সুন্নত নামাজ পড়ার নিয়ম – ফজর থেকে এশার নামাজের সুন্নত

BanglaTeach
E-Haq
Digital Marketer at- BanglaTeach

E-Haq is the founder of BanglaTeach. He is expertise on Education, Health, Financial, Banking,...

Sharing is caring!

সুন্নত নামাজ পড়ার নিয়ম
সুন্নত নামাজ পড়ার নিয়ম

সুন্নত নামাজ পড়ার নিয়ম সম্পর্কে বিস্তারিত জানার পূর্বে চলুন নমাজ নিয়ে কয়েক লাইন জানা যাক। নামাজ বা সালাত যা ইসলামের গুরুত্বপূর্ণ ৫টি স্তম্বের মধ্যে অন্যতম একটি। এটি হলো ইসলামের ৫টি স্তম্বের মধ্যে দ্ধিতীয়তম। মুসলিমদের নিকট সালাত অত্যাধিক পবিত্র একটি ইবাদত এবং দোয়া কবুলের অন্যতম একটি উপায় হলো নামাজ। মহান আল্লাহ তা’আলা প্রত্যেক মুসলিমদের (নাবালক হতে শুরু করে মৃত্যু) জন্য নামাজকে ফরজ করেছে।

নামাজ হলো সাধারণত ৪ প্রকার। সেগুলো হলো- ফরজ, সুন্নত, ওয়াজিব ও মুস্তাহাব। যাইহোক, আজকের আর্টিকেলে আমরা সুন্নত নামাজ নিয়ে জানার চেষ্টা করবো। এখন সবার প্রথম যে প্রশ্নটি আসে, সেটি হলো ‍সুন্নত অর্থ কি? মূলত সুন্নত হলো একটি আরবি শব্দ যার বাংলা হলো কোনো কিছুর উপায় কিংবা ঐতিহ্য। এখন ইসলামিকভাবে আমরা মুসিলমরা সাধারণত সুন্নত বলতে মহানবী হযরত মুহাম্মদ (সাঃ) কর্তৃক জীবনব্যবস্থাকেই সুন্নত বলে থাকি। তাকে অনুসরণ করাই হলো সুন্নাহ। ( আউয়াবিন নামাজের ফজিলত এবং  Durood Sharif Bangla সম্পর্কে জানুন )

তাহলে সুন্নত নামাজ কাকে বলে? প্রিয় নবী হযরত মুহাম্মদ সা: যে সকল নামাজ মহান আল্লাহ তা’আলার হুকুম ব্যতিত/ছাড়া এমনিতেই পড়তেন, সে সকল নামাজ বা সালাতগুলোকে সুন্নত নামাজ বলে।

এখন সুন্নত নামাজেরও প্রকারভেদ রয়েছে। যেমন-দুই রাকাত সুন্নত নামাজ, চার রাকাত সুন্নত নামাজ। এক নজরে প্রতিদিনের সুন্নত নামাজগুলো হলো- ফজর নামাজের ফরজের পূর্বে দুই রাকাত সুন্নত নামাজ, যোহরের ফরজের পূর্বে চার রাকাত, পরে দুই রাকাত, আছরের ফরজের পূর্বে চার রাকাত, মাগরিবের ফরজের পর দুই রাকাত সুন্নত সহ এশার নামাজের ফরজের পূর্বে চার রাকাত সুন্নত, ফরজের পরে দুই রাকাত সুন্নত। আবার জুমার দিন তথা শুক্রবারে জুমার নামাজেও সুন্নাত রয়েছে। সেখানে জুমার নামাজে ফরযের পূর্বে চার ও পরে চার মোট আট রাকাত সুন্নাত। এক নজরে এগুলোই হলো দৈনন্দিন জীবনে আমাদের ইসলাম ধর্মে পালিত সুন্নত নামাজ।

