = Fakhrul Islam =  ইসলামের সম্মান, গৌরব
  • ফখরুল আবেদীন = Fakhrul Abedin =  এবাদত কারীদের গৌরব
  • ফরিদ আহমদ = Forid Ahmod = অতিপ্রশংসিত অনুপম
  • ফিরদাউসুল হক = Firdaousul Haq = সত্যবেহেশতের বাগান
  • ফাকীর = Fakir =   দরিদ্র, সূফী-সাধক
  • ফাকীহ = Fakih =   জ্ঞানী, ইসলামের উপর বুৎপত্তি লাভকারী
  • ফয়জুদ্দীন = Fayjuddin =  ধর্মের দান
  • ফয়জুল হক = Fayjul Haq = সত্যের অনুগ্রহ
  • ফারহাদ উল্লাহ = Farhad Ullah = আল্লাহর আশেক
  • ফয়সাল আহমদ = Faysal Ahmod = প্রশংসিত বিচারক
  • ফাহিম মুনতাসির = Fahim Muntasir = বুদ্ধিমান বিজয়ী
  • ফাহিম মাশুক = Fahim Masuk = বুদ্ধিমান প্রেমাস্পদ
  • ফাহীম শাকীল = Fahim Shakil =  বুদ্ধিমান সুপুরুষ
  • ফায়জুল কবীর = Fayjul Kabir =  অধিক সম্পদ
  • ফিরোজ ওয়াদুদ = Firoj Wadud = সমৃদ্ধশালী বন্ধু
  • ফাহিম = Fahim = বুদ্ধিমান
  • ফায়সাল = Faysal = বিচারক
  • ফুয়াদ = Fuhad = অন্দর
  • ফহেত = Fohet = বিজয়ী
  • ফায়েক = Fayek = উত্তম
  • ফরিদ = Forid = অনুপম
  • ফসীহ = Fosih = বিশুদ্ধভাষী
  • ফজল = Fojol = অনুগ্রহ
  • ফাকীদ = Fakidh = অতুলনীয়
  • ফকিহ = Fokih = জ্ঞানী
  • ফুয়াদ = Fuyad = অন্তর
  • ফিরোজ  = Firoj = ওয়াদুদ           
  • ফিরোজ মুজিদ = Firoz Mojid = সমৃদ্ধিশালী আবিষ্কারক
  • ফিরোজ আতেফ = Firoj Atef = সমৃদ্ধিশালী দয়ালু
  • ফিরোজ আহমদ = Firoz Ahmod = দ্বীনের আলো
  • ফিরোজ আহবাব = Firoz Ahbab = সমৃদ্ধিশালী বন্ধু
  •  ফাহীম = Fahim = পন্ডিত,বুদ্ধিমান
  • ফারহাতুল হাসান = Farhatul Hasan = সুন্দর আনন্দ
  • ফাতিন শাদাব = Fatin Shadab = সুন্দর সবুজ
  • ফাতিন নূর = Fatin Nur = সুন্দর আলো
  • ফাতিন নেসার = Fatin Nesar = সুন্দর উৎসর্গ
  • ফাতিন মাহতাব  = Fatin Mahtab = সুন্দর চাঁদ
  • ফাতিন জালাল = Fatin Jalal = সুন্দর মহিমা
  • ফাতিন ইশতিয়াক = Fatin Ishtiyak = সুন্দর ইচ্ছা
  • ফাতিন আনজুম = Fatin Anjum = সুন্দর তারা
  • ফারুক আহমদ = Faruk Ahmod = অতিপ্রশংসিত পার্থক্যকারী
  • ফারুক হোসাইন = Faruk Hossain = পার্থক্যকারী সুন্দর
  • ফুরকানুল হক = Furkanul Haq = সত্য-মিথ্যার পার্থক্য নির্ণায়ক
  • ফয়েজ = Fayez = সম্পদ, স্বাধীনতা
  • ফাইয়াজ = Faiyaz = দাতা, দয়ালু
  • ফজলুল হক = Fajlul Haq = প্রকৃত আশ্রয়স্থল
  • ফয়জুল হাসান = Fayjul Hasan = সুন্দর চাঁদ
  • ফাততাহ  = Fattah = বড় বিজয়ী
  • ফাতিন ওয়াহাব = Fatin Owahab = সুন্দর সবুজ
  • ফারুক আহমেদ = Faruk Ahmaad = প্রশংসিত মাধ্যম
  • ফরীদুল হাসান = Foridul Hasan = সুন্দর ভদ্র
  • ফরিদ হামিদ = Forid Hamid = অনুপম প্রশংসাকারী
  • ফরীদ আহমদ = Forid Ahmod = প্রশংসিত বাদশাহ
  • ফখরুল হাসান = Fokhrul Hasan = সুন্দর নেতা
  • ফখরুদ্দীন  = Fokhruddin = দ্বীনের ধ্রুবতারা
  • ফাহিম আহমাদ = Fahim Ahmad = বুদ্ধিমান অতিপ্রশংসনীয়
  • ফাহিম শাকিল = Fahim Shakil = বুদ্ধিমান সুপুরুষ
  • ফাহিম শাহরিয়ার = Fahim Shariar = বুদ্ধিমান রাজা
  • ফাতিন আলমাস = Fatin Almas = সুন্দর হীরা
  • ফাতিন আখইয়ার = Fatin Akhyear = সুন্দর চমৎকারমানুষ
  • ফাতিন আজবাব = Fatin Ajbab = সুন্দর পাহাড়
  • ফাতিন আবরেশাম = Fatin Abresham = সুন্দর অন্তর
  • ফাতিন নেহাল = Fatin Nehal = সুন্দর চারাগাছ
  • ফাতিন মেসবাহ = Fatin Mesbah = সুন্দর প্রদীপ
  • ফাহিম মুরশেদ = Fahim Murshed = বুদ্ধিমান প্রথপ্রদর্শক
  • ফাহিম মোসলেহ = Fahim Mosleh = বুদ্ধিমান সংস্কারক
  • ফাহিম হাবিব = Fahim Habib = বুদ্ধিমান বন্ধু
  • ফাহিম ফুয়াদ = Fahim Fuyad = বুদ্ধিমান অন্তর
  • ফাহিম ফয়সাল = Fahim Foysal = বুদ্ধিমান বিচারক
  • ফাহিম আশহাব = Fahim Ashab = বুদ্ধিমান বীর
  • ফাহিম আসাদ = Fahim Asad = বুদ্ধিমান সিংহ
  • ফাহিম আনিস = Fahim Anis = বুদ্ধিমান নেতা
  • ফাহিম আজমল = Fahim Ajmol = বুদ্ধিমান অতিসুন্দর
  • ফাহিম আবরার = Fahim Abrar = বুদ্ধিমান ন্যায়বান
  • ফাহাদ = Fahad =  সিংহ
  • ফাসীহ   = Fasih = বিশুদ্ধভাষী , বাকপটু ফাদল
  • ফাদিল   = Fadil = অনুগ্রহ ( ফযলু )
  • হামিদ বশীর  = Hamid Bashir =  প্রশংসাকারী সুসংবাদ বহনকারী
  • হামিদ বখতিয়ার  = Hamid Bokhtiar =  প্রশংসাকারী সৌভাগ্যবান
  • হামিদ আনিস = Hamid Anis =   প্রশংসাকারী বন্ধু
  • হামিদ আমের  = Hamid Amer =  প্রশংসাকারী শাসক

দুই অক্ষরের ছেলেদের ইসলামিক নাম অর্থসহ

দুই অক্ষরের ছেলেদের ইসলামিক নাম অর্থসহ জানতে চেয়েও অনেক মা-বাবা সহ গার্ডিয়ানগণ ইন্টারনেটে সার্চ দিয়ে থাকে। তবে যাইহোক, বর্তমানেও অনেক কম রিসোর্স রয়েছে, যেগুলো হতে একজন ভিজিটর রিলেল ডাটা নিতে পারে নাম সক্রান্ত। আর তাই এই পর্বে আমরা বেশ অনেকগুলো দুই অক্ষরের বিশেষ করে ছেলেদের ইসলামিক নাম অর্থসহ জানার চেষ্টা করবো। তাহলে চলুন আলোচনা দীর্ঘায়িত না করে বর্তমানে ট্রেন্ডি কিছু দুই অক্ষরের ছেলেদের কিছু ইসলামিক নাম সম্পর্কে জানা যাক অর্থসহ। সেই নামগুলো হলো-

  • হাসিন আহবাব  = Hasin Ahbab =  সুন্দর বন্ধু
  • হাসিন আবরার  = Hasin Abrar =  সুন্দর ন্যায়বান
  • হামিদ জাকের  = Hamid Jaker =  প্রশংসাকারী কৃতজ্ঞ
  • হামিদ ইয়াসির  = Hamid Yasir =  প্রশংসাকারী ধনবান
  • হামিদ তাজওয়ার  = Hamid Tajowar =  প্রশংসাকারী রাজা
  • হামিদ আহবাব  = Hamid Ahbab =  প্রশংসাকারী বন্ধু
  • হাসিন মুহিব  = Hasin Mubin =  সুন্দর প্রেমিক
  • হাসিন মাহতাব  = Hasin Mahtab =  সুন্দর চাঁদ
  • হাসিন ইশরাক  = Hasin Israk =  সুন্দর সকাল
  • হাসিন হামিদ  = Hasin Hamid =  সুন্দর প্রশংসাকার
  • হাসিন আলমাস  = Hasin Almas =  সুন্দর হীরা
  • হাসিন আনজুম  = Hasin Anjum =  সুন্দর তারা
  • হাসিন আরমান  = Hasin Arman =  সুন্দর ইচ্ছা
  • হাসিন আজহার  = Hasin Ajhar =  সুন্দর অতি স্বচ্ছ
  • হামি সোহবাত  = Hami Sohbat =  রক্ষাকারী সঙ্গ
  • হামি নাদিম  = Hami Nadim =  রক্ষাকারী সঙ্গী
  • হামি নকীব  = Hami Nakib =  রক্ষাকারী নেতা
  • হামি মোসলেহ  = Hami Moshleh =  রক্ষাকারী সংস্কারক
  • হামি মুশফিক  = Hami Musfique =  রক্ষাকারী দয়ালু
  • হামি আহবাব  = Hami Ahbab =  রক্ষাকারী বন্ধু
  • হামি আবসার  = Hami Absar =  রক্ষাকারী দৃষ্টি
  • হামি আবরার  = Hami Abrar =  রক্ষাকারী ন্যায়বান
  • হাসিন আখলাক  = Hasin Akhlak =  সুন্দর চারিত্রিক গুণাবলি
  • হাসিন শাদাব = Hasin Shdab =  সুন্দর সবুজ
  • হাসিন শাহাদ  = Hasin Sahad =  সুন্দর মধু
  • হাসিন মেসবাহ  = Hasin Mesbah =  সুন্দর প্রদীপ
  • হাসিন আখইয়ার  = Hasin Akhyear =  সুন্দর চমৎকার মানুষ
  • হাসিন আখজার  = Hasin Akhjar =  সুন্দুর সবুজ বর্ণ
  • হাসিন আজমল  = Hasin Ajmol =  সুন্দর নিখুঁত
  • হাসিন আহমার  = Hasin Ahmar =  সুন্দর লাল বর্ণ
  • হাসিন আহমদ  = Hasin Ahmod =  সুন্দর অতি প্রশংসনীয়
  • হাবিব = Habib =  প্রিয়
  • হাতিম  = Hatim – অর্থ – অনিবার্য,
  • হাছিল  = Hasil  = অর্জিত,
  • হাজ্জাজ  =  Hajjaj  = প্রমাণকারী
  • হাতেম  = = বিচারক
  • হাফিজ  = Hafiz  = রক্ষক
  • হাইবত  = Haibat  = ভয়-ভীতি,
  • হাকাম  = Hakam  = বিচারক
  • হামেদ  = প্রশংসনীয়
  • হায়াত  = জীবন, প্রাণ
  • হায়দার  = Haider  = সিংহ
  • হামিদুর  = Hamidur  = দয়াময়
  • হামযাহ্  = Hamza  = শক্তিমান
  • হামীম  = Hamim  = অন্তরঙ্গ বন্ধু
  • হাকিম  = Hakim  = আদেশকারী,
  • হাকীম  =  Hakim  = বিচক্ষণ,
  • হাদিব  =  Hadib  = মায়াময়,
  • হাদী  =  Hadi  = উটচালক,
  • হারিস  = Haris  = প্রহরী,
  • হারিস  = Harith  = কৃষক
  • হাযেম  = Hazem  = দৃঢ়সংকল্লপ
  • হাযির  = সতর্ক, সচেতন
  • হাযিক  = অভিজ্ঞ
  • হামীস  = Hamis  = উতসাহী,
  • হামুল  = Hamul = ধৈর্যশীল
  • হায়দার  = Haydar = সিংহ, শক্তিশালী
  • হামিদুর   = Hamidur = দয়াময়
  • হামযাহ্  = Hamjah = শক্তিমান
  • হামীম  = Hamim = অন্তরঙ্গ বন্ধু
  • হামীস  = Hamis = উতসাহী, সাহসী
  • হামুল  = Hamul = ধৈর্যশীল, ভদ্র
  • হামীদুল্লাহ =Hamidullah = আল্লাহর প্রশংসিত বান্দা

বিভিন্ন বর্ণ দিয়ে ছেলেদের ইসলামিক নাম

ইসলামিক নামের এই পর্বে আমরা বিভিন্ন বর্ণ দিয়ে ছেলেদের ইসলামিক নাম সম্পর্কে জানার চেষ্টা করবো। আশা করি একজন পাঠক যে তাঁর সদ্য জন্ম নেওয়া সন্তানের জন্য এমন একটি বৈচিত্রপূর্ণ নাম রাখতে চায়, যা হরেক রকমের বর্ণ দ্ধারা তৈরি। তবে আমরা সবাই জানি যে, নামের মধ্যেই থাকে বৈচিত্র্য এবং সেই বৈচিত্র্যকে ধরে রাখতে আমরা সবাই চাই, আমাদের সন্তানের নামগুলো হোক ইউনিক এবং ইসলামিক। আর এই পর্বের প্রায় সবগুলো নাম হলো ইসলামিক নাম। আশা করি যে সমস্ত পিতা মাতা তাদের সন্তানের জন্য একটি ভালো ও অর্থবহ ইসলামিক নাম রাখতে চায়, তাঁরা আজকের আর্টিকেল থেকে একটি সুন্দর ও ইতিবাচক অর্থবহ ইসলামিক নাম চয়েজ করতে পারবে এবং পরোক্ষণে সেটা তাঁর সন্তানের নাম রাখার ক্ষেত্রে ব্যবহার করতে পারবে। তাহলে চলুন এবার আমরা জেনে নিই বিভিন্ন বর্ণ দিয়ে ছেলেদের ইসলামিক কিছু নাম। নামগুলো হলো-

