সুন্দরবন এক্সপ্রেস ট্রেনের সময়সূচী, টিকেট ও ভাড়ার তালিকা ২০২৩

BanglaTeach
E-Haq
Digital Marketer at- BanglaTeach

E-Haq is the founder of BanglaTeach. He is expertise on Education, Health, Financial, Banking,...

Sharing is caring!

সুন্দরবন এক্সপ্রেস খুলনা এবং ঢাকা শহরের মাঝে চলাচলকারী একটি আন্তঃনগর ট্রেন। এটি বাংলাদেশের অন্যতম জনপ্রিয় ট্রেন। ট্রেনটি ২০০৩ সালের ১৭ আগস্ট থেকে ঢাকা-খুলনা রেলপথে যাত্রীসেবা দিয়ে আসছে। বাংলাদেশের দক্ষিণ-পশ্চিমাঞ্চলে খুলনা, সাতক্ষীরা ও বাগেরহাট জেলায় অবস্থিত বিশ্বের বৃহত্তম ম্যানগ্রোভ বন “সুন্দরবন” এর নামানুসারে ট্রেনটির নামকরণ করা হয় সুুুন্দরবন এক্সপ্রেস।

প্রতিদিন ঢাকা থেকে খুলনা এবং খুলনা থেকে ঢাকায় অনেক যাত্রী চলাচল করে থাকে এই ট্রেনে। যাত্রীগণ ইন্টারনেটে প্রায় প্রতিদিনই সুন্দরবন এক্সপ্রেস ট্রেনের সময়সূচী খুজে থাকে। তাই আপনাদের সুবিধার্থে এই পোষ্টের মাধ্যমে খুলনাকে আমি সুন্দরবন এক্সপ্রেস ট্রেনের সময়সূচী ও সুন্দরবন এক্সপ্রেস ট্রেনের ভাড়ার তালিকা শেয়ার করব। তাহলে চলুন সম্পূর্ণ পোস্টটি পড়ে নেওয়া যাক এবং এটা সম্পর্কে আরো গুরুত্বপূর্ণ তথ্য জেনে নেওয়া যাক।

সুন্দরবন এক্সপ্রেস ট্রেনের সময়সূচী

আপনি যদি ঢাকা থেকে খুলনায় যাওয়ার জন্য ট্রেনে যেতে চান তাহলে সুন্দরবন এক্সপ্রেস সবচাইতে উপযোগী। কিন্তু যাত্রার পূর্বে আপনাকে অবশ্যই সুন্দরবন এক্সপ্রেস ট্রেনের সময় জেনে নিতে হবে। অনেকে ইন্টারনেটে খুলনাগামী সুন্দরবন এক্সপ্রেস ট্রেনের সময়সূচী খুজে থাকেন। তাই আমি এখন আপনাদের সাথে এই ট্রেনের পূর্ণাঙ্গ সময়সূচী ও বন্ধের দিন সহ সময় শেয়ার করব।

ঢাকার কমলাপুর রেলস্টেশন থেকে প্রতি বুধবার ব্যতীত সুন্দরবন এক্সপ্রেস ট্রেনটি সকাল আটটা 15 মিনিটে খুলনার উদ্দেশ্যে ছেড়ে যায়, বিকেল পাঁচটা চল্লিশ মিনিটে সুন্দরবন এক্সপ্রেস খুলনা রেলওয়ে স্টেশনে পৌঁছে থাকে। খুলনা থেকে ঢাকায় আসার সময় প্রতি মঙ্গলবার ব্যতীত সুন্দরবন এক্সপ্রেস ট্রেনটি রাত দশটা পনেরো মিনিটে খুলনা থেকে ফিরে আসে এবং পরের দিন সকাল সাতটার সময় ঢাকার কমলাপুর রেলস্টেশনে পৌঁছায়।

স্টেশনের নাম ছুটির দিন ছাড়ায় সময় পৌছানোর সময়
ঢাকা টু খুলনা বুধবার ২০ঃ১৫ ১৭ঃ৪০
খুলনা টু ঢাকা মঙ্গলবার ২২ঃ১৫ ০৭ঃ০০