সুন্নত নামাজ পড়ার নিয়ম

উপরে আমরা সুন্নত নামাজ নিয়ে বিস্তারিত জেনেছি, এবার আমরা কিভাবে একজন মুমিন ব্যক্তি উল্লেখিত সুন্নত নামাজগুলো সঠিক উপায়ে পড়তে পারে, সে নিয়ে আলোচনা করবো। আলোচনা ও পাঠকদের বোঝার সুবিধার্থে আমরা সুন্নত নামাজ সমূহ কে দুই ভাগে ভাগ করেছি এবং নামাজ পড়ার নিয়মকেও দুই ভাগ করেছি। সেগুলো হলো-

  • দুই রাকাত সুন্নত নামাজের নিয়ম
  • চার রাকাত সুন্নত নামাজ পড়ার নিয়ম

এই দুই এবং চার রাকাতের মধ্যেই সুন্নত নামাজ সমূহ সীমাবদ্ধ। যে বিধায় প্রথমে আমরা দুই রাকাত সুন্নত নামাজ পড়ার নিয়ম নিয়ে বিস্তারিত জানবো এবং এরপর চার রাকাত। যাইহোক, আলোচনা বিলম্ব না করে চলুন মূল আলোচনায় প্রবেশ করা যাক।

দুই রাকাত সুন্নত নামাজের নিয়ম

দুই রাকাত সুন্নত নামাজের নিয়ম
দুই রাকাত সুন্নত নামাজের নিয়ম

দুই রাকাত সুন্নত নামাজের নিয়ম জানার পূর্বে আমাদের জ্ঞাত থাকা উচিত যে, কোন কোন নামাজে এবং নামাজগুলোতে সাধারণত দুই রাকাত সুন্নত নামাজ পড়তে হয়। সাধারণত ফজর, যোহর, মাগরিব ও এশার নামাজে দুই রাকাত সুন্নত নামাজ পড়তে হয়। আমরা এগুলোকেও ভাগ করে নিতে পারি। দুই রাকাত সুন্নত নামাজ পড়ার নিয়ম হলো-

  • প্রথমে পরিষ্কার একটি জায়-নামাজাতে দাঁড়িয়ে তাকবীরে তাহরীমা বলে কান অবধি হাত তুলে “আল্লাহ আকবার” বলে নিয়ত বেঁধে নামাজ শুরু করতে হবে।
  • এরপর সানা পড়বেন। এখানে উল্লেখ্য যে, উক্ত দোয়া (সানা) শুধুমাত্র নামাজের প্রথম রাকাতে এবং নামাজের শুরুতেই পড়তে হয়।
  • এর সূরা ফাতিহা এবং এর সাথে মিল করে পবিত্র কোরআন থেকে যেকোনো একটি নামাজের জন্য সূরা পড়তে হবে।
  • সূরা পড়া শেষে ”আল্লাহ আকবার বলে রুকুতে যেতে হবে।
  • রুকুর মধ্যে রুকুর তাসবীহ তথা “সুবহা’না রাব্বিয়াল আ’যীম” বেজোড় বলতে হবে।
  • এরপর পুনরায় ” সামি আল্লাহ হুলিমান হামিদা রাব্বানা লাকাল হামদ” বলে দাঁড়াতে হবে।
  • এবার হাঁটুতে হাত রেখে ভর দিয়ে পিঠ আনুভূমিক করে অবনত হতে হবে।
  • সিজদা দিয়ে সিদার তাসবীহ পড়তে হবে। অর্থাৎ সুবহা’না রাব্বিয়াল আ’লা পড়তে হবে।
  • নামাজের অন্যতম একটি সুন্নত আমল হলো রুকু-সিজদার তাসবীহ।
  • উক্ত রুকু ও সিজদার মধ্যে থাকা কালীন সময়ে আপনাকে আল্লাহর নিকট দোয়া চাইতে হবে। তখনও  আল্লাহ তা’আলা দোয়া কবুল করে থাকে।
  • এভাবে পরপর দুটি সিজদাহ শেষ করে দাঁড়াতে হবে। এবং পুনরায় সূরা ফাতিহা সহ অন্য আরেকটি সূরা পাঠ করতে হবে।
  • সূরা পাঠ শেষে পুনরায় রুকু ও সিজদায় যেতে হবে পূর্বের নিয়মে।
  • এবার সিজদা শেষে বসে পড়বেন।
  • সিজদার পর বসে ধারাবাহিকভাবে “আত্তাহিয়াতু (তাশাহুদ)” ও “দরূদ শরীফ” ও “দোয়া মাসুরা” পড়তে হবে।
  • এরপর, উক্ত দোয়া ও আমলগুলো পড়ার পর আপনাকে সালাম পিড়াতে হবে। প্রথমে ডান দিকের কাঁদের দিকে সালাম দিবেন এবং এরপর গাঁড় ঘুরিয়ে বাম দিকের কাঁদের দিকে সালাম দিবেন।
  • নামাজ শেষ করে কয়েকবার সাথে সাথে আসতাগফিরুল্লাহ পড়বেন। এরপর দোয়া-দুরুদ পড়ে মুনাজাত করতে পারেন। মূলত এভাবেই আপনারা দুই রাকাত সুন্নত নামাজ পড়তে পারেন এবং এটিই হলো দুই রাকাত সুন্নত নামাজ পড়ার নিয়ম।

