বিকাশ রিওয়ার্ড পয়েন্ট কী? কীভাবে ব্যবহার করব এবং এর সুবিধা

BanglaTeach
E-Haq
Digital Marketer at- BanglaTeach

E-Haq is the founder of BanglaTeach. He is expertise on Education, Health, Financial, Banking,...

Sharing is caring!

বিকাশ রিওয়ার্ড পয়েন্ট কী
বিকাশ রিওয়ার্ড পয়েন্ট কী

বিকাশ রিওয়ার্ড কি – bkash reward ? বিকাশ রিওয়ার্ড পয়েন্ট কিভাবে ব্যবহার করব এবং এর সুবিধাসমূহ জানার পূর্বে বিকাশ রিওয়ার্ড পয়েন্ট নিয়ে সংক্ষিপ্তে কিছু কথা না বললেই নয়। তাই চলুন মনোযোগ সহকারে কিছু পয়েন্ট পড়বেন, যা আপনাকে উপকৃত হতে সহায়তা করবে।

বিকাশ রিওয়ার্ড কি? মূলত বিকাশ তাঁর গ্রাহকদের জন্য লেনদেনের মাধ্যমে কিছু পয়েন্ট অর্জন করার সবিধা দিয়েছে। যা ব্যবহার করার মাধ্যমে আপনি বিকাশ থেকে কিছু স্পেসিফিক বোনাস তথা ক্যাশব্যাক এর মতো সুবিধা পেতে পারেন। আর তাকেই বিকাশ রিওয়ার্ডস বলে।

আপনি যদি বিকাশে কোনো ধরনের লেনদেন করে থাকেন হোক সেটা সেন্ড মানি, ক্যাশ আউট, পেমেন্ট, বিল পরিশোধ সহ ইত্যাদি ধরনের আর্থিক লেনদেন, তাহলে আপনি তৎক্ষণাৎ পেয়ে যাবেন নির্দিষ্ট কিছু বিকাশ পয়েন্ট। যা পরবর্তীতে আপনি ব্যবহার করে ক্যাশব্যাক কিছু টাকা আয় করতে পারেন। ধরুণ একজন ব্যক্তির বিকাশ একাউন্ট রয়েছে এবং তিনি নিয়মিত লেনদেনের মাধ্যমে পয়েন্ট অর্জন করেছে। এমতোবস্থায় এখন প্রশ্ন আসতে পারে যে, বিকাশ রিওয়ার্ড পয়েন্ট ঐ ব্যক্তি কিভাবে ব্যবহার করবে? হ্যাঁ, এই প্রশ্নের সমাধান নিয়েই আজকের আর্টিকেলটি। চলুন তাহলে বিকাশ রিওয়ার্ড পয়েন্ট কিভাবে ব্যবহার করব সে সম্পর্কে বিস্তারিত জানা যাক।

বিকাশ রিওয়ার্ডস নিয়ে সংক্ষিপ্ত বর্ণনা

বিকাশ রিওয়ার্ডস নিয়ে সংক্ষিপ্ত বর্ণনা
বিকাশ রিওয়ার্ডস নিয়ে সংক্ষিপ্ত বর্ণনা

সাধারণত বিকাশ কর্তৃপক্ষ পয়েন্টের পরিমাণকে কেন্দ্র করে বিকাশ রিওয়ার্ড কে কয়েকটি ভাগে ভাগ করেছে। সেগুলো হলো-

  • ব্রোঞ্জ
  • সিলভার
  • টাইটেনিয়াম
  • গোল্ড
  • প্লাটিনাম
  • ডায়মন্ড

ব্রোঞ্জ: বিকাশ রিওয়ার্ডস এর ব্রোঞ্জ ব্যবহার করতে চাইলে আপনার সর্বনিম্ন পয়েন্ট হতে হবে ১৫০০ পয়েন্ট। আর এই ক্ষেত্রে আপনি পে বিল করে ১০ টাকা ক্যাশব্যাক পেতে পারেন। পেমেন্ট করে ১৫ টাকা ক্যাশব্যাক পেতে পারেন এবং সর্বপরি, মোবাইল রিচার্জ এর মাধ্যমে ১০ টাকা ক্যাশব্যাক পেতে পারেন। এখানে উল্লেখ্য যে, উপরোক্ত সবগুলো ক্যাশব্যাক পেতে আপনার জমাকৃত ১৫০০ পয়েন্ট ব্যবহৃত হবে।