  • সাফারাত = Shafarat = অতিভাগ্যবান।
  • সুফিয়ান = Sofiyan = দূতাবাস।
  •  সুয়াদি = Suyadi = সুখী।
  • সূ আদ = Suahd = প্রভাব।
  • সুরুব = Shorub = দানশীল।
  • সাখী = Shakhi = প্রদীপ বা বাতি।
  • সদূক = Saduk = বন্ধু ।
  • সদর = Sador = সত্যবাদিতা।
  • সকদার =Sokdar = ছো বা ক্ষুদ্র।
  • সমসাম = Somsom = খাঁটি।
  • সুহাইব =Suhaib = আধ্যাত্মিক সাধনা।
  • সুফী = Sufi = প্রভাব।
  • সগীর = Sagir = নবীর এক সাহাবীর নাম।
  • সওলাব = Sawlab = যিনি মুখাপেক্ষী নন।
  • সফওয়াত = Safwat = খাঁটি গুণাবলী।
  • সিদ্দীক = Siddik = নবীর সাহাবীর নাম।
  • সালাহ = Salah = বীর পুরুষ।
  • সালার = Shalar = সততা।
  • সিবাগাতুল্লাহ = shibagatullah = নেতা।
  • সাইফুল ইসলাম = Saiful Islam = গুণা।
  • সাখাওয়াত হোসাইন = Shakhauat Hossain = ইসলামের তরবারী।
  • সাউদুল হক = Sawdul Haque = পবিত্র আল্লাহ।
  •  সফি-উদ্দিন = Safi-Uddin = সত্যবাদী।
  • সাদেক হোসাইন = Sadek Hossain = পুণ্যবাদী।
  • সালেহ আহম্মেদ = Saleh Ahammad = দ্বীনের গুণ।
  • সাবিহুদ্দিন = Sabichuddin = দীনের কেন্দ্রস্থল।
  • সদরুদ্দিন = Sadoruddin = সত্যবাদী।
  • সিদ্দিকুর রহিম = Siddikur Rahim = প্রশংসিত।
  • সিদ্দিকুর রহমান = Siddikur Rahman = সত্যবাদী।
  • সারওয়ার হুসাইন = Sarwar Hossain = সৌভাগ্যবান সত্য।
  • সালিমুল্লাহ = Salimullah = সর্দার।
  • সাইফুর রহমান = Saifur Rahman = আল্লাহর নিরাপত্তা।
  • সুহাইল আহমদ = Suhail Ahmmad = করুণাময়ের তরবারি।
  • সালিক = Salik = উদার।
  • সাতি = Shati = উচ্চ।
  • সামে = Shame = নিরাপদ।
  • সাদাকাত = Shadakat = রং।
  • সদর = Shador = অত্যন্ত সত্যবাদিতা।
  • সামীম = = চরিত্রবান।
  • সাব্বীর = Sabbir = প্রশংসিত সাহায্যকারী।
  • সালিম শাদমান = Shalim Shadman = স্বাস্থ্যবান।
  • সাইম = Sayeem = রোযাদার।
  • সামেত = Samet = পুণ্যবান।
  • সুহায়ন = Suhaon = আলো।
  • সালিম = Salim = শান্তি।
  • সায়াদাত = Shayadat = সুগন্ধি বৃক্ষ।
  • সালিক = Salik = উদার।
  • সাবীন = Shabin = প্রাধান্য।
  • সাবকাত = Sabakat = অগ্রগামী।
  • সাকী = Shaki = নিরব।
  • সাবিহ =Shabihh = পৌত্র।
  • সিবত = Sibot = বংশ ধারণ করা।
  • সদুক = Shduk = বন্ধু।
  • সাবীহ = Shabihh = সকাল।
  • সুল্লাম = Sullam = সুস্থ্য।
  • সালামাত = Salamat = আধিতপত্য।
  • সাদ = shad = সৌভাগ্য।
  • সামে = shame = নিরাপদ।
  • সামী = shami = শ্রবণকারী।
  • সুহায়ল = Shuhal = মামৃদদ।
  • সাদীদ = Shadid = সরল।
  • মুকাবরাম = Mukabram = অতি সম্মানিতা।
  • মুস্তফা ওয়াদুদ = Mustafa Owadud = পূর্ব থেকেই মনোনিত বন্ধু।
  • মুস্তফা ওয়াসিফ = Mustafa owasif = গুণ বর্ণনাকারী।
  • মুশতাক আবসার = Mustaque = আগ্রহী দৃষ্টি।
  • সামীর = Samir = উপকারী বা ভালো সঙ্গী।
  • সাহিল = Shahil = উপকূল অথবা নদীর তীর।
  • সারিম = Sharim = সাহসী বা তীক্ষ্ম।
  • সালমান = Salman = নিরাপদ বা আধ্যত্মিক নাম।
  • সফিয়ান = Sofiyan = দ্রুত চলমান অথবা হালকা।
  • সাদ = Sad = অভিনন্দন বা শুভকামনা।
  • সায়ান = Sayan = মূল্যবান বা যোগ্য।
  • সিরাজ = Shiraj = প্রদীপ বা বাতি।
  • সেলিম = Selim = নিরাপদ বা অক্ষত।
  • সসীম = Shsim = উচ্চমর্যদা সম্পন্ন।
  • সাবাত = Shabat = নেতা।

ছেলে বাবুর ইসলামিক নাম

ছেলে বাবুর ইসলামিক নাম অথবা ছেলে শিশুর ইসলামিক নাম সম্পর্কে বেশির ভাগ সময়ই আমরা জানতে চেয়ে গুগল করে থাকি। ছেলে বাবুর জন্য একটি সুন্দর ইসলামিক নাম Islamic name of boys রাখা তাঁর পিতা-মাতার উপর কর্তব্য। এবং যদি কোনো মা বাবা সেটি রাখতে ব্যর্থ হয় এবং একটি নেতিবাচক নাম ও ইসলাম বহির্ভূত নাম রাখে, তাহলে সে পিতা মাতা তাঁর সন্তানের পূর্ণাঙ্গ দায়িত্ব পালন করে নি। অর্থাৎ ছেলে বাবুর জন্য একটি ইসলামিক নাম রাখা এবং চয়েজ করা একজন গার্ডিয়ানের গুরুত্বপূ্র্ণ দায়িত্ব। তারই প্রেক্ষিতে আজকে এখন আমরা বেশ অনেকগুলো ছেলে বাবুর ইসলামিক নাম সম্পর্কে জানার চেষ্টা করবো। যেগুলো একজন পিতা মাতা কিংবা যেকোনো গার্ডিয়ান, তারঁ ছেলে সন্তানের জন্য রাখতে পারে। তাহলে সে নামগুলো কি? ছেলে বাবুর ইসলামিক নামগুলো হলো-

  • মানসুরুল হক = Mansorul Haque = সত্যের জন্য সাহায্য প্রাপ্ত।
  • মুফীদুল ইসলাম = Mofidul Islam = ইসলামের জন্য কল্যাণকারী।
  • মাকসুদুল ইসলাম = Maksudul Islam = ইসলামের উদ্দেশ্য।
  • মনীরুল ইসলাম = Monirul Islam = ইসলামের জন্য আলোকোজ্জ্বল ।
  • সাইফ = Sayif = তরবারি/তরবারী।
  • সফী = Shafi = ঘনিষ্ঠ বন্ধু বা দোস্ত।
  • সরফরাজ = Shorforaz = অভিজাত অথবা সম্মানিত।
  • সবুজ = Sobuj = শ্যামল।
  • সরোয়ার = Sarwar = প্রধান বা নেতা।
  • সাইয়েদ = Sayid = নেতা অথবা কর্তা।
  • মুস্তাফা মুজিদ = Mustafa Mujid = গ্রীহিত আবিষ্কারক।
  • মুস্তাফা রাশিদ = Mustafa Rashid = পথ প্রদর্শক।
  • মুজতাবা রাফিদ = Mojtaba Rafid = সিলেক্টেড প্রতিনিধি।
  • মুবতাসিম ফুয়াদ = Mubatasim Fuyad = হাসিখুশিময় হৃদয়।
  • মুস্তাফা গালিব = Mustafa Galib = কোনো কিছুতে স্বীকৃত বিজয়ী।
  • মুনিফ মুজীদ = Munif Mujid = সেরা আবিষ্কারক।
  • মুনয়িম = Munium = দানকারী।
  • মুন্তাসির = Muntasir = বিজয় অর্জনকারী আল্লাহর নাম।
  • মুকাবরাম = Mukabram = অতি সম্মানিতা।
  • মোহসেন = Mohsen = উপকারি।
  • মুসলেহ = Musleh = সংস্কারক।
  • মুসাররেফ = Musarref = রূপান্তরকারী।
  • সুজন = Shujon = জ্ঞানী।
  • সুবহান = Subhan = প্রশংসা বা গুণগান।
  • সুমন = Sumon = উত্তম মানের অধিকারী।
  • সুলতান = Sultan = রাজা।
  • সৈয়দ = Saiwod = নেতা।
  • সোহাগ = Shohag = আদর বা মায়া করা।
  • সোহেল = Shohel = শুকতারা।
  • সৌরভ = Sourov = সুবাস বা ভালো গন্ধ।
  • সুল্লাম = Sullam = সুস্থ্য।
  • সাম্মাক = Sammak = ধাপ বা মই।
  • সুলায়মান = Sulayman = অভিবাদন।
  • সামা আন = Shamaan = রাতের গল্পকারী।
  • সালামাত = Salamat = সরলতা।
  • সিকান্দার = Shikandar = দ্রুতগামী।
  • সাউদ = Sawod = শুভ।
  • সাদূন = Sadun = সৌভাগ্যবান।
  • সায়ীদ = Sayid = ভাগ্যবান।

ইসলামিক নাম ছেলেদের

ইসলামিক নাম ছেলেদের বা ছেলেদের ইসলামিক নাম সেই একই অর্থ বহন করে। তাই আজকের আর্টিকেলে ইতিপূর্বে আমরা বেশ অনেকগুলো প্রায় ৫০০০+ ইসলামিক নাম সম্পর্কে জেনেছি এবং নিম্নে আরো অনেকগুলো ইসলামিক নাম ছেলেদের নিয়ে আলোচনা করবো। আশা করি একজন পাঠক বেশ চমৎকারভাবে উক্ত আর্টিকেলটি দ্ধারা উপকৃত হতে পারবে। নিম্নে ছেলেদের ইসলামিক নাম গুলো ধারাবাহিকভাবে দেওয়া হয়েছে এবং ছেলেদের ইসলামিক নামগুলো একজন গার্ডিয়ান কোনো রকম দ্ধিধাগ্রস্থতা ছাড়াই তাঁর ছেলে বা পুরুষ বাবুর জন্য রাখতে পারে। আশা করি সম্পূর্ণ বিষয়টি পাঠকগণ বোঝতে সক্ষম হয়েছেন। যদি এখনো না বোঝে থাকেন, তাহলে পুনরায় নামগুলো আরেকবার রিভাইজ দিন। এতে করে নাম সিলেক্ট করতে তুলনামূলক আপনার সুবিধা হবে। যাইহোক, চলুন, ইসলামিক নাম ছেলেদের জেনে নিই।

  • মাযেহ = Majeh = অতি কৌতুকরসী মানুষ।
  • মোশাররফ = Mosarorof = সম্মানিত ।
  • মাজেদ = Majed = অভিজ্ঞ।
  • মুস্তফা জামাল = Mustafa Jamal = মনোনিত।
  • মুস্তফা বশীর = Mustafa Bashir = সুসংবাদ বহনকারী।
  • মনসুর মুইজ = Monsur Muis = বিজয়ী বন্ধু।
  • মোসাদ্দেক হাবিব = Mosaddek Habib = প্রত্যয়দানকারী দোস্ত বা বন্ধু।
  • মোসাদ্দেক হালিম = Mosaddek Halim = প্রত্যয়দানকারী দোস্ত।
  • মুহতাসিম ফুয়াদ = Mutasim Fuhad = মহান অন্তর।
  • মুনাওয়ার মুজীদ = Munaour Mujid = একজন বিখ্যাত লেখক।
  • মুজতবা রাফিদ = Mujtaba Rafid = মনোনিত প্রতিনিধি।
  • মুস্তফা আবরার = Mustafa Abrar = মনোনিত ন্যায়বান।
  • মুজতবা আহবাব = Mustaba Ahbab = মনোনীত দোস্ত বা বন্ধু।
  • মুয়ী মুজিদ = Moui Mojid = একজন সম্মানিত লেখক।
  • মুয়ীজ = Mouij = অতি সম্মানিত।
  • মুজাহিদ আহনাফ = Mujahid Ahnaf = অতি সংযমশীল ধর্মবিশ্বাসী।
  • মুবতাসিম ফুয়াদ = Mubtasim Fuyad = অতি হাস্যময় অন্তর।
  • মুজতবা রাফিদ = Mustaba Rafid = মনোনিত প্রতিনিধি।
  • মোসাদ্দেক হাবিব = Mosaddek Habib = একজন প্রত্যয়নকারী বন্ধু।
  • মোহসেন আসাদ = Mohsen Ashad = একটি উপকারি সিংহ ।
  • মুস্তফা আশহাব = Mustafa Ahshab = মনোনিত ভরি।
  • মুস্তফা মাহতাব = Mustafa Mahtab = মনোনিত চাঁদ।
  • মুস্তফা আনজুম = Mustafa Anjum = মনোনিত তারা।
  • মুস্তফা আখতার = Mustafa Akhtar = মনোনিত একজন বক্তা।
  • মোহসেন = Mohsen = উপকারি।
  • মাকসুদ = Maksuk = ভালো উদ্দেশ্য।
  • মুয়ীজ = Muise = অতি সম্মানিত।
  • মাজেদ = Majed = সম্মানিত।
  • মাবাহুল = Mabahul = সুরমা চোখ।
  • মাসুম = Masum = খুব নিষ্পাপ।
  • মুনেম = Munem = অতি দয়ালু।
  • মুবারক = Mubarok = শুভ কোনো কিছু।
  • মান্নান = Mannan = অনুগ্রহকারী
  • মায়মুন = Maymun = অতি সৌভাগ্যবান।
  • মামদূহ = Mamduh = অতি প্রশংসিত।
  • শামীম উসমান = Shamim Usman = কালের সূর্য।
  • শামসুজ্জামান = Samsujjaman = সবার প্রশংসিত সুন্দর।
  • শিব্বির আহমদ = Shibbir Ahmod = শ্রেষ্ঠ রাজা।
  • শাহরিয়ার কবির = Sahriar Kabir = ভোরের সূর্য।