উপরোক্ত স্টেপ বা ধাপগুলো অনুসরণ করার মাধ্যমে আপনারা দুই রাকাত নামাজ সমূহগুলো পড়তে পারেন। মূলত ফজরের দুই রাকাত সুন্নত, যোহরের দুই রাকাত, মাগরিবের দুই রাকাত, এশার দুই রাকাত সুন্নত আপনারা এই ভাবেই পড়তে পারেন। তারপরও আপনারা দোয়া করে একজন অভিজ্ঞ আলেমের নিকট গিয়ে উক্ত ইবাদতগুলো সম্পর্কে আরো স্পষ্ট হয়ে নিবেন। চলুন এবার জানা যাক চার রাকাত সুন্নত নামাজ পড়ার নিয়ম সম্পর্কে।

চার রাকাত সুন্নত নামাজ পড়ার নিয়ম

চার রাকাত সুন্নত নামাজ পড়ার নিয়ম
চার রাকাত সুন্নত নামাজ পড়ার নিয়ম

উপরে আমরা স্টেপ বাই স্টেপ দুই রাকাত সুন্নাত নামাজ পড়ার নিয়ম সম্পর্কে জেনেছি এবং এই পার্টে আমরা চার রাকাত সুন্নত নামাজ কিভাবে পড়তে হবে, সেটা সম্পর্কে আলোচনা করবো। তবে এখানে একটি বিষয় নোট করে রাখেন, চার রাকাত নামাজ সমূহ প্রায় দুই রাকাত নামাজ সমূহের ন্যায় কিন্তু কিছু পার্থক্য রয়েছে। সেগুলোই আমরা জানবো। চার রাকাত সুন্নত নামাজ পড়ার নিয়ম হলো-

  • প্রথমে আপনাকে দুই রাকাত সুন্নত নামাজের স্টেপগুলো অনুসরণ করে দ্বিতীয় রাকাতে সিজদার পর বসা পর্যন্ত একই ভাবে মান্য করে আসতে হবে।
  • এরপর দ্বিতীয় রাকাতে সিজদার পর বসে তাশাহুদ (“আত্তাহিয়াতু”) দোয়া পড়তে হয়।
  • তাশাহুদ পড়ে পুনরায় দাঁড়িয়ে তৃতীয় ও চতুর্থ রাকাত পড়তে হয়।
  • সর্বপরি, চতুর্থ রাকাতে পুনরায় বসে “আত্তাহিয়াতু (তাশাহুদ)” ও “দরূদ শরীফ” ও “দোয়া মাসুরা” পড়তে হবে।
  • এভাবে সবগুলো পড়ে সালাম পিড়াতে হবে এবং আপনার চার রাকাত সুন্নত নামাজ সম্পূর্ণ হবে।

উপরোক্ত পদ্ধতি বা উপায় অবলম্বন করে আপনারা সুন্নত চার রাকাত নামাজগুলো পড়তে পারেন। আশা করি এখন আপনার নিকট বিষয়টি স্পষ্ট হয়েছে।