সিলভার: অনুরূপ ভাবে সিলভারেও আপনারা বেশ কিছু ক্যাশব্যাক পেতে পারেন পয়েন্ট ব্যবহার করে। মূলত এই সেকশনে আপনাকে ক্যাশব্যাক পেতে হলে মোট ২৫০০ পয়েন্ট ব্যবহার করতে হবে। এই ক্ষেত্রে পে –বিল করে পেতে পারেন ২৫ টাকা ক্যাশব্যাক, পেমেন্ট করে ৩০ টাকা এবং মোবাইল রিচার্জ করে ২০ টাকা ক্যাশব্যাক উপভোগ করতে পারেন।

টাইটেনিয়াম: একইভাবে টাইটেনিয়ামের বিকাশ রিওয়ার্ডস পেতে হলে আপনাকে ৩৫০০ পয়েন্ট সর্বনিম্ন থাকতে হবে। অর্থাৎ পে বিল করে ৪০ টাকা পেতে পারেন তবে ৩৫০০ পয়েন্ট খরচ হবে। একইভাবে পেমেন্ট করে ৪৫ টাকা অর্জন করবেন, এই ক্ষেত্রেও ৩৫০০ পয়েন্ট ব্যয় হবে। অন্যদিকে মোবাইল রিচার্জ করে মাত্র ৩০ টাকা পেতে পারেন।

গোল্ড: গোল্ড বিকাশ রিওয়ারডস ব্যবহার করতে হলে আপনাকে সর্বনিম্ন ৫০০০ পয়েন্ট ব্যবহার করতে হবে। আর সেই ক্ষেত্রে আপনি পে বিল করে পেতে পারেন  ৬০ টাকা ক্যাশব্যাক, পেমেন্ট করে পেতে পারেন ৭০ টাকা ক্যাশব্যাক সহ মোবাইল রিচার্জ করে পেতে পারেন ৫০ টাকা।

প্লাটিনাম: গোল্ড এর পর বিকাশ রিওয়ার্ডস প্লাটিনাম। এখানে একজন বিকাশ ব্যবহারকারীর সর্বনিম্ন খরচ করতে হবে ৫০০০ পয়েন্ট। এই ৫০০০ হাজার পয়েন্ট এ আপনি পে বিল করে ৭০ টাকা ক্যাশব্যাক পেতে পারেন। পেমেন্ট করে পেতে পারেন ৮০ টাকা এবং মোবাইল রিচার্জ করে পেতে পারেন ৬০ টাকা।

ডায়মন্ড: বিকাশের সর্বশেষ রিওয়ার্ড হচ্ছে ডায়মন্ড। এটির ক্ষেত্রেও আপনাকে সর্বনিম্ন ৫ হাজার পয়েন্ট ব্যবহার করতে হবে। এই পাঁচ হাজার পয়েন্ট ব্যবহার করে আপনি পে বিল করে ৮০ টাকা ক্যাশ ব্যাক পেতে পারেন। পেমেন্ট করে পেতে পারেন ১০০ টাকা ক্যাশব্যাক সহ রিচার্জ করে পেতে পারেন ৭০ টাকা মাত্র।

যাইহোক, আশা করি বিকাশ রিওয়ার্ডস নিয়ে আপনাদের ইতিমধ্যে এটি ব্যাসিক ধারণা তৈরি হয়েছে। এবার চলুন কিভাবে বিকাশ রিওয়ার্ড ব্যবহার করব, সে সম্পর্কে বিস্তারিত জানা যাক। সর্বশেষ আমরা জানবো বিকাশ রিওয়ার্ডও এর সুবিধা ও অসুবিধা সমূহ।

বিকাশ রিওয়ার্ড পয়েন্ট ব্যবহার করার নিয়ম

উপরে আমরা বিকাশ রিওয়ার্ডস নিয়ে সংক্ষিপ্তে জেনেছি। এখন জানবো আমাদের সংগ্রিহীত এই রিওয়ার্ড পয়েন্টগুলো কিভাবে ব্যবহার করতে পারি। বিকাশ রিওয়ার্ড পয়েন্ট ব্যবহার করার নিয়ম হলো-