উপরোক্ত সমস্ত নামগুলো বিশেষ করে ছেলেদের ইসলামিক নাম। আশা করি আমাদের যে সমস্ত লোকজন বা গার্ডিয়ান বা আত্মীয়-স্বজন সদ্য জন্ম নেওয়া বাবু বা সন্তানের জন্য একটি সুন্দর ইসলামিক নাম রাখতে চান, সে সকল পাঠকগণ আজকের আর্টিকেল হতে যেকোনো একটি সুন্দর নাম চয়েজ করতে সক্ষম হবেন।

মূলত একটি ইসলামিক নাম চয়েজ করতে এবং নাম রাখার জন্য ফাইনালাইজেশন করতে যে কয়েকটি নিয়ম ও বিষয় মাথায় রাখতে হয়, সেক’টি জিনিসের প্রতি নজর রেখেই আমাদের এই আর্টিকেলটি। অর্থাৎ ছেলেদের ইসলামিক নাম এর তালিকায় সবগুলো নামই হলো ইসলামিক নাম। যদি সত্যিকার অর্থেই আপনি আপনার ছেলে সন্তানের জন্য একটি সুন্দর ও অর্থবহ ইসলামিক নাম রাখতে চান এবং মুসলিম নাম খুঁজে থাকেন, তাহলে আশা করি এখান হতে যেকোনো একটি নাম পিক করতে সক্ষম হবেন।

যাইহোক, এতোক্ষণ আমরা জেনেছি ছেলেদের ইসলামিক নাম সম্পর্কে। এবার আমরা জানবো মেয়েদের ইসলামিক নাম সম্পর্কে। যা আজকের আর্টিকেলটিকে পরিপূর্ণতা দান করবে। তাহলে চলুন, ছেলেদের ইসলামিক নাম জানার পাশাপাশি মেয়েদের ইসলামিক নাম জানা যাক।

মেয়েদের ইসলামিক নাম

মেয়েদের ইসলামিক নাম
মেয়েদের ইসলামিক নাম

মেয়েদের ইসলামিক নাম নিয়েও রয়েছে নানা রকম প্রশ্ন ও জানতে চাওয়ার আকাঙ্খা। তবে আমরা আজকের এই আর্টিকেলের মাধ্যমেই জানতে চেষ্টা করবো মেয়েদের ইসলামিক নাম অর্থসহ। যখন একটি পরিবারে মেয়ে সন্তান বা কণ্যা জন্ম হয়, তখন থেকেই পিতা মাতার উপর অতিরিক্ত যে ট্যানশনটি আসে, সেটা হলো সদ্য জন্ম নেওয়া মেয়ে বাবুর জন্য সুন্দর একটি ইসলামিক নাম রাখা। তার পূর্বে সুন্দর একটি ইসলামিক নাম চয়েজ করা। চয়েজ করার পূর্বে অবশ্যই জানতে হবে এবং রিসার্চ করতে হবে নামটি ইসলামিক নাম কি-না। এর পূর্বে আপনাকে মনস্থির করতে হবে যে, কি সম্পর্কিত নাম রাখবেন। এরকম কয়েকটি বিষয় মাথায় রেখে আপনি আপনার মেয়ে শিশুর জন্য সুন্দর অর্থবহ ইসলামিক নাম চয়েজ করতে সক্ষম হবেন।  এখন কিভাবে নাম চয়েজ করবেন? এই নিয়ে উপরের ভূমিকায় বিস্তর আলোচনা করা হয়েছে এবং নাম চয়েজের প্রায় সম্পূর্ণ দিক নির্দেশনা দেওয়া আছে।

যাইহোক, এখন প্রশ্ন হলো মেয়েদের ইসলামিক নামের তালিকা কোথায় পাবো? কিভাবে পাবো? উক্ত প্রশ্নে উত্তরগুলোর প্রেক্ষিতেই আজকের আর্টিকেলটি। নিম্নে বেশ অনেকগুলো মেয়েদের ইসলামিক নাম তুলে ধরা হয়েছে। যা দ্ধারা একজন গার্ডিয়ান তাঁর মেয়ের জন্য সুন্দর ও বৈচিত্র্যময় নাম চয়েজ করতে সক্ষম হবে। আলোচনা বিলম্ব না করে চলুন জেনে নেওয়া যাক মেয়েদের ইসলামিক নাম গুলো। মেয়েদের ইসলামিক নামগুলো হলো-

  • জোহরা‌  ‌=‌ ‌Johra = সুন্দর‌ ‌
  • জ্যাসমিন‌ ‌= Jesmin = একটি‌ ‌জুঁই‌ ‌ফুলের‌ ‌সুবাস‌ ‌
  • জামিলা‌ ‌= Jamila = সুন্দরী।‌ ‌
  • জায়রা‌ ‌= Jayra = একটি‌ ‌গোলাপের‌ ‌চমৎকার‌ ‌প্রকৃতি‌ ‌
  • জারা‌ ‌= Jara = একটি‌ ‌ফুলের‌ ‌মতো‌ ‌প্রকৃতির‌ ‌
  • জালসান‌ ‌= Jalsan = বাগান।‌ ‌
  • জালিলা‌ ‌= Jalila = একটি‌ ‌মেয়ে‌ ‌যে‌ ‌তার‌ ‌জীবনে‌ ‌অসাধারণ‌ ‌কাজ‌ ‌প্রকাশ‌ ‌করে‌ ‌
  • জাহান‌ ‌= Jahan = পৃথিবী।‌ ‌
  • জামীমা = Zameema =একধরণের লতার নাম
  • জিন্নাত= Zinnat = পাগলামী
  • জুনাইনাহ = Zunainah =ক্ষুদ্র বাগান
  • জাহানারা‌ ‌= Jahanara = একটি‌ ‌শক্তিশালী‌ ‌নারী‌ ‌যে‌ ‌বিশ্বের‌ ‌শাসন‌ ‌করার‌ ‌জন্য‌ ‌জন্মেছে‌ ‌
  • জাহিরা‌ ‌= Zahira = যে‌ ‌রাতে‌ ‌উজ্জ্বলভাবে‌ ‌জ্বলজ্বল‌ ‌করে‌ ‌
  • জাফেরা = Zafira =সাহায্যকারিণী
  • জামেরা = Zamera =কৃশকায়া / পাতলা
  • জাইফা = Zayfa = অতিথিনী
  • জাহেকা= Zeheka = হাসিন
  • যারীয = Zarim = অগ্নিদগ্ধ / প্রেমিকা
  • জাহিরা = Zahera = প্রকাশিত / প্রভাবশালী
  • জাবিয়া = Zabia = হরিণ
  • জরীফা = Zarifa = বুদ্ধিমতী / চালাক
  • জলীলা =Zalila = আশ্রয়স্থান / বৃক্ষে ঢাকা উদ্যান
  • জায়ীনা = Zayena= সাহায্যকারী
  • জফিরা = Zafira = উটের পিঠের ওপর
  • জুহরাহ = Zuhrah = সম্ভ্রান্ত স্ত্রী লোক
  • জালীসা = Jaleesa = সাহায্যকারী / স্বজন
  • জুনুন = Junun = বান্ধবী / সহকর্মী
  • জিয়াহ‌ ‌= Jiyah = অন্ধকার‌ ‌সময়ে‌ ‌যে‌ ‌আলো‌ ‌ছড়ায়‌ ‌
  • জুঁই‌ ‌=‌ ‌Jui = একটি‌ ‌ফুলের‌ ‌নাম।‌ ‌
  • জুলফা‌  ‌=‌ ‌Julfa = বাগান‌ ‌
  • জেবা‌  ‌=‌ ‌ Jeba = যথার্থ।‌ ‌
  • জাফনাহ =Jafnah = দানশীলা
  • জুহানাত = Juhanat =যুবতী মেয়ে
  • জাহিয়া = Zahia =দৃশ্যমান
  • জেসমিন‌ ‌=‌ ‌Jesmin = ফুলের‌ ‌নাম।‌ ‌
  • জোয়া‌ ‌= Joya = সত্যিকরে‌ ‌জীবিত‌ ‌একটি‌ ‌মেয়ের‌ ‌জন্য‌ ‌একটি‌ ‌জনপ্রিয়‌ ‌আধুনিক‌ ‌নাম‌ ‌
  • জাওহারা= Zawara = হীরা / মূল্যবান পাথর
  • জুওয়াইরিয়া = Zuwayria =ছোটমেয়ে
  • জাদওয়াহ  = Jadoyah  = উপহার
  • জুলফা  = Julfa  = বাগান
  • জালসান  = Jalsan  = বাগান
  • জুই / জুঁই  = Jui  = ফুলের নাম
  • জুথী / জুথীকা  = Juthi / Juthika  = নবমালিকা / জুঁই
  • জুহি  = Juhi  = ফুল বিশেষ
  • জিমি  = Jimi  = উদার
  • জারিন  = Jarin  = স্বর্ণ / স্বর্ণের তৈরি / সোনালী / সুবর্ণ
  • জারিন তাসনিম  = Jarin Tasnim  = সুবর্ণ ঝর্ণা
  • জেরিন  = Jerin  = সোনালী / সুবর্ণ / স্বর্ণ / স্বর্ণের তৈরি
  • জোহা  = Joha  = প্রতীক্ষা করা / প্রত্যাশা / অনুসন্ধান করা
  • জুলি  = Juli  = জলনালী / সরু নালা
  • জাকিয়া  = Jakia  = পবিত্র / নিষ্পাপ / নিরপরাধ / নির্দোষ
  • জাকিয়া সুলতানা  = Jakia Sultana  = পবিত্র রাণী / নিরপরাধ শাসক
  • জারা  = Jara  = রাজকুমারী / গোলাম / ছোট্ট প্রজাপতি
  • জাইয়ানা  = Jaiyna  = শক্তি
  • জামিয়া  = Jamia  = সুন্দর
  • জামানা  = Jamana  = মুক্তা
  • জানান  = Janan  = হৃদয় / আত্মা
  • জুনাইনাহ  = Junainah  = বেহেশতের বাগান
  • জুয়াইরিয়া  = Juyairia  = ছোট্ট বালিকা / যুবা মহিলা / এক ধরনের গোলাপ ফুল
  • জুওয়াইরিয়াহ   =  Juoyairiah   =  মহানবি সা. এর একজন স্ত্রী / ছোট্ট বালিকা
  • জাযিবা   =  Jazeba   =  আকর্ষণীয়
  • জাবীন / জেবিন   =  Jabin   =  কপাল / ললাট
  • জাসীমা   =  Jasima   =  মোটা / বিরাটকায়
  • জালওয়াত   =  Jalwat   =  ঘোমটা উন্মোচন / প্রত্যক্ষ করা
  • জালীলা   =  Jalila   =  মহতী
  • জামীলা / জামিলাহ   =  Jamila   =  সুন্দরী
  • জান্নাত   =  Jannat   =  বেহেশত / স্বর্গ

ইসলামিক নাম মেয়েদের অর্থসহ

অন্য সার্চ টার্মগুলোর ন্যায় ইসলামিক নাম মেয়েদের অর্থসহ সার্চ টার্ম কিংবা কিওয়ার্ডটিও মানুষজন ব্যবহার করে থাকে মেয়েদের ইসলামিক নাম খুঁজে পেতে। তবে যাইহোক, সে যাই ব্যবহার করুক, নাম সিলেক্টের জন্য এবং যথার্থ একটি নাম চয়েজ করতে পারলেই হয়। যেমনটার সুযোগ তৈরি করে দেওয়ার জন্য ধারাবাহিকভাবে আর্টিকেলে অনেকগুলো মেয়েদের নাম তুলে ধরেছি। যাইহোক, নিম্নে আরো অনেকগুলো মেয়েদের নামের তালিকা ও নাম রয়েছে, চলুন সেগুলো পড়া যাক।