সুন্দরবন এক্সপ্রেস ট্রেনের ভাড়ার তালিকা

যেহেতু সুন্দরবন এক্সপ্রেস একটি আন্তঃনগর ট্রেন তাই এই ট্রেনে বেশ কয়েক ধরনের সিট রয়েছে। সিট ভেদে অবশ্যই ভাড়ার তালিকাটি ভিন্ন হয়ে থাকে, অনেক সম্মানিত যাত্রীগণ ইন্টারনেটে সুন্দরবন এক্সপ্রেস ট্রেনের ভাড়ার তালিকাটি খুঁজে থাকেন। তাই নিচের টেবিলে আমি আপনাদের সাথে সুন্দরবন এক্সপ্রেস ট্রেন যে যে স্টেশনে যাত্রা বিরতি নিয়ে থাকে তার পূর্ণাঙ্গ ভাড়ার তালিকাটি শেয়ার করেছি।
স্টেশনের নাম শোভন শোভন চেয়ার প্রথম সিট এসি সিট
জয়দেবপুর ৩৫ ৪০ ৮০ ৯০
মির্জাপুর ৬৫ ৮০ ১০৫ ১৩০
টাঙ্গাইল ৯০ ১০৫ ১৪০ ১৭৫
বি-বি-পূর্ব ১০৫ ১২৫ ১৬৫ ২১০
জামতলী ১৮০ ২১৫ ২৮৫ ৩৫৫
উল্লাপাড়া ১৯০ ২২৫ ৩০০ ৩৭৫
বড়াল ব্রিজ ২০৫ ২৪৫ ৩২৫ ৩৭৫
চাটমোহর ২১০ ২৫০ ৩৩৫ ৪০৫
ঈশ্বরদী ২২৫ ২২৫ ২৭০ ৪২৫
ভেড়ামারা ২৬৫ ২৭০ ৩৩৫ ৪৫০
মিরপুর ২৭০ ৩২০ ৪২৫ ৫৩০
পোড়াদহ ২৮০ ৩২৫ ৪৩৫ ৫৪০
আলমডাঙ্গা ২৯০ ৩৩৫ ৪৪৫ ৫৫৫
চুয়াডাঙ্গা ৩০০ ৩৪৫ ৪৬০ ৫৭৫
কোটচাঁদপুর ৩৩৫ ৩৬০ ৪৮০ ৬০০
যশোর ৩৫০ ৪২০ ৫৬০ ৭০০
খুলনা ৩৯০ ৪৬৫ ৬২০ ৭৭৫

সুন্দরবন এক্সপ্রেস কোথায় কোথায় থামে

সুন্দরবন এক্সপ্রেস ট্রেন ঢাকা থেকে খুলনা এবং খুলনা থেকে ঢাকায় চলাচল করার সময় প্রায় ১০ ঘণ্টার মতো সময় নিয়ে থাকে। দীর্ঘ এই যাত্রায় অবশ্যই ট্রেনটি মাঝপথে বেশ কয়েকটি স্টেশনে যাত্রা বিরতি নিয়ে থাকে। অনেক যাত্রীগণ ইন্টারনেটে সুন্দরবন এক্সপ্রেস কোথায় কোথায় থামে তা জানতে চায়। আপনাদের সুবিধার্থে নিচের টেবিলে এই ট্রেনের যাত্রা বিরতি স্টেশনগুলোর নাম এবং সময়টি শেয়ার করা হয়েছে।

বিরতি স্টেশন নাম খুলনা থেকে (৭২৫) ঢাকা থেকে (৭২৬)
দৌলতপুর ২২ঃ২৫ ১৭ঃ১৯
নওয়াপাড়া ২২ঃ৪৯ ১৬ঃ৫২
যশোর ২৩ঃ২০ ১৬ঃ২০
কোটচাঁদপুর ২৪ঃ০০ ১৫ঃ৪২
চুয়াডাঙ্গা ০০ঃ৫৩ ১৪ঃ৪১
আলমডাঙ্গা ০১ঃ১৩ ১৪ঃ২০
পোড়াদহ ০১ঃ৩২ ১৪ঃ০১
ভেড়ামারা ০১ঃ৫৩ ১৩ঃ৪০
ঈশ্বরদী ০২ঃ১৫ ১৩ঃ০০
চাটমোহর ০৩ঃ০০ ১২ঃ২৪
বড়াল ব্রীজ ০৩ঃ১৫ ১২ঃ০৮
উল্লাপাড়া ০৩ঃ৩৬ ১১ঃ৪৬
জামতৈল ০৩ঃ৫১ ১১ঃ৩২
শহীদ এম মনসুর আলী ০৪ঃ০০ ১১ঃ২১
বঙ্গবন্ধু সেতু পূর্ব ০৪ঃ৪২ ১০ঃ৪৫
জয়দেবপুর ০৫ঃ৫৭ ০৯ঃ১২
বিমানবন্দর ০৬ঃ২৫ ০৮ঃ৪২

সর্বশেষ কথা

প্রতিদিন ঢাকার কমলাপুর রেলস্টেশন থেকে সুন্দরবন এক্সপ্রেস ট্রেনটি খুলনায় যাতায়াত করে থাকে। আজকের এই পোস্টে আমি আপনার সাথে সুন্দরবন এক্সপ্রেস ট্রেনের সময়সূচী টিকেট ও সুন্দরবন এক্সপ্রেস ট্রেনের ভাড়ার তালিকাটি শেয়ার করার চেষ্টা করেছি। আশা করি ইতিমধ্যেই আপনি সুন্দরবন এক্সপ্রেস ট্রেন সম্পর্কে অনেক গুরুত্বপূর্ণ তথ্য ও সময়সূচী জানতে পেরেছেন। ধন্যবাদ।

BanglaTeach
E-HaqDigital Marketer at- BanglaTeach

Leave a Comment