মেয়েদের ইসলামিক নাম অর্থসহ | ইসলামিক নাম মেয়েদের

BanglaTeach
E-Haq
Digital Marketer at- BanglaTeach

E-Haq is the founder of BanglaTeach. He is expertise on Education, Health, Financial, Banking,...

Sharing is caring!

মেয়েদের ইসলামিক নাম
মেয়েদের ইসলামিক নাম

মেয়েদের ইসলামিক নাম অর্থসহ বা ইসলামিক নাম মেয়েদের সম্পর্কে তখনই একজন গার্ডিয়ান জানতে চায়, যখন তাঁর একটি সদ্য মেয়ে জন্ম হয়েছে । অর্থসহ নাম জেনেই একজন গার্ডিয়ানের নাম চয়েজ করা উচিত। অন্যথায় মেয়ে শিশুর জন্য একটি সুন্দর ইসলামিক নাম রাখার চেয়ে বরং নেতিবাচক অর্থবহ একটি নাম সিলেক্টের সম্ভাবনাই বেশি থাকে। তবে যাইহোক, যেহেতু রিডারগণ ইন্টারনেটে সার্চ করে তাদের সদ্য জন্ম নেওয়া বাচ্ছা বা মেয়ে বাবুর জন্য একটি সুন্দর ও অর্থবহ নাম রাখতে চায়, সেহেতু নিম্নোক্ত নামের তালিকায় মেয়েদের জন্য সবগুলোই ইসলামিক নাম দেওয়া হয়েছে।

একটি ইসলামিক সুন্দর নাম মানুষের মধ্যে বৈচিত্র্যতা নিয়ে আসে আর সেই বিধায় নাম রাখার ক্ষেত্রে বর্তমানে গার্ডিয়ানগণ বেশ সচেতন। যখনই তাঁর সন্তানের জন্য নাম রাখতে চায়, ঠিক তখনই তাঁর নিকট যদি মেয়েদের নামের একটি তালিকা থাকে, তাহলে বিষয়টি প্রকৃত অর্থেই অদ্ভুত ও উপকারী হবে। আর এই কারণেই যারা জ্ঞান পিপাসুর অর্থে অথবা নিজের নামের অর্থ জানার জ্ঞাতে অথবা সদ্য বাচ্চা জন্ম নেওয়া শিশর জন্য ভালো একটি নাম রাখতে চান, সে সকল পাঠকগণ আশা করি বেশ ভালো ও অর্থবহ কযৈকটি সুন্দর মেয়েদের ইসলামিক নিাম খুঁজে পাবে। আলোচনা বিলম্ব না করে চলুন জেনে নেওয়া যাক মেয়েদের ইসলামিক নাম অর্থসহ। ( মেয়েদের আধুনিক নাম সহ পাকিস্তানি মেয়েদের নাম সম্পর্কে পড়ুন )

মেয়েদের ইসলামিক নাম এর তালিকা

মেয়েদের ইসলামিক নাম এর তালিকা
মেয়েদের ইসলামিক নাম এর তালিকা

বিশেষ করে শিশু মেয়েদের ইসলামিক নাম রাখার ক্ষেত্রে কিছু কিছু আত্মীয় বা গার্ডিয়ান তথা পিতা-মাতার বেশ বেগে পরতে হয়। তবে যদি যথেষ্ট পরিমাণ ইসলামিক জ্ঞান তথা ইসলামিক ধারণা রাখতে পারে নিজের মধ্যে, তবে মেয়ে সন্তানের জন্য নাম চয়েজ করার ব্যাপারটি তাদের নিকট খুবই সহজ। যাইহোক, যেহেতু আজকের আর্টিকেলটি মূলত মেয়েদের ইসলামিক নাম নিয়ে, তাই সম্পূর্ণ আর্টিকেল জুড়ে মেয়েদের যে সমস্ত নামগুলো উল্লেখ করা হবে তালিকা আকারে, সবগুলো নামই হব ইসলামিক নাম। আশা করি একজন গার্ডিয়ানের পক্ষে সহজ হবে তাঁর মেয়ে সন্তানের জন্য একটি সুন্দর ইসলামিক নাম রাখার ক্ষেত্রে।

এখন একটি বিষয় বলে রাখা অত্যন্ত গুরুত্বপূর্ণ যে, যখনই আপনারা কোনো একটি নাম চয়েজ করতে যাবেন, তখন অন্তত ৩টি বিষয় লক্ষ্য রাখবেন। কি সেই বিষয়গুলো? তিনটি বিষয় হলো- সন্তানের নামটি ইসলামিক কি-না, নামের অর্থের সাথে শিরকের কোনো সম্পর্ক আছে কি-না এবং সর্বপরি, নামের অর্থটি ইতিবাচক নাকি নেতিবাচক। উক্ত তিনটি বিষয় মাথায় রেখে আপনি খুব সহজেই মেয়ের জন্য একটি ইসলামিক নাম চয়েজ করতে সক্ষম হবেন। এখন নিম্নে মেয়েদের যে ইসলামিক নামের তালিকাটি দেওয়া হয়েছে, সেটাতে উক্ত ৩টি বিষয় লক্ষ্য রেখেই তালিকাটি তৈরি করা হয়েছে। যাইহোক, আলোচনা বিলম্ব না করে চলুন, জেনে নেওয়া যাক মেয়েদের ইসলামিক নাম সমূহ। মেয়েদের ইসলামিক নামগুলো হলো-