সুন্নত নামাজ পড়ার নিয়ম নিয়ে শেষ কথা

সুন্নত নামাজ পড়ার নিয়ম নিয়ে শেষ কথা
সুন্নত নামাজ পড়ার নিয়ম নিয়ে শেষ কথা

অনেকে জোহরের চার রাকাত সুন্নত নামাজ পড়ার নিয়ম সহ এশার চার রাকাত সুন্নত নামাজ পড়ার নিয়ম সম্পর্কে আলাদা ভাবে জানতে চায়। আবার কেউ বা আসরের সুন্নত নামাজ পড়ার নিয়ম সম্পর্কেও ভিন্নভাবে জানতে চায়। তবে সার্ভিকভাবে আপনারা যদি লক্ষ্য করেন, তাহলে দেখতে পাবেন যে, সবগুলো ‍সুন্নত নামাজ পড়ার নিয়ম একই। এখানে ৪ রাকাত সুন্নত নামাজের নিয়ম কিংবা দুই রাকাত সুন্নত নামাজ পড়ার নিয়ম এ সামন্যতম ব্যতিক্রম রয়েছে। যা উপরে আমরা স্পষ্ট ভাবে জেনেছি।

আবার যারা যারা সুন্নত নামাজে সুরা পড়ার নিয়ম সম্পর্কেও জানতে চান, তাদের ক্ষেত্রেও একই কথা যে, সাধারণত আপনারা নফল, ফরজ ও ওয়াজিব নামাজগুলো যে ভাবে পড়ে থাকেন ঠিক প্রায় একইভাবে আপনারা সুন্নত নামাজগুলোও পড়তে পারেন। তবে বার বার একটি বিষয় বলছি যে, দিন শেষে একজন অভিজ্ঞ আলেম বা হুজুরের সন্নিকটে গিয়ে উক্ত বিষয়গুলো আরো পরিষ্কার হয়ে নিবেন।

যাইহোক, আমরা আলোচনার একদম শেষ পর্যায়ে চলে আসছি। সর্বপরি বলা চলে যে, যেকল মুমিন তথা পাঠকগণ ইন্টারনেটে প্রচুর পরিমাণে সুন্নত নামাজ পড়ার নিয়ম জানতে চেয়ে সার্চ করে থাকেন, আজকের আর্টিকেলের মাধ্যমে আপনারা উপকৃত হতে পারবেন।

সুন্নত নামাজ পড়ার নিয়ম নিয়ে প্রশ্ন-উত্তর

সুন্নত নামাজ না পড়লে কি হয়?

সুন্নত নামাজ যদি কোনো ব্যক্তি আদায় না করে থাকে, তাহলে তিনি সরাসরি গুনাহগার হবেন না। তবে তিনি বড় ধরনের ফজিলত সমূহ হতে মাহরুম বা বঞ্চিত হবেন। কারণ, প্রতিটি সুন্নত নামাজের ব্যাপারে প্রিয় রাসূল (সা.) এর ফজিলতের বিষয়টি যুক্ত আছে এবং ফজিলতের হাদিসগুলো আছে। তাই তিনি ফজিলত থেকে মাহরুম হবেন, কিন্তু তিনি গুনাহগার হবেন না। কারণ এগুলো রাসুল (সা.) একে অতিরিক্ত বা নফল নামাজ হিসেবে আখ্যায়িত করেছেন।

সুন্নত নামাজের কাজা আদায় করতে হবে কি?

যদি কোনো ব্যক্তি কোনো কারণে নফল নামাজ নষ্ট করে অথবা শুরু করার পর কোনো কারণে যদি ছেড়ে দিতে হয়, তাহলে তার পরে ‘কাজা’ করাও ওয়াজিব। তবে সুন্নতে মুয়াক্কাদা এবং নফল নামাজের কোনো কাজা নেই। তবে ফজরের নামাজ সুন্নত-ফরজ উভয়টা পড়তে না পারলে সুন্নত-ফরজ এক সঙ্গে কাজা করা উত্তম।

সুন্নত নামাজ পড়ার নিয়ম সম্পর্কে আরো জানতে

BanglaTeach
E-HaqDigital Marketer at- BanglaTeach

E-Haq is the founder of BanglaTeach. He is expertise on Education, Health, Financial, Banking, Religious and so on.

Leave a Comment