  • তবিয়া  = Tobiya = প্রকৃতি
  • তরিকা  = Torika = রিতি নীতি
  • তাহামিনা = Tahamina = মূল্যবান
  • তাহমিনা  = Tahmina = বিরত থাকা
  • তাসকীনা  =Taskina = সান্ত্বনা
  • তাযকিয়া  = Tajkia = পবিত্রতা
  • তাসসীনা  = Tassina = উত্তম
  • তাসনিয়া  = Tasnia = প্রশংসিত
  • তুরফা  = Turfa = বিরল বস্তু
  • তহুরা  = Tohura = পবিত্রা
  • তরিকা  = Torika = রিতিনীতি
  • তানজীম  = Tanjim = সুবিন্যস্ত
  • তাহিরা  = Tahira = পবিত্র
  • তবিয়া  = Tobia = প্রকৃতি
  • তাওবা  = Tawba = অনুতাপ
  • তামজীদা  = Tamjida =  মহিমা কৃর্তন
  • তাহযিব  = Tahjib = সভ্যতা
  • তাকিয়া  = Takia = চরিত্রবান
  • তাসমীম  = Tasmim = দৃঢ়তা
  • তাশবীহ  = Tashbih = উপমা
  • তাহিয়া = Tahia = অভিবাদন
  • তাহমিনা  = Tahmina = মূল্যবান
  • তামান্না  = Tamanna = ইচ্ছা-আখাংকা
  • তানজিম  = Tanjim = সুবিনাসত
  • তাসলিমা  = Taslima = সর্ম্পণ
  • তাসনীম / তাসনিম  = Tasnim = বেহেশতের ঝর্ণা
  • তাসফিয়াহ  = Tasfiyah = বিশুদ্ধকারিনী
  • তাসফিয়া  = Tasfia = পবিত্রতা
  • তাসকীনা  = Taskina =  সান্ত্বনা
  • তাবাসসুম   = Tabassum = মুচকি হাসি
  • তাসলিমা   = Taslima = সম্পূর্ণ
  • তাসমিয়া  = Tasmia = নামকরণ
  • তুবা  = Tuba =   খাঁটি
  • তাসনিম  = Tasnim = ঝর্ণা
  • তাইয়বা  = Taiba = আনন্দদায়ক, ভাল
  • তাবাসসুম  = Tabassum = হাসি, সুখ, একটি ফুল
  • তুব্বা  = Tubba = ধন্যতা, সদাচরণ, পরমানন্দ, স্বর্গের একটি গাছ
  • তানজিলা  = Tanjila = বেটিড
  • তামান্না = Tamanna = আকাঙ্ক্ষা, শুভেচ্ছা
  • তেহরিম  = Tehrim = শ্রদ্ধা, পবিত্রতা
  • তাহিরা  = Tahira = খাঁটি, পবিত্র সম্প্রীতি, ঘনিষ্ঠতা, পারস্পরিক স্নেহ
  • তাইকুল  = Taikul = বুদ্ধিমান চিন্তাভাবনা
  • তায়েস = Tayes = সূচনা, ভিত্তি
  • তাবা  = Taba = চাস্ট
  • তাবাহহুজ  = Tabahuj = খুশী হোন, প্রফুল্ল
  • তাবাহাহুর  = Tabahahur = নদীর মতোই গভীর জ্ঞানবান, গভীর
  • তবলাহ  = Tblah = তিনি হাদীসের বর্ণনাকারী ছিলেন
  • তাবান  = Taban = সুদীর্ঘ, চকচকে
  • তাবানি  = Tabani = হালকা,
  • তাবিদা  = Tabida = কমপ্লেক্স, জিগজ্যাগ, কার্লিং
  • তাবেইন  = Tabein = অনুসারীরা
  • তাসনীম  = Tasnim = বেহেশতের ঝর্ণা
  • তাখমীমা  = Takhmija = অনুমান
  • তাবিয়া  = Tabia = অনুগত
  • তোহফা   = Tohfa = উপহর
  • তাসনিয়া  = Tasniya =  প্রশংসা
  • তাসনিম  = Tasnim = বেহশতী ঝর্ণা
  • তূবা  = Tuba = সুসংবাদ
  • তাহিয়া  = Tahia = অভিবাদন।
  • তাবিথা  = Tabitha = একটি গজল
  • তাবনা  = Tabna = বুদ্ধি এবং বোধগম্য
  • তাবশ  = Tabos = উষ্ণ, হালকা
  • তাদেব  = Tadeb = সাহিত্য শেখায়
  • তাডিয়া  = Tadia = প্রদান করতে
  • তাফিয়া  = Tafia = পালক
  • তাফিদা  = Tafida = প্যারাডাইস মিশর নাম
  • তাগিয়া  = Tagia = উচ্চ পাইলস
  • তাগরিদ  = Tagrid = পাখি হিসাবে গাওয়া
  • তাহানী  = Tahani = অভিনন্দন
  • তাহিরা  = Tahira = সজ্জা থেকে
  • তাহেরিহ   = Taherih = পাকি ক্লিয়ারিং
  • তাহেরোরতহিরা = taherothira = খাঁটি, পবিত্র
  • তাহিয়া  = Tahiya = শুভেচ্ছা, সালাম, উল্লাস
  • তাহিয়াহ  = Tahiyah = শুভেচ্ছা, উল্লাস
  • তামাজুর  = Tamajur = উজ্জ্বল, শুভ্রতা।
  • তামিমাহ  = Tamimah = একজন কবিগুরুর নাম
  • তাসফিয়া  =Tafia = পবিত্রতা
  • তানিয়া  = Tania = প্রিন্সেস, পরী, অ্যাঙ্গেল, রয়্যালটি
  • তানভীর  = Tanvir = আলোর রশ্মি
  • তাবীর  = Tavir = ভাল কাজের ফলাফল
  • তাহরীম  = Tahrim = সম্মান, পবিত্রতা, নিষেধ, প্রতিরোধ, পবিত্র
  • তাবেরী  = Taberi = ভাল কাজের ফলাফল
  • তাবিয়া  = Tabia = আনুগত্যকারী
  • তুবা  = Tuba = সুসংবাদ
  • তাওবা = Tawba = অনুতাপ
  • তাসমিয়া  = Tasmia =  নামকরণ
  • তাকি  = Takhi = খোদাভীরু
  • তানভীর  = Tanvir = আলোর আলোকরশ্মি
  • তানজিলা  = Tanjila = বেটিয়েড
  • তাওসা  = Tawsha = পেহেন
  • তাকাদুস  = Takaddus = সত্য।

ইসলামিক নাম মেয়েদের

ইসলামিক নাম মেয়েদের বা মেয়েদের ইসলামিক নাম প্রায় একই অর্থ বহন করে থাকে। এখন কারা এই সব লিখে গুগলে সার্চ করে? অবশ্যই একজন গার্ডিয়ান, যার সদ্য একটি মেয়ে সন্তান বা শিশু জন্ম নিয়েছে। এমতোবস্থায় সে চায় একটি সুন্দর ইসলামিক নাম রাখতে। আর এই কারণেই এখন সে গুগলে সার্চ দেয় মেয়েদের ইসলামিক নাম লিখে। যাইহোক, মেয়েদের জন্য অসংখ্য নাম রয়েছে এই পৃথিবীতে। কিন্তু এখান থেকে আপনাকে ইতিবাচক অর্থবহ সম্পূর্ণ একটি সুন্দর নাম চয়েজ করতে হবে। যা প্রায় অনেকের নিকট অসম্ভব। আর এই কারণেই আমরা এখানে বাঁচাইকৃত বেশ অনেকগুলো সুন্দর সুন্দর ও আকর্ষণীয় মেয়েদের কিছু ইসলামিক নাম তুলে ধরেছি। চলুন সেগুলো সম্পর্কে জেনে নেই।

  • শামশাদ = Shamshad  = নাকের অলংকার
  • শুহরাহ মুবাশ্বশিরা  = Shuhrah Mubash-shira  = এক প্রকার বৃক্ষ / বিশ্বখ্যাত সুসংবাদ
  • শারীফা খাতুন  = Sharifa khatun  = ভদ্রমহিলা / সম্ভ্রান্ত রমণী
  • শাফাকাত তাইয়্যিবা  = Shafakat taiyeba  = অনুগ্রহ পবিত্র
  • শামিম আরা বেগম  = Shamim ara begom  = সুগন্ধি যুক্ত মহিলা
  • শামীমা আফরোজ  = Shamima afruz  = সুগন্ধি যুক্ত আলোকময় সুন্দর
  • শওকাতুন্নিসা  = Showkatun Nisa  = মর্যাদাবান মহিলা
  • শানিমুন  = Shanimun  = মেজাজ / অভ্যাস
  • শানিন  = Shaneen  = ঠান্ডা পানি
  • শাহিদা আখতার  = Shahida Akhtar  = উপস্থিত তারকা
  • শামসুন নাহার  = Shamsun Nahar  = দিনের সূর্য
  • শফীকুন্নিসা  = Shafikun Nisa = স্নেহ শীলা মহিলা
  • শাকীল হাসনা  = Shakila hasna  = চমৎকার প্রমিকা
  • রেবা = Reba  = নদী কে বোঝায়
  • রওশান =   Raushan  = অতি উজ্জ্বল
  • রানা রায়হান  = Rana Rahian  = অত্যন্ত  সুন্দর সুগন্ধীফুল
  • রানা নাওয়ার  = Rana Nawar  = সুন্দর ফুল
  • রানা নাওয়াল =  Rana Nawal  = অত্যন্ত  সুন্দর উপহার
  • রানা লামিসা =  Rana Lamisa  = সুন্দর অনুভূতি কে বোঝায়
  • রানা গওহার  = Rana Gauhar  = অত্যন্ত  কমনীয় মুক্তা
  • রামিস সালমা =  Ramish Salma  = অত্যন্ত  নিরাপদ প্রশান্ত
  • রামিস রাওনাক  = Ramish Raunaq  = নিরাপদ সৌন্দর্য কে বোঝায়
  • রামিস নুজহাত =  Ramish Nuzhat  = অত্যন্ত  নিরাপদ প্রফুল্ল
  • রামিস নাওয়াল  = Ramish Nawal = অতি নিরাপদ উপহার
  • রামিস মুনিয়াত =  Ramish Muniyat  = নিরাপদ ইচ্ছা পোষণ করা
  • রামিস মুবাশশিরা  = Ramish Mubasshira  = নিরাপদ সুসংবাদ দেওয়া
  • রামিস মালিয়াত =  Ramish Maliyat  = অত্যন্ত  নিরাপদ সম্পদ
  • রামিস লুবনা =  Ramish Lubna  = অতি নিরাপদ বৃক্ষ
  • রামিস ফারিহা  = Ramish Fariha  = নিরাপদ সুখী
  • রামিস বাশারাত =  Ramish Basharat  =অত্যন্ত  নিরাপদ শুভসংবাদ
  • রামিস আতিয়া  = Ramish Atiya  = অতি নিরাপদ উপহার
  • রানা আতিয়া  = Rana Atiya  = সুন্দর উপহার এমন কিছু
  • রানা আনজুম  = Rana Anjum  =  অত্যন্ত  কমনীয় তারা
  • রানা আদিবা  = Rana Adiba  = অত্যন্ত  সুন্দর শিষ্টাচারী
  • রানা আবরেশমী  = Rana Abreshmi  = সুন্দর কমনীয় প্রভাত
  • রামিস যাহরা =  Ramish Zahra  = অত্যন্ত  নিরাপদ ফুল
  • রামিস তারাননুম =  Ramish Tarannum  = নিরাপদ গুঞ্জরন
  • রামিস তাহিয়া =  Ramish Tahiya  = নিরাপদ শুভেচ্ছা
  • রামিস আনজুম =  Ramish Anjum  = অতি  নিরাপদ তারা
  • রামিস আনান =  Ramish Anan  = অত্যন্ত  নিরাপদ মেঘ
  • রামিসা মালিহা  = Ramisa Maliha =  নিরাপদ সুন্দরী
  • রামিসা গওহর =  Ramisa Gauhar  = নিরাপদ মুক্তা
  • রামিসা ফারিহা = Ramisa Fariha  = অনেক নিরাপদ সুখী
  • রামিমা বিলকিস =  Ramisa Bilqis = অনেক নিরাপদ রানী
  • রামিশা আনজুম =  Ramisa Anjum  = অনেক নিরাপদ তারা
  • রামিসা আনান =  Ramisa Anan =অতি   নিরাপদ মেঘ
  • রামিসা  = Ramisa = অতি  নিরাপদ
  • রাইসা =  Raisa =  রানী কে বোঝায়
  • রহিমা =  Rahima = অতি   দয়ালু
  • রুনু = Runu  = নাম বা পরিচয়
  • রুম্মান = Rumman  = ডালিম
  • রুমী  =  Rumi  = অতি সৌন্দার্য
  • রুমালী =  Rumali  = কবুতর কে বোঝায়
  • রুমা =  Ruma  = কবুতর
  • রেবা  = Reba = নদী কে বোঝায়
  • রেযাহ্  = Rejah = পরমানু এমন জাতীয় কিছু
  • রাফিয়া =  Rafia =  উন্নত করা

মেয়েদের আধুনিক ইসলামিক নাম

বর্তমান যুগে এসে কে-না চায় তাঁর মেয়ে সন্তানে জন্য আধুনিক ইসলামিক নাম না রাখতে? অবশ্যই সবাই চায় মেয়েদের আধুনিক ইসলামিক নাম রাখতে। আর তারই প্রেক্ষিতে আজকের আর্টিকেলে আমরা মেয়েদের আধুনিক ইসলামিক নামের একটি বিরাট তালিকা পড়বো। যুগের সাথে তাল মিলিয়ে মেয়েদের আধুনিক ইসলামিক নাম রাখা একজন সচেতন গার্ডিয়ানের প্রধান কর্তব্য। তাই আপনি যদি আপনার মেয়ে বা কণ্যা সন্তানের জন্য একটি ভালো ও আধুনিক ইসলামিক নাম রাখতে চান, তাহলে দয়া করে নিম্নোক্ত মেয়েদের ইসলামিক নামের লিস্টটি পড়ুন। আশা করি এখান হতে যেকোনো একটি মেয়েদের নাম চয়েজ করতে সক্ষম হবেন।