  • রামিস আনান =  Ramish Anan  = অত্যন্ত  নিরাপদ মেঘ
  • রামিসা মালিহা  = Ramisa Maliha =  নিরাপদ সুন্দরী
  • জাহিরা = Zahera = প্রকাশিত / প্রভাবশালী
  • জাবিয়া = Zabia = হরিণ
  • জরীফা = Zarifa = বুদ্ধিমতী / চালাক
  • জলীলা =Zalila = আশ্রয়স্থান / বৃক্ষে ঢাকা উদ্যান
  • জায়ীনা = Zayena= সাহায্যকারী
  • জফিরা = Zafira = উটের পিঠের ওপর
  • জুহরাহ = Zuhrah = সম্ভ্রান্ত স্ত্রী লোক
  • তরিকা  = Torika = রিতিনীতি
  • তানজীম  = Tanjim = সুবিন্যস্ত
  • মাইমুন =  Maimun  = আনন্দময়ী একজন
  • মাকনুনা  = Maknuna  = সুপ্ত প্রাপ্ত
  • মাননাত =  Mannat = অতি  দৃঢ়তা
  • মুলায়কাহ   = Mulaikha = ফেরেশতা রূপ নারী
  • মুখতারী   = Mukhtari = স্বাধীন প্রকৃতির  
  • মুখলিসা   = Mukhlisa = খুবই ভালো মনের মানুষ  
  • মুকার্রামা   = Mukarrama = খুবই সৎ এমন একজন মহিলা
  • মুকাইদাসা   = Mukaidasa = খুবই বিখ্যাত শিল্পী  
  • মুজবা   = Mujba = উত্তরদাতা
  • মাহফুজা মালিয়াত   = Mahfuja Maliyat = নিরাপদ সম্পদ কে বোঝায়
  • আজরা হামিদা = Ajra Hamida = কুমারী প্রশংসাকারিনী মেয়ে
  • অনিন্দিতা = Anindita = অনেক সুন্দরী মেয়ে
  • আইদাহ = Aidah = কারো সাথে সাক্ষাৎকারিনী মেয়ে
  • মানাহিলাহা   = Manahilaha = বসন্ত কা
  • মানুবা   = Manuba = সময়ে ভাগ্ করেনি
  • মামুনা   = Mamuna = সৎ মনের মানুষ  
  • মুজাহিদা   = Mujihida = খুবই কষ্ট করে  
  • মুইদা   = Muida = শিক্ষিকা  
  • মুহ্সিনহা   = Muhsina = দানশীল  
  • মাশিলা   = Mashila = এক সুন্দর আলোর আভা
  • সাকেরা = Shakera = কৃতজ্ঞতা প্রকাশকারী নারী।
  • সাবিহা = Sabiha = অত্যন্ত রূপসী।
  • সায়ীদা = Sayida = পুণ্যবতী নারী।
  • সুবাহ = Subha = প্রভাত।
  • সুফিয়া  = Sofia= এমন এক নারী যে আধ্যাত্মিক সাধন করেছে।
  • সরাইয়া = Soryia = একই সাথে সুন্দর ও বিনয়ী।
  • সুমালিয়া = Sumalia = মুখমন্ডল সুন্দর বিশিষ্ট নারী।
  • সুজালা = Sujala = সাহসী এবং অত্যন্ত শক্তিশারী নারী।
  • সেজা = Seja = ধর্মের প্রতি অনুগত ভালো মনের অধিকারী বিশিষ্ট নারী।
  • সুলুফা = Solufa = অগ্রগামী হয়ে যাওয়া।
  • সাজনিন = Shajnin = সৌন্দর্যময় ‍ফুলের ন্যায় নারী।
  • সারমিন = Sarmin = বিনয়ী ও সংযম নারী।
  • সানজা = Sanja = অতিব মর্যাদা ও ভালো চরিত্রের নারী।
  • সামিমা = Samima = সুমিষ্ট গন্ধ।
  • সামিলা = Samila = বন্ধুসুলভ চরিত্রের নারী।
  • সামিসা = Samisa = আকাশের উজ্জ্বল নক্ষত্র।
  • সাকিরা = Sakira = কৃতজ্ঞতা জ্ঞাপন করা নারী।
  • আজরা তাহিরা = Ajra Tahira = স্পষ্ট কুমারী সতী
  • আকলিমা = Aklima = নিজ দেশ
  • আকিলা= Akila = অতি বুদ্ধিমতি
  • আক্তার = Akter = অনেক ভাগ্যবান
  • আছীর = Acir = কারো কাছে পছন্দনীয়
  • আজরা আকিলা = Ajra Akila = স্পষ্ট কুমারী বুদ্ধিমতী মেয়ে
  • আতকিয়া আজিজাহ = Atkia Ajija = অতি ধার্মিক সম্মানিত মেয়ে

উপরোক্ত নামগুলো মূলত হলো মেয়েদের জন্য ইসলামিক নাম। আপনারা যে সমস্ত গার্ডিয়ান সদ্য জন্ম নেওয়া কণ্যা সন্তানের জন্য একটি ভালো ইসলামিক নাম রাখতে চান, তাঁরা এখান হতে যেকোনো সুন্দর একটি নাম চয়েজ করে আপনার মেয়ের জন্য রাখতে পারেন। চলুন নিম্নে দেওয়া নামের তালিকাটি পড়া যাক।

অর্থসহ মেয়ে শিশুদের ইসলামী নাম

উপরে ইতিমধ্যে আমরা বেশ অনেকগুলো ইসলামিক নাম সম্পর্কে জেনেছি। এবার চলুন আরো কিছু বৈচিত্র্যপূর্ণ মেয়েদের নাম সম্পর্কে জানি। যেগুলো একজন গার্ডিয়ান তাঁর মেয়ে সন্তানের জন্য ইসলামিক নাম হিসেবে রাখতে পারে। যে বিধায় এখানে অর্থসহ মেয়ে শিশুর ইসলামী নাম তুলে ধরা হয়েছে।  মেয়েদের ইসলামিক নামগুলো হলো-