  • প্রথমে আপনি বিকাশ অ্যাপস এ যাবেন।
  • এরপর অ্যাপসের ডান দিকে উপরে রিওয়ার্ডস টাইপ একটি সাইন আছে, ঐটাতে ক্লিক করুন।
  • এবার আপনি আপনার সংগ্রিহীত পয়েন্ট দেখতে পারবেন।
  • উপরোক্ত আলোচনা বা সেখানে নির্দেশিত কাঙ্খিত পয়েন্ট দিয়ে আপনার সংগ্রিহীত পয়েন্ট তুলনা করবেন এবং দেখবেন আপনি কোন সেকশনটি ব্যবহার করতে পারবেন। অর্থাৎ আপনার সংগ্রিহীত পয়েন্ট দ্ধারা আপনি কি ব্রোঞ্জ, গোল্ড, সিলভার সহ কোন সেকশনটি ব্যবহারের উপযোগী, ঐটা সিলেক্ট করুন। ধরুণ আপনার পয়েন্ট আছে ৫০০ হাজার। আপনি আপাতত সিলভার সেকশনটি ব্যবহার করতে চান। তাহলে সিলভার সেকশনে ক্লিক করুন।
  • এবার আপনি সেকশটিতে ক্লিক করে ঐটার ইন্টারফেজে চলে যান এবং আপনি কোন ধরনের ক্যাশব্যাক অফারটি নিতে চান? রিচার্জ, পে বিল নাকি পেমেন্ট। ধরুণ আপনি পেমেন্ট করে ক্যাশব্যাক পেতে চান। তাহলে আপনি পেমেন্টে ক্রিক করুন। সাথে সাথে আপনার মোট পয়েন্ট হতে ২৫০০ পয়েন্ট কেটে যাবে।
  • এরপর যখন আপনি যেকোনো পরিমাণ পেমেন্ট করবেন আপনার বিকাশ একাউন্ট হতে, সাথে সাথে তখন ৩০ টাকা ক্যাশব্যাক পেয়ে যাবেন।

মূলত এভাবেই আপনাকে সহ সকল বিকাশ ব্যবহারকারী বিকাশ রিওয়ার্ড পয়েন্ট ব্যবহার করে আকর্ষণীয় ক্যাশব্যাক পেতে পারে। আশা করি বিকাশ রিওয়ার্ডস পয়েন্ট কিভাবে সঠিক উপায়ে ব্যবহার করতে হয়, সে সম্পর্কে বিস্তারিত জেনেছেন। এবার চলুন বিকাশ সম্পর্কিত আনুসাঙ্গিক আরো অনেক কিছু জানা যাক।

বিকাশ রিওয়ার্ড এর সুবিধা

বিকাশ রিওয়ার্ড এর সুবিধা
বিকাশ রিওয়ার্ড এর সুবিধা

অনেকে বিকাশ রিওয়ার্ড এর সুবিধা নিয়ে জানতে চায়। অর্থাৎ উক্ত অপশনটি দ্ধারা একজন গ্রাহক কিভাবে তাঁর প্রত্যাহিত জীবনে উপকৃত হতে পারে? চলুন জেনে নেওয়া যাক বিকাশ রিওয়ার্ড এর সুবিধাসমূহগুলো-

পূর্বে বিকাশে সব ধরনের লেনদেন করলে কোনো রকমের পয়েন্ট বা ক্যাশব্যাক পাওয়া যেতো না। কিন্তু বর্তমানে বিকাশ কর্তৃপক্ষ আমাদের জন্য বিকাশ পয়েন্টস এর ব্যবস্থা করে রেখেছে। অর্থাৎ যখন আমরা কোনো ধরনের আর্থিক লেনদেন করবো, তখন লেনদেনের উপর নির্ভর করে নির্দিষ্ট পরিমাণ বিকাশ রিওয়ার্ড পয়েন্ট পাবো। যেগুলো দ্ধারা পরোক্ষণে নানা ধরনের ক্যাশব্যাক পাবো।

মূলত এটিই হলো বিকাশ রিওয়ার্ড এর সুবিধা। আশা করি আপনারা যারা এতোক্ষণ বিকাশ রিওয়ার্ড এর সুবিধা নিয়ে জানতেন না, তাঁরা এখন এই সম্পর্কে জ্ঞাত।

বিকাশ রিওয়ার্ডস সম্পর্কিত কিছু তথ্য

বিকাশ রিওয়ার্ড পয়েন্ট কি, কিভাবে ব্যবহার করতে হয় এবং এর সুবিধা সমূহ সহ ইত্যাদি সম্পর্কে আমরা জেনেছি। এবার চলুন বিকাশ রিওয়ার্ড নিয়ে ভিন্ন কিছু জানা যাক। যেমন কিভাবে পয়েন্ট এর পরিমাণ বৃদ্ধি করা যায় সহ ইত্যাদি।