  • রিফাহ সানজীদাহ =  Rifah Sanjidah  = ভাল বিবেচক
  • রিফাহ সাজিদা  = Rifah Sajidah  = অত্যন্ত ভাল ধার্মিক
  • রিফাহ রাফিয়া =  Rifah Rafia  = অত্যন্ত  ভাল উন্নত
  • রিফাহ নানজীবা =  Rifah Nanjiba  = অত্যন্ত ভাল উন্নত
  • রেযাহ্ = Rezah  = পরমানু এমন কিছু
  • রেনু  = Reno  = পরগ
  • রাদিআহ =  Radyah  = সন্তুষ্টি হওয়া
  • রহিমা = Rahima = দয়ালুরাবিয়াহ
  • রাদিআহ = Radiya = সন্তুষ্টি
  • রাফিয়া  = Rafia = অতি উন্নত
  • রাইসা  = Raisha = রানী কে বোঝায়
  • রামিসা  = Ramisha = অতি ‍ নিরাপদ
  • রামিসা আনান  = Ramisha Annan = নিরাপদ মেঘ কে বোঝায়
  • রামিশা আনজুম  = Ramisha Anjum = তুলনামূলক অনেক নিরাপদ তারা
  • রামিমা বিলকিস  = Ramima Bilkis = অতি  নিরাপদ রানী
  • রামিসা ফারিহা  = Ramisha Fariha = নিরাপদ সুখী
  • রামিসা গওহর  = Ramisha Gowhor =অতি  নিরাপদ মুক্তা
  • রামিসা মালিহা  = Ramisa Maliha =অনেক নিরাপদ সুন্দরী
  • রামিস আনান  = Ramis Anan = অতি নিরাপদ মেঘ
  • রামিস আনজুম  = Ramis Anjum =অনেক নিরাপদ তারা
  • রামিস আতিয়া  = Ramis Atiya = অতি নিরাপদ উপহার
  • রামিস বাশারাত  = Ramis Basharat =অনেক নিরাপদ শুভসংবাদ
  • রানা শারমিলা  = Rana Sarmila = সুন্দর লজ্জাবতী
  • রানা তাবাসসুম  = Rana Tabsum = অনেক সুন্দর কমনীয় হাসি
  • রানা তারাননুম  = Rana Tarannum = সুন্দর গুঞ্জরণ
  • রোশনী = Rushni  = অনেক আলো
  • রুপা = Rupa  = ধাতু জাতীয় কোনো কিছু
  • রিফাহ নানজীবা  = Rifah Nanjiba = ভাল উন্নত বোঝায়
  • রিফাহ রাফিয়া  = Rifah Rafia = ভাল উন্নত হওয়া
  • রিফাহ সাজিদা  = Rifah Sajida =অনেক ভাল ধার্মিক কে বোঝায়
  • রিফাহ তামান্না  = Rifha Tamanna = অতি ভাল ইচ্ছা
  • রিফাহ তাসফিয়া  = Rifah Tasfia = অতি ভাল বিশুদ্ধকারী
  • রিফাহ সানজীদাহ  = Rifah Sanjida = অতি ভাল বিবেচক
  • রিফাহ তাসনিয়া  = Rifah Tasnia = অতি ভাল প্রসংসা
  • রাফাহ জাকীয়াহ = Rafah Jakiya = অতি ভাল বিশুদ্ধ
  • রীমা  = Rima = সাদা হরিন কে বোঝায়
  • রুমালী  = Rumali = কবুতর জাতীয় পাখি
  • রুমা  = Ruma = কবুতর
  • রুম্মান = Rumman = ডালিম কে বোঝায়
  • রামিস ফারিহা  = Ramis Fariha = অনেক নিরাপদ সুখী
  • রামিস লুবনা  = Ramis Lubna = নিরাপদ বৃক্ষ
  • রামিস মালিয়াত  = Ramis Maliyat = অতি নিরাপদ সম্পদ
  • রামিস মুবাশশিরা  = Ramis Mubashsiya =অনেক নিরাপদ সুসংবাদ
  • রামিস মুনিয়াত  = Ramis muniyat = অতি নিরাপদ ইচ্ছা
  • রামিস নাওয়াল  = Ramis Nawyal = অতি নিরাপদ উপহার
  • রুচি =  Ruchi  = রুচিশীল কোনো কিছু
  • রুবী  =  Ruby  = অধিক মুল্যবান পাথর
  • রজনী = Rojoni  = রাত বা রাত্র
  • রিয়া লৌকি = Riya  = কতা
  • রীমা সাদা  = Rima  = হরিন জাতীয় কিছু
  • রাফাহ জাকীয়াহ  = Rifah Zakiyah  = অত্যন্ত ভাল বিশুদ্ধ
  • রানা ইয়াসমীন  = Rana Yasmin = সুন্দর জেসমিন ফুল বোঝায়
  • রানা নাওয়াল  = Rana Nawyal = অনেক সুন্দর উপহার
  • রাশীদা  = Rashida =অনেক বিদূষী
  • রোশনী  = Roshni = আলো ছড়ানো
  • রওশান  = Rawshan = উজ্জ্বল হওয়া
  • রওশান মালিয়াত  = Rawshan Maliyate = নিরাপদ সম্পদ বোঝায়
  • রামিস নুজহাত  = Ramis Nuwhat = নিরাপদ প্রফুল্ল
  • রামিস রাওনাক  = Ramis Rawnak = অতি নিরাপদ সৌন্দর্য
  • রামিস সালমা  = Ramis Salma = অনেক নিরাপদ প্রশান্ত
  • রামিস তাহিয়া = Ramis Tahiya = কাউকে নিরাপদ শুভেচ্ছা
  • রামিস তারাননুম  = Ramis Tarannum = অনেক নিরাপদ গুঞ্জরন
  • রামিস যাহরা  = Ramis Jahra = অতি  নিরাপদ ফুল
  • রানা আবরেশমী  = Rana Abreshemi = অনেক সুন্দর কমনীয় প্রভাত
  • রানা আদিবা  = Rana Adiba = অতি সুন্দর শিষ্টাচারী

তিন অক্ষরের মেয়েদের ইসলামিক নাম অর্থসহ

আমাদের মাঝে অনেকে ইন্টারনেট তথা গুগলে তিন অক্ষরের মেয়েদের ইসলামিক নাম অর্থসহ জানার চেষ্টা করি। আর যে বিধায় আজকের আর্টিকেলে আমরা বেশ অনেকগুলো এরকম তিন অক্ষরের মেয়েদের নাম Islamic name of girls জানার চেষ্টা করবো। যেগুলো মূলত মেয়েদের জন্য ইসলামিক নাম এবং যেকোনো গার্ডিয়ান তাঁর মেয়ে সন্তানের জন্য কোনো রকম দ্ধিধাগ্রস্ততা ছাড়াই এখান হতে যেকোনো একটি নাম পিক করতে পারে। চলুন এবার জেনে নেওয়া যাক এরকম কিছু নাম অর্থাৎ তিন অক্ষরের মেয়েদের ইসলামিক নাম অর্থসহ।

  • মুশতারী  = Mushtari  = একজন ক্রেতা
  • মুতীআ  = Mutiah  = অতি অনুগতা
  • মাহমুদা খাতুন  = Mahmuda Khatun  = প্রশংসিতা সম্ভ্রান্ত মহিলা কেউ
  • মাহফুজা লুবনা =  Mahfuza Labana  = একজন নিরাপদ বৃক্ষ
  • মাহফুযা মোতাহারা  = Mahfuza Motahara  = নিরাপদ পবিত্রা মহিলা
  • মাশীআত =  Mashial  = ইচ্ছা পোষণ
  • মাহবুবাহ  = Mahbubah  = প্রিয়া
  • মালেকাহ =  Malekah =  রাণী কে বোঝায়
  • মুলকুন =  Mulkun =  দেশ কে বোঝায়
  • মিন্নাতুন  = Minnatun =  অনুগ্রহ হওয়া
  • মাকছুরাহ  = Maksurah  = গৌপনীয়া নারী
  • মুজাররামাহ  = Mukarramah =  সম্মানিতা হওয়া
  • মুনতাহা  = Muntaha =  চূড়ান্ত কোনো কিছু
  • মুহসিনা তায়্যিবা  = Mohsia Taiyeba  = অনুগ্রহঞ্জকারিনী পবিত্রা মহিলা
  • মাইমুন =  Maimun  = আনন্দময়ী একজন
  • মাকনুনা  = Maknuna  = সুপ্ত প্রাপ্ত
  • মাননাত =  Mannat = অতি  দৃঢ়তা
  • মুলায়কাহ   = Mulaikha = ফেরেশতা রূপ নারী
  • মুখতারী   = Mukhtari = স্বাধীন প্রকৃতির  
  • মুখলিসা   = Mukhlisa = খুবই ভালো মনের মানুষ  
  • মুকার্রামা   = Mukarrama = খুবই সৎ এমন একজন মহিলা
  • মুকাইদাসা   = Mukaidasa = খুবই বিখ্যাত শিল্পী  
  • মুজবা   = Mujba = উত্তরদাতা
  • মাহফুজা মালিয়াত   = Mahfuja Maliyat = নিরাপদ সম্পদ কে বোঝায়
  • মাহফুজা মাসুদা   = Mahfuja Masuda = অতি নিরাপদ সৌভাগ্যতী
  • মানাহিলাহা   = Manahilaha = বসন্ত কা
  • মানুবা   = Manuba = সময়ে ভাগ্ করেনি
  • মামুনা   = Mamuna = সৎ মনের মানুষ  
  • মুজাহিদা   = Mujihida = খুবই কষ্ট করে  
  • মুইদা   = Muida = শিক্ষিকা  
  • মুহ্সিনহা   = Muhsina = দানশীল  
  • মাশিলা   = Mashila = এক সুন্দর আলোর আভা
  • মাসারাতা   = Masharata = খুবই আনন্দিত এমন একজন এক মহিলা
  • মাশরাহা   = Mashraha = খুবই খুশি মনের একজন মহিলা
  • মাসাবীহা   = Mashabiha = এই মহিলা যাকে আলোর দীপ্তি বোঝানো হয়েছে
  • মাসাহী   = Mashahi = হীরের টুকরো
  • মারজুকা   = Marjuka = নিজের ইছানুসারে জীবন যাপন করা
  • মারজিয়া   = Murjiya = যাকে খুবই সহজে গ্রহন করা যায়  
  • মাসুদা   = Masuda = যে নারী খুবই ভাগ্যবতী এমন একজন  
  • মাসিরা   = Masira= অনেক ভালো কর্ম করেছে এমন একজন নারী কে বোঝানো হয়েছে
  • মাসাহির   = Masahir = প্রাচীন আরবী একটি নাম  
  • মাশিয়া   = Mashia = আল্লাহ এর কিছু ইচ্ছেকে বোঝানো হয়েছে এই নারী নামের অর্থ দ্বারা বোঝায়
  • মাওয়াদ্দাহ   = Mawaddha = বন্ধুত্ব ও ভালবাসা
  • মারায়াম   = Marayam = এমন একজন মহিলা যে হযরত মোহাম্মদ এর মাতা ছিলেন  
  • মারওয়া   = Marowa = একটি চকচকে পাথরকে বোঝানো হয়েছে
  • মাওহিবা   = Mawhiba = সৃষ্টিকর্তা প্রদত্ত উপহার  
  • মানারীহা   = Maniriha = আলো রুপ
  • মানালাইয়া   = Manalaiya = সাফল্য লাভ করা
  • মারুফা   = Marufa = খুবই বিখ্যাত
  • মারমারা   = Marmara = এক মার্বেল পাথর
  • মার্জানা   = Marjana = ছোট্টো মুক্ত
  • মারিয়া   = Mariya = এক শিক্ষিত মহিলা
  • মারিহা   = Mariha = খুবই আনন্দদান
  • মাহফুজা মায়িশা   = Mahfuja Maisha = অতি নিরাপদ সুখী জীবনযাপন কারিনী
  • মালকা   = Malaka = এক রাজ্যের রানী
  • মালিকাহা   = Malikaha = নারী যে শাসক
  • মালিহা   = Maliha = খুবই সুন্দরী সুশ্রী
  • মাখতুনাহ   = Makhtunah = অতীতের একটি সুন্দরী মহিলার নাম
  • মালাকা   = Malaka = পরীর মতো সুন্দর
  • মালাহা   = Malaha = এক নারীর সৌন্দর্যকে
  • মালূহা   = Maluka = থাকার বাসস্থান
  • মালিহাহ   = Malihah = দেখতে খুবই পবিত্র ও সুন্দরী  
  • মাকতুমাহা   = Maktumaha = যে গান করতে খুবই ভালোবাসে  
  • মাকসুদা   = Maksuda = পূর্বনির্দিষ্ট ভাব
  • মাকবুলা   = Makbula = সবাইকে খুবই সহজে গ্রহণ করতে পারে
  • মাক্কিয়াহা   = Makkiya = যে মক্কাতে জন্মগ্রহণ করেছে  
  • মাকারিমা   = Makarima = খুবই ভালো চরিত্রের মানুষ  
  • মজিদা  = Majida = খুবই উজ্জ্বল
  • মুনিরা   = Monira = খুবই উজ্বল এবং বুদ্ধিমান
  • মুনিফা   = Munifa = খুবই বিশিষ্ট
  • মুনিবা  = Moniba = যে আল্লাহ এর দিকে ফিরেছে  
  • মুনিহা    = Moniha = ক্রীতদাসী

দুই অক্ষরের মেয়েদের ইসলামিক নাম

এখানে যে সমস্ত নামগুলো শুধু মাত্র দুই অক্ষরের এবং মেয়েদের নাম, সে নামগুলোই এখানে তুলে ধরা হয়েছে। আশা করি যে সমস্ত পাঠকগণ এবং গার্ডিয়ান তাদের মেয়ে সন্তানের জন্য দুই অক্ষরের মেয়েদের ইসলামিক নাম পিক করতে চান তাদের জন্য নিম্নোক্ত নামগুলো যথার্থ হবে। চলুন তাহলে বিলম্ব না করে জেনে নেওয়া যাক দুই অক্ষরের মেয়েদের ইসলামিক নাম গুলো।