  • জুলি  = Juli  = জলনালী / সরু নালা
  • জাকিয়া  = Jakia  = পবিত্র / নিষ্পাপ / নিরপরাধ / নির্দোষ
  • জাকিয়া সুলতানা  = Jakia Sultana  = পবিত্র রাণী / নিরপরাধ শাসক
  • জারা  = Jara  = রাজকুমারী / গোলাম / ছোট্ট প্রজাপতি
  • শীফা =  Shifa  = আরোগ্য
  • শানিমুন  = Shanimun =  হিম পানি
  • শূহরাহ =  Shuhra  = বিশ্বখ্যাত
  • শাহানা  = Shahana  = রাজকুমারী
  • শাহ =  Shah  = বাদশাহ
  • শাহনাজ =  Shahnaj =  রাজগর্ব
  • শরাফাত =  Sharafat  = ভদ্রতা
  • শাকুরা  = Shakura =  অত্যন্ত কৃতজ্ঞ
  • শাহনাজ  = Shahnaj  = দুলহান
  • শায়েরাহ =  Shaerah  = মহিলা কবি
  • শিফফাত =  Shiffat  = নড়াচড়া
  • শারিফাতুন =  =  Sharifatun = অনেক ভদ্র মহিলা
  • শামীমাহ =  Shamimah =  অতি সুগন্ধি
  • শাহনুন =  Shahnun  = কাউকে হাকানো
  • শারমিলা  = Sharmila  = লজ্জাবতী, লজ্জা পাওয়া
  • শায়মা  = Shaima =  শরীরের যতি চিহ্ন
  • শাহবা  = Shahla  = বাঘিনী
  • শামিখা  = Shamikha  = দৃড়
  • শাহিদা আখতার  = Shahida Akhter  = উপস্থিত তারকা
  • শফীকুন্নিসা  = Shafikun Nisa  = অতি স্নেহশীল মহিলা
  • রামিস মুনিয়াত =  Ramish Muniyat  = নিরাপদ ইচ্ছা পোষণ করা
  • রামিস মুবাশশিরা  = Ramish Mubasshira  = নিরাপদ সুসংবাদ দেওয়া
  • রামিস মালিয়াত =  Ramish Maliyat  = অত্যন্ত  নিরাপদ সম্পদ
  • রামিস লুবনা =  Ramish Lubna  = অতি নিরাপদ বৃক্ষ
  • রামিস ফারিহা  = Ramish Fariha  = নিরাপদ সুখী
  • রামিস বাশারাত =  Ramish Basharat  =অত্যন্ত  নিরাপদ শুভসংবাদ
  • রামিস আতিয়া  = Ramish Atiya  = অতি নিরাপদ উপহার

আপনারা আরো অনেকগুলো মেয়েদের নাম সম্পর্কে জানলেন এবং পড়লেন। আশা করি ইতিপূর্বে আপনারা এই নাম সক্রান্ত বিষয়ে বেশ ভালো একটি বাহ্যিক জ্ঞান লাভ করতে সক্ষম হয়েছেন। উপরে দেওয়া নামগুলো হতে কিংবা নিম্নে দেওয়া নামের তালিকা হতে আপনারা আপনাদের সন্তানের জন্য যেকোনো একটি নাম চয়েজ করতে পারেন এবং তা পরবর্তীতে নাম হিসেবে রাখতে পারেন।

মেয়েদের আরবি নাম অর্থসহ

মেয়েদের নাম রাখার ক্ষেত্রে যখন টপিক আসে ইসলামিক নাম রাখার জন্য, তখন আমাদের মধ্যে অনেকে ডিরেক্ট মেয়েদের আরবি নামে চলে যায়। তবে মেয়েদের আরবি নাম অর্থসহ জানতে পারলে সবচেয়ে বেশি ইফেক্টিভ হয়। আর এই কারণেই আজকের আর্টিকেলে আমরা বেশ অনেকগুলো  মেয়েদের ইসলামিক নাম নিয়ে আলোচনা করেছি। নিম্নে আরো অনেকগুলো মেয়েদের নাম  তুরে ধরা হয়েছে। চলুন সেগুলো সম্পর্কে জানা যাক।

  • জেসমিন‌ ‌=‌ ‌Jesmin = ফুলের‌ ‌নাম।‌ ‌
  • জোয়া‌ ‌= Joya = সত্যিকরে‌ ‌জীবিত‌ ‌একটি‌ ‌মেয়ের‌ ‌জন্য‌ ‌একটি‌ ‌জনপ্রিয়‌ ‌আধুনিক‌ ‌নাম‌ ‌
  • জাওহারা= Zawara = হীরা / মূল্যবান পাথর
  • জুওয়াইরিয়া = Zuwayria =ছোটমেয়ে
  • জাদওয়াহ  = Jadoyah  = উপহার
  • জুলফা  = Julfa  = বাগান
  • জালসান  = Jalsan  = বাগান
  • জুই / জুঁই  = Jui  = ফুলের নাম
  • জুথী / জুথীকা  = Juthi / Juthika  = নবমালিকা / জুঁই
  • জুহি  = Juhi  = ফুল বিশেষ
  • জিমি  = Jimi  = উদার
  • জারিন  = Jarin  = স্বর্ণ / স্বর্ণের তৈরি / সোনালী / সুবর্ণ
  • জারিন তাসনিম  = Jarin Tasnim  = সুবর্ণ ঝর্ণা
  • জেরিন  = Jerin  = সোনালী / সুবর্ণ / স্বর্ণ / স্বর্ণের তৈরি
  • জোহা  = Joha  = প্রতীক্ষা করা / প্রত্যাশা / অনুসন্ধান করা
  • রানা আতিয়া  = Rana Atiya  = সুন্দর উপহার এমন কিছু
  • রানা আনজুম  = Rana Anjum  =  অত্যন্ত  কমনীয় তারা
  • রানা আদিবা  = Rana Adiba  = অত্যন্ত  সুন্দর শিষ্টাচারী
  • রানা আবরেশমী  = Rana Abreshmi  = সুন্দর কমনীয় প্রভাত
  • রামিস যাহরা =  Ramish Zahra  = অত্যন্ত  নিরাপদ ফুল
  • জাইয়ানা  = Jaiyna  = শক্তি
  • তাখমীনা  = Takhmina = অনুমান
  • তাসমীম  = Tasmim = দৃঢ়তা
  • তাশবীহ  = Tasbih = উপমা
  • আতকিয়া আয়মান = Atkia Ayman = ধার্মিক শুভ মেয়ে
  • আতকিয়া ফাইরুজ = Atkia Fairuj = ধার্মিক সমৃদ্ধিশালী মেয়ে
  • আতকিয়া ফাওজিয়া = Atkia Fawjia = ধার্মিক সফল মেয়ে
  • আতকিয়া ফাখেরা = Atkia Fakhera =ধার্মিক মর্যাদাবান মেয়ে
  • আতকিয়া ফান্নানা = Atkia Fannana = ধার্মিক শিল্পী মেয়ে
  • সোহানা =Sahana = কোমল হৃদয় সম্পন্ন নারী।
  • সারফিনা = Sarpina = পরিষ্কার পরিচন্ন পছন্দ করা নারী।
  • সুহেলা = Suhela = সাবলীল নারী বা প্রসিদ্ধ ভদ্র নারী।
  • সুমিরাহ = Sumira = রাজার কণ্যা বা রাজকুমারী।
  • সাফিখা = Shafia = অতি দয়ালু এবং বিবেক সম্পন্ন একজন মহৎ নারী।
  • সাহাদা = Shahada = মহিয়সী নারী।
  • সাগুফতা = Shagufota = সুখময় জীবন-যাপন করা নারী।
  • সাফিয়া = Safia = দয়া, মায়া এবং করুণাময় নারী।
  • সাফাত = Shafat = নিরাময় প্রদান করা মহিয়সী নারী।
  • সাফানা = Shafana = সু-চরিত্র বিশিষ্ট মহৎ নারী।
  • তাকমিলা  =Taklima = পরিপূর্ণ