  • বিকাশ রিওয়ার্ডস এর লেভেল বাড়াতে হলে একজন বিকাশ ইউজারকে বেশি বেশি পয়েন্ট অর্জন করতে হবে।
  • আর যখন আপনি বেশি পয়েন্ট অর্জন করতে যাবেন তখন বিকাশের মাধ্যমে লেনদেন এর পরিমাণ বৃদ্ধি করতে হবে।
  • আপনার বিকাশ রিওয়ার্ডসের লেভেল সম্পর্কে ডিটেইলস জানতে উপরের নির্দিষ্ট রিওয়ার্ডসের উপর ট্যাপ করলেই জানতে পারবেন।
  • সংগ্রিহীত বিকাশ পয়েন্ট ব্যবহার করে আপনার ইচ্ছা অনুযায়ী বিকাশ ক্যাশব্যাক এর মতো রিওয়ার্ড পেতে পারেন। এবং সর্বপরি বিকাশ রিওয়ার্ডস এর সুবিধা উপভোগ করুন।
  • বকি যে সকল লেভেল রয়েছে, সে লেভেলগুলো আনলক করতে বেশি বেশি পয়েন্ট অর্জন করুন। এবং পয়েন্ট অর্জন করতে বেশি বেশি বিকাশ দ্ধারা লেনদেন করুন।

এভাবেই বিকাশ রিওয়ার্ডস এর ধারাবাহিক চক্র চলতে থাকে। আর আপনি একবার ক্যাশব্যাক পাবেন এবং একবার পয়েন্ট পাবেন। আপনার পয়েন্ট ব্যবহার করবেন। মূলত আপনার বিকাশ একাউন্ট থাকা কালীন অবস্থায় সব সময় উক্ত চক্র চলতেই থাকবে।

বিকাশ রিওয়ার্ড নিয়ে প্রশ্ন-উত্তর

বিকাশ রিওয়ার্ডসের অপশান কোথায় পাবো?

বিকাশ রিওয়ার্ড এর অপশানটি হলো বিকাশ এপস এর ডানদিকে ঠিক উপরে। সেখানে এখটি রিওয়ার্ডস টাইপ সাইন রয়েছে। যেটাতে আপনি ক্লিক করলেই বিকাশ রিওয়ার্ড অপশনটি পেয়ে যাবেন।

বিকাশ রিওযার্ড পয়েন্ট এর মেয়াদ কত দিন?

এখন অবধি বিকাশ কর্তৃপক্ষ বিকাশ পয়েন্টগুলো মেয়াদ আন-লিমিটেড রেখেছে। তবে বিকাশ কর্তপক্ষ যেকোনো সময় সিদ্ধান্ত চেঞ্জ করলে এর মেয়াদ তখনেই কার্যকর হবে।

বিকাশ রিওয়ার্ড নিয়ে শেষ কথা

বিকাশ রিওয়ার্ড নিয়ে শেষ কথা

বিকাশ রিওয়ার্ড কি তা নিয়ে ইন্টারনেটে প্রচুর পরিমাণ সার্চ হয়ে থাকে। যে বিধায় আজকের আর্টিকেলে আমরা বিকাশ রিওয়ার্ড নিয়ে বিস্তারিত আলোচনার চেষ্টা করেছি। আবার অন্য দিকে অনেকে বিকাশ রিওয়ার্ড এর ব্যবহার পদ্ধতি সহ পয়েন্ট নিয়ে নানা রকম দ্ধিধাগ্রস্থতায় রয়েছে। সার্বিকভাবে তাদের উদ্দেশ্যেই আজকের আর্টিকেলটি।

বিকাশ রিওযার্ড পয়েন্ট কিভাবে ব্যবহার করব এই প্রশ্নটি আশা করি আজ থেকে আর না করলেই চলবে। কেননা বিকাশ রিওয়ার্ড পয়েন্ট এর পদ্ধতি নিয়ে উপরে বিস্তারিত আলোচনা করেছি। মূলত বিকাশ কর্তৃপক্ষ তাদের গ্রাহকদের সুবিধা দেওয়ার উদ্দেশ্যে নানা রকম পদ্ধতি বা উপায় গ্রহণ করে থাকে। আর তাঁর মধ্যে অন্যতম একটি সিদ্ধান্ত হলো বিকাশ রিওয়ার্ডস।

আর্টিকেলের সর্বশেষে একটি বাক্য বলা চলে যে, আপনি যদি একজন বিকাশ ব্যবহারকারী হয়ে থাকেন, তাহলে আজকের আর্টিকেলটি দ্ধারা আপনি বিকাশ রিওয়ার্ড পয়েন্ট সহ কিভাবে ব্যবহার করব এবং এর সুবিধা সমূহ ইত্যাদি সম্পর্কে জানতে পেরে উপকৃত হতে পেরেছেন।

বিকাশ রিওয়ার্ড সম্পর্কে আরো জানতে

BanglaTeach
E-HaqDigital Marketer at- BanglaTeach

Leave a Comment