  • আজরা আদিলা = Ajra Adila = স্পষ্ট কুমারী ন্যায় বিচারক
  • আজরা আনতারা = Ajra Antara = স্পষ্ট কুমারী বীরাঙ্গনা মেয়ে
  • আজরা আফিয়া = Ajra Afia = স্পষ্ট কুমারী পুণ্যবতী
  • আজরা আসিমা = Ajra Asima = স্পষ্ট কুমারী সতী নারী
  • আজরা গালিবা = Ajra Galiba = স্পষ্ট কুমারী বিজয়ীনি
  • আজরা জামীলা = Ajra Jamila = স্পষ্ট কুমারী সুন্দরী
  • আজরা তাহিরা = Ajra Tahira = স্পষ্ট কুমারী সতী
  • আজরা ফাহমিদা = Ajra Fahmida = স্পষ্ট কুমারী বুদ্ধিমতী
  • আজরা বিলকিস = Ajra Bilkis =স্পষ্ট কুমারী রানী
  • আজরা মাবুবা = Ajra Mahbuba = স্পষ্ট কুমারী প্রিয়া
  • আজরা মায়মুনা = Ajra maymuna = স্পষ্ট কুমারী ভাগ্যবতী
  • আজরা মালিহা = Ajra Maliha = স্পষ্ট কুমারী নিষ্পাপ মেয়ে
  • আজরা মাসুদা = Ajra Masuda = স্পষ্ট কুমারী সৌভাগ্যবতী মেয়ে
  • আজরা মাহমুদা = Ajra Mahmuda = স্পষ্ট কুমারী প্রশংসিতা মেয়ে
  • আজরা মুকাররামা = Ajra Mukarrma = স্পষ্ট কুমারী সম্মানিত মেয়ে
  • আজরা মুমতাজ = Ajra Mumtaj = স্পষ্ট কুমারী মনোনীত মেয়ে
  •  আজরা রায়হানা = Ajra Rayhana = স্পষ্ট কুমারী সুগন্ধী ফুল মেয়ে
  • আজরা রাশীদা = Ajra Rashida = স্পষ্ট কুমারী বিদুষী
  • আজরা রুমালী = Ajra Rumali = স্পষ্ট কুমারী কবুতর
  • আজরা শাকিলা = Ajra Shakila = স্পষ্ট কুমারী সুরূপা
  • আজরা সাজিদা = Ajra Sujida = স্পষ্ট কুমারী ধার্মিক মেয়ে
  • আজরা সাদিকা = Ajra Sadika = কুমারী পুন্যবতী মেয়ে
  • আজরা সাদিয়া = Ajra Sadia =কুমারী সৌভাগ্যবতী নারী
  • আজরা সাবিহা = Ajra Sabia = কুমারী রূপসী মেয়ে
  • আজরা হামিদা = Ajra Hamida = কুমারী প্রশংসাকারিনী মেয়ে
  • অনিন্দিতা = Anindita = অনেক সুন্দরী মেয়ে
  • আইদাহ = Aidah = কারো সাথে সাক্ষাৎকারিনী মেয়ে
  • আকলিমা = Aklima = নিজ দেশ
  •  আকিলা= Akila = অতি বুদ্ধিমতি
  • আক্তার = Akter = অনেক ভাগ্যবান
  • আছীর = Acir = কারো কাছে পছন্দনীয়
  • আজরা আকিলা = Ajra Akila = স্পষ্ট কুমারী বুদ্ধিমতী মেয়ে
  • আতকিয়া আজিজাহ = Atkia Ajija = অতি ধার্মিক সম্মানিত মেয়ে
  • আতকিয়া আয়মান = Atkia Ayman = ধার্মিক শুভ মেয়ে
  • আতকিয়া ফাইরুজ = Atkia Fairuj = ধার্মিক সমৃদ্ধিশালী মেয়ে
  • আতকিয়া ফাওজিয়া = Atkia Fawjia = ধার্মিক সফল মেয়ে
  • আতকিয়া ফাখেরা = Atkia Fakhera =ধার্মিক মর্যাদাবান মেয়ে
  • আতকিয়া ফান্নানা = Atkia Fannana = ধার্মিক শিল্পী মেয়ে
  • আতকিয়া ফাবলীহা = Atkia Fabliha =ধার্মিক অত্যন্ত ভাল মেয়ে
  • আতকিয়া ফারজানা = Atkia Farjana = ধার্মিক বিদূষী মেয়ে
  • আতকিয়া ফারিহা = Atkia Faria = ধার্মিক সুখী মেয়ে
  • আতকিয়া মায়মুনা = Atkia Maymuna = ধার্মিক ভাগ্যবতী মেয়ে
  • আতকিয়া মালিহা = Atkia Maliha = ধার্মিক রূপসী মেয়ে
  • আতকিয়া আয়েশা  = Atkia Aysha = ধার্মিক সমৃদ্ধিশালী মেয়ে
  • আতকিয়া আসিমা = Atkia Asima = ধার্মিক কুমারী মেয়ে
  • আতকিয়া গালিবা = Atkia Galiba =  ধার্মিক বিজয়ীনি মেয়ে
  • আতকিয়া জামিলা = Atkia Jamila = ধার্মিক রূপসী মেয়ে
  • আতকিয়া জালিলাহ = Atkia Jalilha = ধার্মিক মহতী মেয়ে
  • আতকিয়া ফাইজা = Atkia Fija  = ধার্মিক বিজয়ীনি মেয়ে
  • আতকিয়া মাসুমা = Atkia Masuma = ধার্মিক নিষ্পাপ মেয়ে
  • আতকিয়া মাহমুদা = Atkia Mahmuda = ধার্মিক প্রশংসিতা মেয়ে
  • আতকিয়া মুকাররামা = Atkia Mukrama = ধার্মিক সম্মানিত মেয়ে
  •  আতকিয়া মুনাওয়ারা = Atkia Munawra = ধার্মিক দীপ্তিমান মেয়ে
  • আতকিয়া মুরশিদা = Atkia Murshida = ধার্মিক এবং প্রশংসিতা
  •  আতকিয়া মোমেনা = Atkia Momena = ধার্মিক বিশ্বাসী মেয়ে
  • আতকিয়া ফাহমিদা = Atkia Fahmida = ধার্মিক বুদ্ধিমতি মেয়ে
  • আতকিয়া বাশীরাহ = Atkia Bashira = ধার্মিক সুসংবাদদানকারীনী মেয়ে
  • আজরা আতিকা = Ajra Atika = স্পষ্ট কুমারী সুন্দরী
  • আজরা আতিয়া = Ajra Atiya = স্পষ্ট কুমারী দানশীল মেয়ে

বিভিন্ন বর্ণ দিয়ে মেয়েদের ইসলামিক নাম

বিভিন্ন বর্ণ দিয়ে মেয়েদের ইসলামিক নাম হয়ে থাকে। সেটা বাংলা কিংবা ইংরেজী উভয় বর্ণ দিয়েই। আর বর্ণ ভিত্তিক নাম মেয়েদের ব্যক্তিগত নামে নিয়ে আসে বৈচিত্র্য। যে বিধায় বাংলা ভাষায় যে কয়েকটি বর্ণ আছে, সে বর্ণগুলোতে তৈরি হওয়া মেয়েদের নাম সম্পর্কে অনেকেই জানতে চায়। তবে আমরা আমাদের এই সাইটে প্রতিনিয়ত বর্ণ ভিত্তিক মেয়েদের নাম দিয়েই যাচ্ছি। আশা করি আমাদের পূর্ববর্তী ও পরবর্তী আর্টিকেলগুলো অনুসরণ করার মাধ্যমে বর্ণ দিয়ে তৈরি হওয়া মেয়েদের অধিকাংশ নামগুলোই পেয়ে যাবেন। যাইহোক, নিম্নে আলাদা আলাদা বর্ণ দিয়ে তৈরি হওয়া মেয়েদের অনেকগুলো ইসলামিক নাম তুলে ধরা হয়েছে। সেগুলো হলো-

  • সারফিনা = Sarpina = পরিষ্কার পরিচন্ন পছন্দ করা নারী।
  • সুহেলা = Suhela = সাবলীল নারী বা প্রসিদ্ধ ভদ্র নারী।
  • সুমিরাহ = Sumira = রাজার কণ্যা বা রাজকুমারী।
  • সাফিখা = Shafia = অতি দয়ালু এবং বিবেক সম্পন্ন একজন মহৎ নারী।
  • সাহাদা = Shahada = মহিয়সী নারী।
  • সাগুফতা = Shagufota = সুখময় জীবন-যাপন করা নারী।
  • সাফিয়া = Safia = দয়া, মায়া এবং করুণাময় নারী।
  • সাফাত = Shafat = নিরাময় প্রদান করা মহিয়সী নারী।
  • সাফানা = Shafana = সু-চরিত্র বিশিষ্ট মহৎ নারী।
  • সায়মা = Sayma = রোজা থাকা বিশিষ্ট  ধার্মিক মহিলা।
  • সায়রা = Sayra = বিশেষ একটি পাখি।
  • তাহিয়া  = Tahia = অভিবাদন।
  • তাবিথা  = Tabitha = একটি গজল
  • তাবনা  = Tabna = বুদ্ধি এবং বোধগম্য
  • তাবশ  = Tabos = উষ্ণ, হালকা
  • তাদেব  = Tadeb = সাহিত্য শেখায়
  • তাডিয়া  = Tadia = প্রদান করতে
  • তাফিয়া  = Tafia = পালক
  • তাফিদা  = Tafida = প্যারাডাইস মিশর নাম
  • তাগিয়া  = Tagia = উচ্চ পাইলস
  • তাগরিদ  = Tagrid = পাখি হিসাবে গাওয়া
  • তাহানী  = Tahani = অভিনন্দন
  • তাহিরা  = Tahira = সজ্জা থেকে
  • রিফাহ তাসনিয়া  = Rifah Tasnia = অতি ভাল প্রসংসা
  • রাফাহ জাকীয়াহ = Rafah Jakiya = অতি ভাল বিশুদ্ধ
  • রীমা  = Rima = সাদা হরিন কে বোঝায়
  • রুমালী  = Rumali = কবুতর জাতীয় পাখি
  • রুমা  = Ruma = কবুতর
  • রুম্মান = Rumman = ডালিম কে বোঝায়
  • রামিস ফারিহা  = Ramis Fariha = অনেক নিরাপদ সুখী
  • রামিস লুবনা  = Ramis Lubna = নিরাপদ বৃক্ষ
  • রামিস মালিয়াত  = Ramis Maliyat = অতি নিরাপদ সম্পদ
  • রামিস মুবাশশিরা  = Ramis Mubashsiya =অনেক নিরাপদ সুসংবাদ
  • মুরশিদাহ  = Murshidah  = পথপ্রদর্শন কারিণী কেউ
  • মাজেদাহ Majehah  = সম্মানিতা
  • মাহজুজাহ  = Mahzuzah = অনেক  ভাগ্যবতী
  • মাহেরা  = Mahera  = অভিজ্ঞতা সম্পন্না নারী
  • মিফতাহ  = Miftah  = চাবি
  • মায়িশাহ  = Mayeshah =  সুখময় জীবন যাপন
  • মুনাওয়ারাহ  = Munawarah =  আলোকিত হওয়া
  • রূম্মান =  Rumman =  ডালিম কে বোঝায়
  • মুশাককারা =  Mushakkara =  কারো প্রতি কৃতজ্ঞ
  • মুসফারা  = Musfara =  সহৃদয়া নারী
  • মুসাব্বিরা  = Musabbira  = শিল্পি
  • মুসাররাত  = Musarrat  = অতি আনন্দিত কে বোঝায়
  • মুহতানেকা  = Muhtaneka  = দক্ষ বা স্কীলফুল
  • মেফতাহ  = Meftah  = চাবি
  • মোহান্না  = Mohanna  = সহজ বা ইজি
  • মুতারাবাত  = Mutarabat =  সৌহার্য কে বোঝায়
  • রূমালী  = Rumali =  কবুতর জাতীয় কিছু
  • মাহাসানাত  = Mahsanat = সতী সাধ্বী একজন
  • মুগীনা  = Mugina = একজন গায়িকা
  • মুনাদিয়া  = Munadia  = ঘোষণা দেওয়া
  • মুন্না  = Munna  = শক্তি বা বল প্রয়োগ করা
  • মুবসিরাত =  Mubsirat  = সঠিক বা ঠিক
  • মুসাম্মা  = Musamma  = নামে অভিহিত করা
  • মনিয়াত =  Muniyat  = ইচ্ছা পোষণ করা

ইতিমধ্যে আমরা অনেকগুলো মেয়েদের ইসলামিক নাম জানলাম। উপরের প্রায় সবগুলো নাম হলো মেয়েদের জন্য। এবং যদি কোনো গার্ডিয়ান তাঁর মেয়েদের জন্য ইসলামিক নাম রাখতে চায়, তাহলে সে উপরোক্ত নামগুলো থেকে যেকোনো একটি নাম চয়েজ করতে পারেন।

যখনই কোনো ঘরে বা পরিবারে একটি মেয়ে সন্তান জন্ম নেয়, তখন নিয়ম অনুযায়ী একজন মুসলিম মা ও বাবার উচিত ভালো ও নাম রাখার সবগুলো বিষয় মান্য করার মাধ্যমে একটি ইসলামিক নাম রাখা। এই ক্ষেত্রে অনেকে অনেক রকম প্রতিবান্ধকতার মুখামুখি হয়। কেউ বা ইসলামিক নাম রাখা নিয়ে আবার কেউ বা কিভাবে সুন্দর একটি মেয়ের নাম রাখবে বা চয়েজ করবে, তা নিয়ে হিমশিম খায়। আর উক্ত ফেক্টরগুলোকে সামনে রেখেই উপরোক্ত সবগুলো নাম মেয়েদের ইসলামিক নাম তুলে ধরা হয়েছে। আশা করি একজন  সচেতন গার্ডিয়ান, তার মেয়ের জন্য যদি একটি ভালো ও অর্থবহ ইসলামিক নাম রাখতে চান, তাহলে উপরে উল্লেখিত হিউজ নামগুলো মধ্য হতে যে কোনো একটি বাঁচাই করে রাখতে পারেন। সর্বপরি, আশা করি মেয়েদের ইসলামিক নাম সম্পর্কে জানতে পেরে বেশ চমৎকার ভাবে উপকৃত হতে পেরেছেন।