মেয়েদের ইসলামিক নাম তথা আরবি নাম অর্থসহ যারা যারা জানতে চেয়ে প্রচুর পরিমাণে গুগলে সার্চ করে থাকে, তাদের জ্ঞাতার্থেই মূলত আজকের আমাদের এই আর্টিকেল। আশা করি যারা যারা মেয়েদের নাম রাখার জন্যই উক্ত আর্টিকেলটি পড়ছেন, তাঁরা এখান হতে সুন্দর একটি মেয়েদের ইসলামিক নাম চয়েজ করে পিক করতে সক্ষম হবেন।

মেয়েদের ইসলামিক নামের তালিকা

মূলত মেয়েদের ইসলামিক নামের তালিকা কিংবা লিস্ট লিখে যারা ইন্টারনেটে প্রচুর পরিমাণে সার্চ দিয়ে থাকে, সে সকল লোকজন আশা করা যায় আজকের এই হিউজ তালিকা হতে যেকোনো একটি নাম চয়েজ করতে পারবে। আর যারা যারা তাদের নামের অর্থ জানতে চেয়ে পুরো আর্টিকেলটি পড়ছেন, আশা করি তারাও এখান হতে উপকৃত হতে পারবে। যাইহোক, চলুন নিম্নের নামের তালিকাটি পড়া যাক।

  • তাকিয়া  = Takia = চরিত্রবান
  • তাসমীম  = Tasmim = দৃঢ়তা
  • তাশবীহ  = Tashbih = উপমা
  • তাহিয়া = Tahia = অভিবাদন
  • তাহমিনা  = Tahmina = মূল্যবান
  • তামান্না  = Tamanna = ইচ্ছা-আখাংকা
  • তানজিম  = Tanjim = সুবিনাসত
  • তাসলিমা  = Taslima = সর্ম্পণ
  • তাসনীম / তাসনিম  = Tasnim = বেহেশতের ঝর্ণা
  • তাসফিয়াহ  = Tasfiyah = বিশুদ্ধকারিনী
  • তাসফিয়া  = Tasfia = পবিত্রতা
  • তাসকীনা  = Taskina =  সান্ত্বনা
  • তাবাসসুম   = Tabassum = মুচকি হাসি
  • তাসলিমা   = Taslima = সম্পূর্ণ
  • তাসমিয়া  = Tasmia = নামকরণ
  • তুবা  = Tuba =   খাঁটি
  • তাসনিম  = Tasnim = ঝর্ণা
  • তাইয়বা  = Taiba = আনন্দদায়ক, ভাল
  • তাবাসসুম  = Tabassum = হাসি, সুখ, একটি ফুল
  • তুব্বা  = Tubba = ধন্যতা, সদাচরণ, পরমানন্দ, স্বর্গের একটি গাছ
  • তানজিলা  = Tanjila = বেটিড
  • তামান্না = Tamanna = আকাঙ্ক্ষা, শুভেচ্ছা
  • তেহরিম  = Tehrim = শ্রদ্ধা, পবিত্রতা
  • তাহিরা  = Tahira = খাঁটি, পবিত্র সম্প্রীতি, ঘনিষ্ঠতা, পারস্পরিক স্নেহ
  • তাইকুল  = Taikul = বুদ্ধিমান চিন্তাভাবনা
  • তায়েস = Tayes = সূচনা, ভিত্তি
  • তাবা  = Taba = চাস্ট
  • তাবাহহুজ  = Tabahuj = খুশী হোন, প্রফুল্ল
  • তাবাহাহুর  = Tabahahur = নদীর মতোই গভীর জ্ঞানবান, গভীর
  • তবলাহ  = Tblah = তিনি হাদীসের বর্ণনাকারী ছিলেন
  • তাবান  = Taban = সুদীর্ঘ, চকচকে
  • শাহানা আনিকা  = Shahana aniqa  = রাজকুমারী রূপসী
  • শবনম  = Shobnom  = অশ্রুর ফোঁটা / পানি মেশানো
  • শামা  = Shama  = শিশির
  • শামসুন নাহার =  Shamsun Nahar =  দিনের সূর্য
  • শাকীলা হাসনা =  Shakila Hasna  = চমৎকার প্রেমিকা
  • শামলা  = Shamla =  পোশাক
  • শামিমা =  Shamima  = সুবাস
  • শায়েলা  = Shaila =  জ্বলন্ত মোমবাতি