ছেলে ও মেয়েদের ইসলামিক নাম

এখন আমরা হিইজ একটি নামের তালিকা পড়বো, যেটি মূলত ছেলে ও মেয়ে উভয়ের যৌথ একটি নামের তালিকা। যখন একটি ঘরে সন্তান জন্ম নেয়,সেটি ছেলে কিংবা মেয়ে সন্তান হোক, কিন্তু প্রথমে পরিবারের সবার মাথায় একটি জিনিস ঘুরপাক ঘায়, আর সেটি হলো সন্তানের নাম রাখা নিয়ে। কি নাম রাখবে। আর এসব চিন্তা করে অনেকে অনেক রকম টার্ম ব্যবহার করে গুগলে সার্চ দিয়ে থাকে। অনেকে জানতে বা রাখতে চায় ইসলামিক নাম। আবার অনেকে তাদের সন্তানের নামে বৈচিত্র্য নিয়ে আসতে চায়। যে বিধায় নাম রাখার ক্ষেত্রে বাধ্য হয়ে তাদেরকে গুগল করতে হয়। তবে যাইহোক, আজকের আমাদের এই আর্টিকেলে ছেলে ও মেয়ে উভয়ের হিউজ পরিমাণ নাম ইতিপূর্বে উল্লেখ করা হয়েছে। এমতোবস্থায় আপনারা যদি এখনো আপনাদের সদ্য জন্ম নেওয়া সন্তানের জন্য সিঙ্গেল একটি নামও চয়েজ করতে না পেরে থাকেন, তাহলে দয়া নিম্নোক্ত নামগুলো পড়ুন। আপনাদের দিকটিকে বিবেচনা করে নিম্নে মিক্স আকরে আরো বেশ অনেকগুলো ইসলামিক নাম উল্লেখ করা হয়েছে। যেগুলো একজন পিতা – মাতা তাদের ছেলে কিংবা মেয়ে সন্তানের নাম রাখার ক্ষেত্রে ব্যবহার করতে পারে। এখন প্রশ্ন আসতে পারে যে, কোথায় ছেলে ও মেয়েদের ইসলামিক নাম? ছেলে ও মেয়েদের ইসলামিক নামগুলো হলো-

  • তাবাসসুম  = Tabassum =  মুসকি হাসি
  • তাসনিয়া = Tasnia =  প্রশংসিত
  • তাহসীনা   = Tahsina =   উত্তম
  • তাহিয়্যাহ  = Taiyah =   শুভেচ্ছা
  • তোহফা = Tohfa =   উপহার
  • তাখমীনা = Takhmina =   অনুমান
  • তাযকিয়া   = Tajkia = পবিত্রতা
  • তাসলিমা = Taslima =   সর্ম্পণ
  • তাসমিয়া  = Tasmia =   নামকরণ
  • তাসনীম = Tasnim = বেহেশতের ঝর্ণা
  • তাসফিয়া = Tasfia = পবিত্রতা
  • তাসকীনা = Taskina = সান্ত্বনা
  • দীবা   = Diba =   সোনালী
  • বিলকিস   = Bilkis =   রাণী
  • আনিকা  = Anika =  রুপসী
  • তাবিয়া   = Tabia =   অনুগত
  • তাসমীম = Tasmim = দৃঢ়তা
  • তাশবীহ = Tashbih = উপমা
  • তাকিয়া  = Takia =   চরিত্র
  • তাকমিলা = Taklima = পরিপূর্ণ
  • তামান্না = Tamanna = ইচ্ছা
  • তামজীদা = Tamjida = মহিমা কীর্তন
  • আফরা = Afra =সাদা
  • সাইয়ারা = Saiyara =তারকা
  • আফিয়া = Afia = পুণ্যবতী
  • মাহমুদা = Mahmuda = প্রশংসিতা
  • রায়হানা = Rayhana = সুগন্ধি ফুল
  • হাসিনা = Hasina =সুন্দরি
  • হাবীবা = Habiba =প্রিয়া
  • ফারিহা = Faria = সুখি
  • দীবা = Diba = সোনালী
  • বিলকিস = Bilkis = রাণী
  • আনিকা =Anika = রুপসী
  • তাবিয়া = Tabia = অনুগত
  • তাবাসসুম = Tabassum = মুসকি হাসি
  • তাসনিয়া = Tasnia = প্রশংসিত
  • তাহসীনা = Tahsina = উত্তম
  • তাহিয়্যাহ = Taiyah = শুভেচ্ছা
  • তোহফা = Tohfa = উপহার
  • তাখমীনা = Takhmina = অনুমান
  • তাযকিয়া = Tajkiya = পবিত্রতা
  • তাসলিমা = Taslima = সর্ম্পণ
  • তাসমিয়া = Tasmia = নামকরণ
  • তাসনীম = Tasnim = বেহেশতের ঝর্ণা
  • তাসফিয়া = Tasfiya = পবিত্রতা
  • শামিখা = Shamikha  = সুন্দরী
  • শারিকা  = Sahriqa  = দৃঢ় / উচ্চ / উন্নত / মহিরূপ
  • শাম্মা  = Shamma  = উজ্জল, মেয়েদের আনকমন নামের তালিকা।
  • শায়মা  = Shayma  = সুন্দর
  • শাফীকা = Shafiqa  = সুপারিশ কারিনী
  • শাকীলা  = Shakila  = স্নেহশীলা
  • হানিয়া = Hania =  সুখী, তৃপ্ত, খুশী
  • হামীমা = Hamima =  অন্তরঙ্গ বান্ধবী
  • হাসানা = Hasana =  সুন্দর, সুকর্ম
  • হাবীবা = Habiba =  প্রিয়, প্রিয়তমা, সাহাবীর নাম
  • সালীমা  = Salima =  সুস্থ
  • সারাফ ওয়াসিমা  = Sharaf Owasima =  গানরত সুন্দরী
  • সায়ীদা  = Saida =  পুন্যবতী
  • সাবিহা  = Sabiha =  রূপসী / দ্রুতগামি অশ্ব
  • সাকেরা  = Sakera =  কৃতজ্ঞতা প্রকাশকারী, পাকিস্তানি মেয়ে শিশুর নাম
  • সানজীদাহ  = Sanjidah =  বিবেচক
  • সীমা / সিমা  = Sima =  কপাল, দুই অক্ষরের মেয়েদের আধুনিক নাম।
  • সুবাহ  = Subha =  প্রভাত
  • সুফিয়া  = Sufia =  আধ্যাত্মিক সাধনাকারী
  • হুমাইরা = Humaira =  অর্থ – লাল রঙের পাখি
  • হাফেজা = Hafeza =  সংরক্ষণকারিণী, কোরান হেফজকারিণী
  • শামসিয়া = Shamsia  = প্রদীপ
  • শাহবা  =  Shaba  = ছাতা
  • শাহলা  =  Shahla  = বাঘিনী
  • তাসকীনা = Taskina = সান্ত্বনা
  • তাসমীম = Tasmim = দৃঢ়তা
  • তাশবীহ = Tashbih = উপমা
  • তাকিয়া  = Takia =  শুদ্ধ চরিত্র
  • তাকমিলা = Taklima = পরিপূর্ণ
  • তামান্না = Tamanna = ইচ্ছা
  • তামজীদা = Tamjida = মহিমা কীর্তন
  • তাহযীব = Tahjib = সভ্যতা
  • তাওবা = Tawba = অনুতাপ
  • তানজীম = Tanjim = সুবিন্যস্ত
  • তাহিরা = Tahira = পবিত্র
  • তবিয়া = Tobia = প্রকৃতি
  • তরিকা = Torika = রিতি-নীতি
  • তাইয়্যিবা = Taiyiba = পবিত্র
  • তহুরা = Tohura = পবিত্রা
  • তুরফা = Turfa = বিরল বস্তু
  • তাহামিনা = Tahamina = মূল্যবান
  • তাহমিনা = Tahmina = বিরত থাকা
  • তানমীর  = Tanmir =  ক্রোধ প্রকাশ করা
  • ফরিদা = Forida = অনুপম
  • ফাতেহা = Fateha = আরম্ভ
  • ফাজেলা = Fajela = বিদুষী
  • ফাতেমা = Fatema = নিষ্পাপ
  • ফারাহ = Farah = আনন্দ
  • ফারহানা = Farhana = আনন্দিতা
  • ফারহাত = Farhat = আনন্দ
  • ফেরদাউস  = Ferdaus =   বেহেশতের নাম
  • ফসিহা = Fsiha = চারুবাক
  • ফাওযীয়া = Fawjiya = বিজয়িনী
  • মালিহা = Maliaha = রুপসী
  • ফারজানা = Farjana = জ্ঞানী
  • পারভীন = Parbin = দীপ্তিময় তারা
  • ফিরোজা = Piroja = মূল্যবান পাথর
  • ফজিলাতুন = Pojilatun = অনুগ্রহ কারিনী
  • ফাহমীদা = Pahmida = বুদ্ধিমতী
  • ফাবিহা বুশরা = Fabiha Busra = অত্যন্ত ভাল শুভ
  • মোবাশশিরা = Mubashsira = সুসংবাদ বাহী
  • মাজেদা = Majeda = সম্মানিয়া
  • মাদেহা = Madeha = প্রশংসা
  • মারিয়া = Maria = শুভ্র
  • মাবশূ রাহ = Mabush Rah = অত্যাধিক সম্পদশালীনী,
  • মুতাহাররিফাত = Mutahar rifat = অনাগ্রহী
  • মুতাহাসসিনাহ = Mutahassinah = উন্নত
  • মুতাদায়্যিনাত = Mutadainat = বিশ্বস্ত ধার্মিক মহিলা,
  • মাহবুবা = Mahbuba = প্রেমিকা
  • মুহতারিযাহ = Muhtarijah = সাবধানতা অবলম্বন কারিনী
  • মুহতারামাত = Muhtaramat = সম্মানিতা
  • মুহসিনাত = Muhsinat = অনুগ্রহ কারিনী
  • মাহতরাত = Mahtrat = সম্মিলিত
  • মাফরুশাত = Mafrushat = কার্ণিকার
  • মাহাসানাত = mahasanat = সতী-সাধবী
  • মাহজুজা = Mahjuja = ভাগ্যবতী
  • মারজানা = Marjana = মুক্তা
  • আমিনা = Amina = নিরাপদ
  • আনিসা = Anisa =কুমারী
  • আদীবা = Adiba =মহিলা সাহিত্যিক
  • হাম্মাদ = Hammad = অধিক প্রশংসাকারী
  • হামদান = Hamdans = প্রশংসাকারী
  • সাফওয়ান = Safowan = স্বচ্ছ শিলা
  • মামদুহ = Mumduh = প্রশংসিত
  • নাবহান = Nabhan = খ্যাতিমান
  • নাবীল = Nabil  = শ্রেষ্ঠ
  • নাদীম = Nadim = অন্তরঙ্গ বন্ধু
  • জালাল =  Jalal = মহিমা,
  • কফিল = Kafil = জামিন দেওয়া,
  • করিম = Karim = দানশীল,সম্মানিত,
  • কাশফ = Kashof = উন্মুক্ত করা,
  • কামাল = Kamal = যোগ্যতা,সম্পূর্ণতা,
  • গণী = Goni = ধনী,
  • শফিক = Shafiq = দয়ালু
  • তানভীর = Tanvir = আলোকিত
  • শাদমান = Shadman = হাসিখুশী
  • সুলতান আহমদ = Sultan Ahmmed = প্রশংসিত সাহায্যকারী
  • সাইফুদ্দীন = Saifuddin = দ্বীনের সূর্য্য
  • সাইফুল হক = Saiful Haq = প্রকৃত তরবারী
  • সাইফুল হাসান = Saiful Hasan = সুন্দর কল্যাণ
  • সাইফুল ইসলাম = Saiful Islam = ইসলামের প্রিয়
  • সাইয়্যেদ = Saiyed = সরদার
  • সৈয়দ আহমদ = Saoid Ahmmed = প্রশংসিত ভয় প্রদর্শক
  • সাখাওয়াত হুসাইন = Sakhawat Hossain = সুন্দর আলোবিচ্ছুরক
  • সাকিব সালিম = Sakib Salim = দীপ্ত স্বাস্থ্যবান
  • সালাউদ্দীন = Salauddin = দ্বীনের ভদ্র
  • সালাম = Salam = নিরাপত্তা
  • সলীমুদ্দীন = Salimuddin = দ্বীনের সাহায্য
  • সামীম  = Samim = চরিত্রবান
  • সামিন ইয়াসার = Samin Yasir = মুল্যবান সম্পদ
  • গানেম = Ganem = গাজী, বিজয়ী
  • খাত্তাব = Khattab = সুবক্তা
  • সাবেত = Sabet = অবিচল
  • শাকের = Saker = কৃতজ্ঞ
  • তাযিন = Tajin = সুন্দর
  • ইমাদ = Emad = খুঁটি
  • আবরার = Abrar = ন্যায়বান,
  • আহসান = Ahsan = উৎকৃষ্টতম,
  • আহনাফ = Ahnaf = ধার্মিক,
  • বাসিত = Basit = স্বচ্ছলতা দানকারী,
  • গিয়াস = Gias = সাহায্য,
  • ফয়সাল = Faysal = বিচারক,
  • বোরহান = Borhan = প্রমাণ,
  • গালিব = Galib = বিজয়ী,
  • হালিম = Halim = ভদ্র,
  • গোলাম মুহাম্মদ = Golam Muhammed = মুহাম্মদের দাস
  • গোলাম কাদের = Golam Kader = কাদেরের দাস ইত্যাদি।
  • উসামা = Usama = সিংহ
  • হামদান = Hamdan = প্রশংসাকারী
  • লাবীব =  Labir = বুদ্ধিমান
  • রাযীন = Rajin = গাম্ভীর্যশীল
  • রাইয়্যান = Raiyan = জান্নাতের দরজা বিশেষ
  • রাগীব আনসার = Ragib Ansar = আকাঙ্গ্ক্ষিত ব্ন্ধু
  • রাগীব আসেব  = Ragib Aseb = আকাঙ্গ্ক্ষি যোগ্যব্যক্তি
  • রাগীব আশহাব = Ragib Ashhab = আকাঙ্গ্ক্ষিত বীর
  • রাগীব বরকত = Ragib Barkot = আকাঙ্গ্ক্ষিত সৌভাগ্য
  • রাগীব হাসিন = Ragib Hasin = আকাঙ্গ্ক্ষিত সুন্দর
  • রাগীব ইশরাক = Ragib Esrak = আকাঙ্ক্ষিত সকাল
  • রাগীব মাহতাব = Ragib Mahtab = আকাঙ্ক্ষিত চাঁদ
  • রাগীব মোহসেন = Ragib Mohsen = আকাঙ্ক্ষিত উপকারী
  • রাগীব মুবাররাত = Ragib Mubararat = আকাঙ্ক্ষিত ধার্মিক
  • রাগীব মুহিব = Ragib Muhib = আকাঙ্ক্ষিত প্রেমিক
  • রাগীব নাদের = Ragib Nader = আকাঙ্ক্ষিত প্রিয়
  • সাজেদর রহমান = Sajedor Rahman = দয়াময়ের সামনে মস্তকঅবনমিতকারী
  • সাব্বীর আহমেদ = Sabbir = প্রশংসিত সাহায্যকারী
  • সালিম শাদমান = Salim Shadman = স্বাস্থ্যবান আনন্দিত
  • রাদ শাহামাত = Rad Shamat = বজ্র সাহসিকতা
  • রাব্বানী = Rabbani = স্বর্গীয়
  • রাব্বানী রাশহা = Rabbani Rashada = স্বর্গীয় ফলের রস
  • রবীউল হাসান = Robiul Hasasn = ইসলামের বসন্তকাল
  • রফিকুল হাসান = Rafiqul Hasan = সুন্দেরের উচ্চ
  • রফিকুল ইসলাম = Rafiqul Islam = ইসলামের মহত্ত্ব
  • রফিউদ্দীন = Rofiuddin = দ্বীনের সুগন্ধী ফুল
  • রাগীব আবিদ = Ragib Abid = আকাঙ্গ্ক্ষিত এবাদতকারী
  • রাগীব আখলাক = Ragib Akhlak = আকাঙ্গ্ক্ষীত চারিত্রিক গুনাবলি
  • রাগীব আখইয়ার = Ragib Akhyear = আকাঙ্গ্ক্ষি চমৎকার মানুষ
  • রাগীব আখতার = Ragib Akhtar =  আকাঙ্ক্ষিত তারা
  • রাগীব আমের  = Ragib Amer  = আকাঙ্গ্ক্ষিত শাসক
  • রাগীব আনিস = Ragib Anis = আকাঙ্গ্ক্ষিত বন্ধু
  • রাগীব আনজুম = Ragib Anjum =  আকাঙ্ক্ষিত তারা
  • রাগীব নিহাল = Ragib Nihal = আকাঙ্ক্ষিত চারা গাছ
  • রাগীব নূর = Ragib Nur = আকাঙ্ক্ষিত আলো
  • রাগীব রহমত = Ragib Rahmot  = আকাঙ্ক্ষিত দয়া
  • রাগীব রওনক = Ragib Rawnok = আকাঙ্ক্ষিত সৌন্দর্য
  • রাগীব সাহরিয়ার = Ragib Shariyar = আকাঙ্ক্ষিত রাজা
  • রাগীব শাকিল = Ragib Shakil  = আকাঙ্ক্ষিত সুপরুষ
  • রাগীব ইয়াসার = Ragib Yasir = আকাঙ্ক্ষিত সম্পদ
  • রাগীব নাদিম = Ragib Nadim = আকাঙ্ক্ষিত সংগী
  • রাশীদ = Rashid = সরল,শুভ
  • রাহীম = Rahim = দয়ালু
  • রাহমান = Rahman = দয়ালু
  • রহমত = Rahmot = রহমত
  • রায়হানুদ্দীন = Rayhanuddin = দ্বীনের বিজয়ী
  • রঈসুদ্দীন = Raisuddin = দ্বীনের সাহায্যকারী
  • তাসনিয়া = Tasnia =  প্রশংসিত
  • তাহসীনা   = Tahsina =   উত্তম
  • তাহিয়্যাহ  = Taiyah =   শুভেচ্ছা
  • তোহফা = Tohfa =   উপহার
  • তাখমীনা = Takhmina =   অনুমান
  • তাযকিয়া   = Tajkia = পবিত্রতা
  • তাসলিমা = Taslima =   সর্ম্পণ
  • তাসমিয়া  = Tasmia =   নামকরণ
  • তাসনীম = Tasnim = বেহেশতের ঝর্ণা
  • তাসফিয়া = Tasfia = পবিত্রতা
  • তাসকীনা = Taskina = সান্ত্বনা
  • দীবা   = Diba =   সোনালী
  • বিলকিস   = Bilkis =   রাণী
  • আনিকা  = Anika =  রুপসী
  • তাবিয়া   = Tabia =   অনুগত
  • তাসমীম = Tasmim = দৃঢ়তা
  • তাশবীহ = Tashbih = উপমা
  • তাকিয়া  = Takia =   চরিত্র
  • তাকমিলা = Taklima = পরিপূর্ণ
  • তামান্না = Tamanna = ইচ্ছা
  • তামজীদা = Tamjida = মহিমা কীর্তন
  • আফরা = Afra =সাদা
  • সাইয়ারা = Saiyara =তারকা
  • আফিয়া = Afia = পুণ্যবতী
  • মাহমুদা = Mahmuda = প্রশংসিতা
  • রায়হানা = Rayhana = সুগন্ধি ফুল
  • হাসিনা = Hasina =সুন্দরি
  • হাবীবা = Habiba =প্রিয়া
  • ফারিহা = Faria = সুখি
  • দীবা = Diba = সোনালী
  • বিলকিস = Bilkis = রাণী
  • আনিকা =Anika = রুপসী
  • তাবিয়া = Tabia = অনুগত
  • তাবাসসুম = Tabassum = মুসকি হাসি
  • তাসনিয়া = Tasnia = প্রশংসিত
  • তাহসীনা = Tahsina = উত্তম
  • তাহিয়্যাহ = Taiyah = শুভেচ্ছা
  • তোহফা = Tohfa = উপহার
  • তাখমীনা = Takhmina = অনুমান
  • তাযকিয়া = Tajkiya = পবিত্রতা
  • তাসলিমা = Taslima = সর্ম্পণ
  • তাসমিয়া = Tasmia = নামকরণ
  • তাসনীম = Tasnim = বেহেশতের ঝর্ণা
  • তাসফিয়া = Tasfiya = পবিত্রতা
  • শামিখা = Shamikha  = সুন্দরী
  • শারিকা  = Sahriqa  = দৃঢ় / উচ্চ / উন্নত / মহিরূপ
  • শাম্মা  = Shamma  = উজ্জল, মেয়েদের আনকমন নামের তালিকা।
  • শায়মা  = Shayma  = সুন্দর
  • শাফীকা = Shafiqa  = সুপারিশ কারিনী
  • শাকীলা  = Shakila  = স্নেহশীলা
  • হানিয়া = Hania =  সুখী, তৃপ্ত, খুশী
  • হামীমা = Hamima =  অন্তরঙ্গ বান্ধবী
  • হাসানা = Hasana =  সুন্দর, সুকর্ম
  • হাবীবা = Habiba =  প্রিয়, প্রিয়তমা, সাহাবীর নাম
  • সালীমা  = Salima =  সুস্থ
  • সারাফ ওয়াসিমা  = Sharaf Owasima =  গানরত সুন্দরী
  • সায়ীদা  = Saida =  পুন্যবতী
  • সাবিহা  = Sabiha =  রূপসী / দ্রুতগামি অশ্ব
  • সাকেরা  = Sakera =  কৃতজ্ঞতা প্রকাশকারী, পাকিস্তানি মেয়ে শিশুর নাম
  • সানজীদাহ  = Sanjidah =  বিবেচক
  • সীমা / সিমা  = Sima =  কপাল, দুই অক্ষরের মেয়েদের আধুনিক নাম।
  • সুবাহ  = Subha =  প্রভাত
  • সুফিয়া  = Sufia =  আধ্যাত্মিক সাধনাকারী
  • হুমাইরা = Humaira =  অর্থ – লাল রঙের পাখি
  • হাফেজা = Hafeza =  সংরক্ষণকারিণী, কোরান হেফজকারিণী
  • শামসিয়া = Shamsia  = প্রদীপ
  • শাহবা  =  Shaba  = ছাতা
  • শাহলা  =  Shahla  = বাঘিনী
  • তাসকীনা = Taskina = সান্ত্বনা
  • তাসমীম = Tasmim = দৃঢ়তা
  • তাশবীহ = Tashbih = উপমা
  • তাকিয়া  = Takia =  শুদ্ধ চরিত্র
  • তাকমিলা = Taklima = পরিপূর্ণ
  • তামান্না = Tamanna = ইচ্ছা
  • তামজীদা = Tamjida = মহিমা কীর্তন
  • তাহযীব = Tahjib = সভ্যতা
  • তাওবা = Tawba = অনুতাপ
  • তানজীম = Tanjim = সুবিন্যস্ত
  • তাহিরা = Tahira = পবিত্র
  • তবিয়া = Tobia = প্রকৃতি
  • তরিকা = Torika = রিতি-নীতি
  • তাইয়্যিবা = Taiyiba = পবিত্র
  • তহুরা = Tohura = পবিত্রা
  • তুরফা = Turfa = বিরল বস্তু
  • তাহামিনা = Tahamina = মূল্যবান
  • তাহমিনা = Tahmina = বিরত থাকা
  • তানমীর  = Tanmir =  ক্রোধ প্রকাশ করা
  • ফরিদা = Forida = অনুপম
  • ফাতেহা = Fateha = আরম্ভ
  • ফাজেলা = Fajela = বিদুষী
  • ফাতেমা = Fatema = নিষ্পাপ
  • ফারাহ = Farah = আনন্দ
  • ফারহানা = Farhana = আনন্দিতা
  • ফারহাত = Farhat = আনন্দ
  • ফেরদাউস  = Ferdaus =   বেহেশতের নাম
  • ফসিহা = Fsiha = চারুবাক
  • ফাওযীয়া = Fawjiya = বিজয়িনী
  • মালিহা = Maliaha = রুপসী
  • ফারজানা = Farjana = জ্ঞানী
  • পারভীন = Parbin = দীপ্তিময় তারা
  • ফিরোজা = Piroja = মূল্যবান পাথর
  • ফজিলাতুন = Pojilatun = অনুগ্রহ কারিনী
  • ফাহমীদা = Pahmida = বুদ্ধিমতী
  • ফাবিহা বুশরা = Fabiha Busra = অত্যন্ত ভাল শুভ
  • মোবাশশিরা = Mubashsira = সুসংবাদ বাহী
  • মাজেদা = Majeda = সম্মানিয়া
  • মাদেহা = Madeha = প্রশংসা
  • মারিয়া = Maria = শুভ্র
  • মাবশূ রাহ = Mabush Rah = অত্যাধিক সম্পদশালীনী,
  • মুতাহাররিফাত = Mutahar rifat = অনাগ্রহী
  • মুতাহাসসিনাহ = Mutahassinah = উন্নত
  • মুতাদায়্যিনাত = Mutadainat = বিশ্বস্ত ধার্মিক মহিলা,
  • মাহবুবা = Mahbuba = প্রেমিকা
  • মুহতারিযাহ = Muhtarijah = সাবধানতা অবলম্বন কারিন