যখনই কারো পরিবারে মেয়ে সন্তান জন্মদান করে, ঠিক তখনই মেয়ের নাম রাখা নিয়ে চলে নানা রকম কথা ও গবেষণা। যাইহোক, নাম রাখতে গিয়ে যারা যারা অনেক রকম হিমশিম খায়, তাদের জন্যই মূলত আজকের আমাদের এই আর্টিকেলটি। আশা করি এখান হতে বেশ সুন্দর একটি ইসলামিক নাম চয়েজ করতে সক্ষম হবেন। নিম্নে ইসলামিক নাম মেয়েদের একটি বিরাট তালিকা দেওযা হয়েছে। তাই দয়া করে নিম্নের তালিকাটি পড়ুন।

ইসলামিক নাম মেয়েদের

ইসলামিক নাম মেয়েদের
ইসলামিক নাম মেয়েদের

ইসলামিক নাম মেয়েদের উক্ত শব্দ বা ভাষা দ্ধারা একজন ব্যক্তি সাধারণত মেয়েদের ইসলামিক নামকেই বোঝায়। আর গার্ডিয়ানদেরও উচিত তাঁর মেয়ে সন্তানের জন্য ধর্মীয় মোতাবেক একটি ইসলামিক বা মুসলিম নাম রাখা। এখন জানার জ্ঞাতে অনেকে উক্ত টার্মটিকেই ইসলামিক নাম মেয়েদের লিখে সার্চ দিয়ে থাকে। তবে যাইহোক, যেহেতু পিতার মাতার প্রথম সন্তানের উপর দায়িত্ব হলো তাঁর জন্য একটি সুন্দর ও বৈচিত্র্যময় আধুনিক নাম রাখা, সেহেতু পিতা মাতারও উচিত নাম রাখার পূর্বে নাম সম্পর্কে যথেষ্ট জ্ঞান নিয়ে নেওয়া।

এই ক্ষেত্রে অনেকের অর্থাৎ অনেক পিতা মাতার ধর্মীয় জ্ঞান যথেষ্ট না থাকায় নাম রাখার ক্ষেত্রে নানা রকম প্রতিকূলতায় পড়তে হয়। আবার অনেকে শিরক যুক্ত নামও রেখে দেয়। অধিকাংশই যে ভুলটি করে, সেটি হলো নামের অর্থের দিকে কোনো রকম গুরুত্ব দেয় না। ফলে সন্তান যখন বড় হয়, ঠিক তখন তাঁর নামের অর্থ সে বোঝতে পেরে মা—বাবার উপর ব্লেম দেওয়া শুরু করে। আর এই কারণেই নাম রাখার ক্ষেত্রে ধর্মীয় বিধি-বিধান মান্য করে নাম রাখা একজন পিতা মাতার প্রধান প্রথম কর্তব্য। আর সেই কারণেই আজকের আর্টিকেলে আমরা বেশ অনেকগুলো ইসলামিক নাম মেয়েদের নিয়ে আসলাম। আশা করি আপনারা উক্ত আর্টিকেলটি দ্ধারা বেশ চমৎকারভাবে উপকৃত হবেন। যাইহোক, চলুন আরো অনেকগুলো ইসলামিক নাম মেয়েদের জানা যাক।

  • জাইফা = Zayfa = অতিথিনী
  • জাহেকা= Zeheka = হাসিন
  • যারীয = Zarim = অগ্নিদগ্ধ / প্রেমিকা
  • আজরা মাহমুদা = Ajra Mahmuda = স্পষ্ট কুমারী প্রশংসিতা মেয়ে
  • আজরা মুকাররামা = Ajra Mukarrma = স্পষ্ট কুমারী সম্মানিত মেয়ে
  • আজরা মুমতাজ = Ajra Mumtaj = স্পষ্ট কুমারী মনোনীত মেয়ে
  •  আজরা রায়হানা = Ajra Rayhana = স্পষ্ট কুমারী সুগন্ধী ফুল মেয়ে
  • আজরা রাশীদা = Ajra Rashida = স্পষ্ট কুমারী বিদুষী
  • আজরা রুমালী = Ajra Rumali = স্পষ্ট কুমারী কবুতর
  • আজরা শাকিলা = Ajra Shakila = স্পষ্ট কুমারী সুরূপা
  • আজরা সাজিদা = Ajra Sujida = স্পষ্ট কুমারী ধার্মিক মেয়ে
  • আজরা সাদিকা = Ajra Sadika = কুমারী পুন্যবতী মেয়ে
  • আজরা সাদিয়া = Ajra Sadia =কুমারী সৌভাগ্যবতী নারী
  • আজরা সাবিহা = Ajra Sabia = কুমারী রূপসী মেয়ে
  • শাহিরা  = Shahira  = বিখ্যাত
  • শুজাইয়া =  Shujaia  = দৃঢ় সাহসিনী
  • শুমায়ছা =  Shumaisa  = সৌর
  • শাবানা =  Shabana  = মধ্য রাত্রি
  • শাজীয়া =  Shazia  = ভদ্র সম্ভ্রান্ত
  • শাফীকা =  Shafiqa =  স্নেহ  শীলা
  • শাহীদা =  Shahida  = সাক্ষী
  • শাহীরা  = Shahira  = প্রসিদ্ধ
  • শামা  = Shama =  প্রদীপ
  • শাহলা =  shahla =  সুন্দরী
  • শারিকা  = Shariqa  = উজ্জল
  • শায়মা =  Shayma  = রাসূল স. এর দুধ বোন
  • শামশাদ = Shamshad =  একপ্রকার বৃক্ষ
  • শারমীলা তাহিরা  = Sharmila Tahira  = লজ্জাবতী পবিত্রা
  • শওকাতুন্নিসা  = Showkatunnisa =  মর্যাদা বান মহিলা
  • শাজ =  Shaz  = দুর্লভ
  • শাফকা =  Shafqa  = দয়া
  • শাবিনা  = Shabina  = রাত্রিকালীন
  • শাবিহা =  Shahbiha  = সাদৃশ্য
  • শিমাত =  Shimat  = ব্যর্থ ব্যক্তি
  • শীমাত  = Shimat  = অভ্যাস
  • শাকেরাহ =  Sakerah =  কৃতজ্ঞ
  • শারীবাত =  Sharibat =  গান করার বস্তু
  • শাহীদাহ =  Shahidah  = সাক্ষী
  • জামীমা = Zameema =একধরণের লতার নাম
  • জিন্নাত= Zinnat = পাগলামী
  • জুনাইনাহ = Zunainah =ক্ষুদ্র বাগান
  • জাহানারা‌ ‌= Jahanara = একটি‌ ‌শক্তিশালী‌ ‌নারী‌ ‌যে‌ ‌বিশ্বের‌ ‌শাসন‌ ‌করার‌ ‌জন্য‌ ‌জন্মেছে‌ ‌
  • জাহিরা‌ ‌= Zahira = যে‌ ‌রাতে‌ ‌উজ্জ্বলভাবে‌ ‌জ্বলজ্বল‌ ‌করে‌ ‌
  • জাফেরা = Zafira =সাহায্যকারিণী
  • জামেরা = Zamera =কৃশকায়া / পাতলা
  • শানীন =  Shanin  = চোখের অশ্রু
  • রামিস তারাননুম =  Ramish Tarannum  = নিরাপদ গুঞ্জরন
  • রামিস তাহিয়া =  Ramish Tahiya  = নিরাপদ শুভেচ্ছা
  • রামিস আনজুম =  Ramish Anjum  = অতি  নিরাপদ তারা