উপরে যে নামগুলো রয়েছে, সেখানে এলোমেলোভাবে ছেলে ও মেয়ে উভয়ের জন্যই রয়েছে অসংখ্য নাম। সেখান থেকেও আপনারা আপনার মেয়ে কিংবা ছেলের জন্য একটি অর্থবহ ইসলামিক নাম চয়েজ করতে পারেন। সর্বপরি, আশা করি ছেলে ও মেয়েদের ইসলামিক নাম সম্পর্কে জানতে পেরে আজকের আর্টিকেলটি দ্ধারা আপনারা চমৎকারভাবে উপকৃত হতে পেরেছেন।

ইসলামিক নাম নিয়ে শেষ কথা

ইসলামিক নাম সম্পর্কিত ইতিমধ্যে অনেকগুলো নাম জানলাম এবং এখন হতে যদি কোনো গার্ডিয়ান তাদের ছেলে অথবা মেয়ে সন্তানের জন্য নাম সিলেক্ট করে রাখতে চায়, তাহলে কোনো রকম দ্ধিধাগ্রস্থতা ছাড়াই যেকোনো একটি নাম চয়েজ করে রাখতে পারে।

স্বাভাবিকভাবে একজন গার্ডিয়ান যখন তাঁর ছেলে কিংবা মেয়ে সন্তানের জন্য একটি ভালো নাম চয়েজ করতে চায়, তখন অবশ্যই তাঁর ধর্মীয় দিকগুলোকে বেশি বিবেচনা করে একটি সুন্দর নাম রাখতে হয়। আর একইভাবে যখন মুসলিম ঘরে কোনো শিশু জন্মগ্রহণ করে, তখন তাঁর পিতা ও মাতার উপর এক্সট্রা একটি প্রেসার বা চাপ তৈরি হয় নাম রাখা নিয়ে। তবে অবশ্য এরকম দুচিন্তা এবং প্রেসারকে কিছুটা হলেও লাঘব করার জন্য ইসলামিক নামের আমাদের এই আর্টিকেলটি।

ইসলামিক নাম নিয়ে প্রশ্ন-উত্তর

উল্লেখিত ইসলামিক নামগুলো কি সবার জন্য প্রযোজ্য?

হ্যা, এখানে উল্লেখিত সবগুলো ইসলামিক নাম যেকেউ তাঁর সন্তানের নাম রাখার ক্ষেত্রে ব্যবহার করতে পারে।

ছেলেদের ইসলামিক নাম গুলো কি মেয়েদের ক্ষেত্রে ব্যবহার করা যাবে?

এর উত্তর অবশ্যই না। কেননা ছেলে এবং মেয়ে উভয় ভিন্ন। এবং তাই ছেলে ও মেয়ের নাম রাখার ক্ষেত্রে আমাদেরকে অবশ্যই উক্ত দিকটি বিবেচনায় রাখতে হবে।

মেয়েদের ইসলামিক নাম গুলো কোথায় উৎপত্তি হয়েছে?

মূলত ছেলে ও মেয়ে ও উভয়ের নামগুলো হলো ইসলামিক নাম এবং কোথায় উৎপত্তি হয়েছে এর চেয়ে ‍গুরুত্বপূর্ণ দিকটি হলো একজন মুসলিম পরিবারে জন্ম নেওয়া শিশুর ‍জন্য উক্ত নামগুলো কোনো রকম

ইসলামিক নাম সম্পর্কে আরো জানতে

BanglaTeach
E-HaqDigital Marketer at- BanglaTeach

E-Haq is the founder of BanglaTeach. He is expertise on Education, Health, Financial, Banking, Religious and so on.

2 thoughts on “ইসলামিক নাম (২৫০০+) | ছেলে ও মেয়েদের ইসলামিক নাম অর্থসহ”

Leave a Comment