ইতিমধ্যে উপরে আমরা বেশ অনেকগুলো ইসলামিক নাম মেয়েদের জানলাম। আর আশা করা যায় যে সকল পিতা-মাতা তাদের সন্তানের  নাম রাখার ক্ষেত্রে ইসলামিক নাম খুঁজছেন, আজকের আর্টিকেলটি দ্ধারা তারা বেশ চমৎকারভাবে উপকৃত হতে পারবে। তাহলে চলুন নিম্নে মেয়েদের ইসলামিক নামের তালিকার পরবর্তী অংশটুকু পড়া যাক।

মেয়েদের ইসলামিক সুন্দর নাম অর্থসহ

সাধারণত মুসলিম পরিবারে সদ্য জন্ম নেওয়া মেয়ে সন্তানের জন্য বাচাই করে একটি সুন্দর দনাম রাখার আকুতি প্রায় সকল মা বাবারই থাকে। তবে নানা রকম প্রতিবান্ধকতার কারণে অনেকের ক্ষেত্রে একটি ভালো ও ইসলামিক নাম রাখা হয়ে উঠে না। আর এই উক্ত কারণেই আজকের আর্টিকেলে আমরা বেশ অনেকগুলো আরবি নাম তথা ইসলামিক নাম নিয়ে এসেছি। যেগুলো সাধারণত একজন মুসলিম মেয়ের নাম রাখার ক্ষেত্রে যেকোনো গার্ডিয়ান চয়েজ করে পিক করতে পারে। চলুন এরকম আরো অনেকগুলো ইসলামিক নাম সম্পর্কে জানা যাক।

  • জালীসা = Jaleesa = সাহায্যকারী / স্বজন
  • জুনুন = Junun = বান্ধবী / সহকর্মী
  • জিয়াহ‌ ‌= Jiyah = অন্ধকার‌ ‌সময়ে‌ ‌যে‌ ‌আলো‌ ‌ছড়ায়‌ ‌
  • জুঁই‌ ‌=‌ ‌Jui = একটি‌ ‌ফুলের‌ ‌নাম।‌ ‌
  • জুলফা‌  ‌=‌ ‌Julfa = বাগান‌ ‌
  • জেবা‌  ‌=‌ ‌ Jeba = যথার্থ।‌ ‌
  • জাফনাহ =Jafnah = দানশীলা
  • জুহানাত = Juhanat =যুবতী মেয়ে
  • জাহিয়া = Zahia =দৃশ্যমান
  • তামান্না  = Tamanna = ইচ্ছা
  • তামজীদা  = Tamjidah = মহিমা কীর্তন
  • তাহযীব  = Tahjib = সভ্যতা
  • তানজীম  = Tanjim = সুবিন্যস্ত
  • তাহিরা  = Tahira = পবিত্র / সতী
  • তাহেরা  = Tahera = পবিত্র
  • তবিয়া  = Tobiya = প্রকৃতি
  • তরিকা  = Torika = রিতি নীতি
  • তাহামিনা = Tahamina = মূল্যবান
  • তাহমিনা  = Tahmina = বিরত থাকা
  • তাসকীনা  =Taskina = সান্ত্বনা
  • তাযকিয়া  = Tajkia = পবিত্রতা
  • তাসসীনা  = Tassina = উত্তম
  • তাসনিয়া  = Tasnia = প্রশংসিত
  • তুরফা  = Turfa = বিরল বস্তু
  • তহুরা  = Tohura = পবিত্রা

ইতিমধ্যে আমরা ইসলামিক নাম মেয়েদের অনেকগুলো পড়লাম। আশা করি, উক্ত আর্টিকেলের মাধ্যমে আমরা সবাই আমাদের সন্তান কিংবা আত্মীয়দের জন্য একটি নাম চয়েজ করতে পারবো। যেহেতু এখানে থাকা সবগুলো নামই হলো ইসলামিক অথবা ইসলামিক নাম মেয়েদের। চলুন নিম্নে দেওয়া অন্য নামগুলো সম্পর্কে জানা যাক।

মুসলিম মেয়েদের ইসলামিক নাম

সাধারণত মুসলিম মেয়েদের ইসলামিক নাম হবে, এটাই স্বাভাবিক। আর তারই প্রেক্ষিতে আমাদের বাংলাদেশ তথা প্রায় পৃথিবীর সকল দেশেই মুসলিম মেয়েদের নাম রাখার ক্ষেত্রে আগ্রহী। আর এটা একজন মুমিনের জন্য অনেকটা ভালো কাজ। তবে অনেকে আছে যারা তাদের মেয়ে সন্তানের জন্য নাম রাখতে গিয়ে বেশ কিছু নাম চয়েজ করে থাকে, যেগুলো বাস্তবিক অর্থে একজন মুসলিমের নাম না রাখাই ভালো। নামের সাথে শিরক কিংবা নেগেটিভ অর্থ বহন করে, এমন নাম না রাখাই ভালো। চলুন মুসলিম মেয়েদের ইসলামিক নাম সম্পর্কে জানা যাক।

  • তাহিরা  = Tahira = পবিত্র
  • তবিয়া  = Tobia = প্রকৃতি
  • তাওবা  = Tawba = অনুতাপ
  • তামজীদা  = Tamjida =  মহিমা কৃর্তন
  • তাহযিব  = Tahjib = সভ্যতা
  • শাহামা =  Shahama =  উদার
  • মাহফুজা মাসুদা   = Mahfuja Masuda = অতি নিরাপদ সৌভাগ্যতী
  • আজরা ফাহমিদা = Ajra Fahmida = স্পষ্ট কুমারী বুদ্ধিমতী
  • আজরা বিলকিস = Ajra Bilkis =স্পষ্ট কুমারী রানী
  • আজরা মাবুবা = Ajra Mahbuba = স্পষ্ট কুমারী প্রিয়া
  • আজরা মায়মুনা = Ajra maymuna = স্পষ্ট কুমারী ভাগ্যবতী
  • আজরা মালিহা = Ajra Maliha = স্পষ্ট কুমারী নিষ্পাপ মেয়ে
  • আজরা মাসুদা = Ajra Masuda = স্পষ্ট কুমারী সৌভাগ্যবতী মেয়ে
  • রামিসা গওহর =  Ramisa Gauhar  = নিরাপদ মুক্তা
  • রামিসা ফারিহা = Ramisa Fariha  = অনেক নিরাপদ সুখী
  • রামিমা বিলকিস =  Ramisa Bilqis = অনেক নিরাপদ রানী
  • রামিশা আনজুম =  Ramisa Anjum  = অনেক নিরাপদ তারা
  • রামিসা আনান =  Ramisa Anan =অতি   নিরাপদ মেঘ
  • রামিসা  = Ramisa = অতি  নিরাপদ
  • রাইসা =  Raisa =  রানী কে বোঝায়
  • রহিমা =  Rahima = অতি   দয়ালু
  • রুনু = Runu  = নাম বা পরিচয়
  • রুম্মান = Rumman  = ডালিম
  • রুমী  =  Rumi  = অতি সৌন্দার্য
  • রুমালী =  Rumali  = কবুতর কে বোঝায়
  • রুমা =  Ruma  = কবুতর
  • রেবা  = Reba
  • মুহসিনা তায়্যিবা  = Mohsia Taiyeba  = অনুগ্রহঞ্জকারিনী পবিত্রা মহিলা

মুসলিম মেয়েদের ইসলামিক নাম রাখতে প্রায় আমরা সবাই চাই। কিন্তু উপযুক্ত জ্ঞান ও প্রজ্ঞার অভাবে অনেকে এই ক্ষেত্রে আমরা ব্যর্থ হই। তবে বর্তমানে আমাদের মধ্যে অনেকে এই ক্ষেত্রে প্রচুর পরিমাণে সচেতন হয়েছি। নাম রাখার ক্ষেত্রে এখন বেশি ধর্মীয় দিককেই প্রাধান্য দিয়ে থাকি। আর তারই ধারাবাহিকতায় আজকের আর্টিকেলে আমরা বেশ অনেকগুলো মেয়েদের ইসলামিক নাম দেখেছি এবং নিম্নে আরো অনেকগুলো ইসলামিক নাম মেয়েদের দেওয়া হয়েছে।

মেয়েদের ইসলামিক নাম সমূহ

সাধারণত আমরা জানি মানুষের নামে নিয়ে আসে বৈচিত্র্যতা এবং এই কারণে যখণই কোনো মুসলিম তার মেয়ে সন্তানের জন্য একটি ইসলামিক নাম রাখতে চায়, তখন ধর্মীয় বেশ অনেকগুলো দিক নির্দেশনা মান্য করতে হয়। অন্যথায় নামের মধ্যে বৈচিত্র্যতা আনতে গিয়ে হিতে বিপরীত হতে পারে। তবে যাইহোক, আজকের আর্টিকেলে আমরা বেশ অনেকগুলো মেয়েদের ইসলামিক নাম স;মূহ নিয়ে আসলাম। আশা করি একজন গার্ডিয়ান উক্ত তথ্য দ্ধারা বেশ চমৎকারভাবে উপকৃ ত হতে পারবে।

  • মাসারাতা   = Masharata = খুবই আনন্দিত এমন একজন এক মহিলা
  • মাশরাহা   = Mashraha = খুবই খুশি মনের একজন মহিলা
  • মাসাবীহা   = Mashabiha = এই মহিলা যাকে আলোর দীপ্তি বোঝানো হয়েছে
  • মাসাহী   = Mashahi = হীরের টুকরো
  • মারজুকা   = Marjuka = নিজের ইছানুসারে জীবন যাপন করা
  • মারজিয়া   = Murjiya = যাকে খুবই সহজে গ্রহন করা যায়  
  • মাসুদা   = Masuda = যে নারী খুবই ভাগ্যবতী এমন একজন  
  • মাসিরা   = Masira= অনেক ভালো কর্ম করেছে এমন একজন নারী কে বোঝানো হয়েছে
  • মাসাহির   = Masahir = প্রাচীন আরবী একটি নাম  
  • মাশিয়া   = Mashia = আল্লাহ এর কিছু ইচ্ছেকে বোঝানো হয়েছে এই নারী নামের অর্থ দ্বারা বোঝায়
  • মাওয়াদ্দাহ   = Mawaddha = বন্ধুত্ব ও ভালবাসা
  • মারায়াম   = Marayam = এমন একজন মহিলা যে হযরত মোহাম্মদ এর মাতা ছিলেন  
  • মারওয়া   = Marowa = একটি চকচকে পাথরকে বোঝানো হয়েছে
  • মাওহিবা   = Mawhiba = সৃষ্টিকর্তা প্রদত্ত উপহার  
  • মানারীহা   = Maniriha = আলো রুপ
  • মানালাইয়া   = Manalaiya = সাফল্য লাভ করা
  • মারুফা   = Marufa = খুবই বিখ্যাত
  • মারমারা   = Marmara = এক মার্বেল পাথর
  • মার্জানা   = Marjana = ছোট্টো মুক্ত
  • আজরা আসিমা = Ajra Asima = স্পষ্ট কুমারী সতী নারী
  • আজরা গালিবা = Ajra Galiba = স্পষ্ট কুমারী বিজয়ীনি
  • আজরা জামীলা = Ajra Jamila = স্পষ্ট কুমারী সুন্দরী
  • সায়মা = Sayma = রোজা থাকা বিশিষ্ট  ধার্মিক মহিলা।
  • সায়রা = Sayra = বিশেষ একটি পাখি।
  • সাদিকাহ = Sadikah = সত্যবাদী ও অত্যন্ত আন্তরিক নারী।
  • সারিকা = Sarika = প্রকৃতগতভাবে সৌন্দর্যময় নারী।
  • সামিনা = Samina = সুখী নারী।
  • সাবিয়া = Sabia = প্রচন্ড ধৈর্যশীল।
  • সীমা = Sima = কপাল।
  • সানজীদাহ = Sanjida = বিবেচক ।

উপরোক্ত সমস্ত নামগুলো ছিল ইসলামিক নাম এবং মজার ব্যাপার হলো  সবগুলো নাম মেয়েদের জন্য প্রযোজ্য। যদি কোনো গার্ডিয়ান তাঁর মেয়ে বাবুর জন্য সুন্দর একটি ইসলামিক নাম রাখতে চায়, তাহলে খুব সহজেই সে গার্ডিয়ান আজকের আর্টিকেল হতে মেয়ের জন্য একটি ইসলামিক নাম চয়েজ করে পিক করতে পারে।

মেয়েদের ইসলামিক নাম নিয়ে শেষ কথা

মেয়েদের ইসলামিক নাম নিয়ে শেষ কথা

মেয়েদের ইসলামিক নাম নিয়ে আজকের বিস্তর আর্টিকেলটি ছিল। মূলত পিতা-মাতা সহ একজন সচেতন গার্ডিয়ারেন জন্য আজকের আর্টিকেলটি বেশ চমৎকার এবং আশা করি সত্যিকার অর্থে যেসকল লোক তাদের মেয়ে সন্তানের জন্য একটি ইসলামিক নাম খুঁজছেন, তাঁরা চমৎকারভাবে উপকৃত হতে পারবে।

এখানে প্রথমে আমরা প্রায় ৩০০+ ইসলামিক নাম তুলে ধরেছি । এরপর দেখানো হয়েছে যে, আপনি যদি একজন সাধারণ মুসলিম হোন, তাহলে কোন কোন বিষয়গুলোকে মাথায় রেখে সুন্দর একটি ইসলামিক নাম রাখবেন আপনার মেয়ে সন্তানের জন্য।

উপরে যে তিনটি বিষয় নাম রাখার ক্ষেত্রে ফলো করতে হবে, সেই তিনটি জিনিসকে কেন্দ্র করেই আজকের আর্টিকেলের সমস্ত নাম। তবে যাইহোক, সর্বপরি বলা চলে যে, যদি আপনি সত্যিকার অর্থেই কোনো একটি সুন্দর নাম আপনার মেয়ের জন্য খঁজে থাকেন, তাহলে উল্লেখিত নামগুলো হতে যেকোনো এক বা একাধিখ নাম পছন্দ হতে পারে। আর সর্বপরি বলতে পারি যে, আজকের আর্টিকেল তথা মেয়েদের ইসলামিক নাম সম্পর্কে জেনে বেশ চমৎকারভাবে উপকৃত হয়েছেন।

মেয়েদের ইসলামিক নাম নিয়ে প্রশ্ন-উত্তর

মেয়েদের ইসলামিক নাম কেন রাখা প্রয়োজন?

সাধারণত নামের অর্থ ঠিক রাখা, নামের শিরক মুক্ত থাকা সহ ইতিবাচক অর্থ নামের নিয়ে আসার জন্যই মেয়েদের নাম ইসলামিক নাম হওয়া উচিত।

মেয়েদের জন্য সেরা ইসলামিক নামগুলো কি কি?

মেয়েদের জন্য সেরা কিছু ইসলামিক নাম হলো – রামিশা আনজুম =  Ramisa Anjum  = অনেক নিরাপদ তারা, রামিসা আনান =  Ramisa Anan =অতি   নিরাপদ মেঘ ,রামিসা  = Ramisa = অতি  নিরাপদ , রাইসা =  Raisa =  রানী কে বোঝায় , রহিমা =  Rahima = অতি   দয়ালু , রেবা  = Reb , মুহসিনা তায়্যিবা  = Mohsia Taiyeba  = অনুগ্রহঞ্জকারিনী পবিত্রা মহিলা

মেয়েদের ইসলামিক নাম সম্পর্কে আরো জানতে

BanglaTeach
E-HaqDigital Marketer at- BanglaTeach

E-Haq is the founder of BanglaTeach. He is expertise on Education, Health, Financial, Banking, Religious and so on.

Leave a Comment