সফটওয়্যার আপডেট দিলে কি হয় | সফটওয়্যার আপডেট সম্পর্কে বিস্তারিত

BanglaTeach
E-Haq
Digital Marketer at- BanglaTeach

E-Haq is the founder of BanglaTeach. He is expertise on Education, Health, Financial, Banking,...

Sharing is caring!

সফটওয়্যার আপডেট দিলে কি হয়
সফটওয়্যার আপডেট দিলে কি হয়

সফটওয়্যার আপডেট দিলে কি হয় এই নিয়ে বাংলাদেশের প্রায় সবগুলো ফোরামেই রয়েছে অনেক রকম প্রশ্ন। আর তারই প্রেক্ষিতে আজকের আমরা জানার চেষ্টা করবো দৈনন্দিন জীবনে ব্যবহৃত মোবাইল ফোনের সফটওয়্যারগুলো আপডেট দিলে কি হয় অথবা মোবাইলের কোনো রকম ক্ষতি কিংবা উপকার হয় কি-না।

একটি মোবাইলফোনের প্রাণ হলো সেই মোবাইলে থাকা সফটওয়্যার সমূহ। যা একজন ইউজারের এক্সপেরিন্স শতগুণ বৃদ্ধি করে থাকে। আর বর্তমানে সফটওয়্যার কিংবা মোবাইল অ্যাপস কোম্পানিগুলো পাল্লা দিয়ে তৈরি করছে নানা রকম নানা কাজের মোবাইল অ্যাপস। তবে প্রাথমিক অবস্থায় অধিকাশ মোবাইল অ্যাপসগুলো হয়ে থাকে পরীক্ষামূলক। যা পরবর্তীতে ইউজারদের ফিডব্যাক থেকে ডাটা নিয়ে তা অ্যানালাইসিস করে কোম্পানিগুলো পূর্বের যে আরো ভালো কিছু প্রিমায়াম ফিচার নিয়ে আসে সফটওয়্যার আপডেটের মাধ্যমে। ঠিক তখনই আমাদের মোবাইলে নোটিফিকেশন আসে মোবাইলের অ্যাপস আপডেট দেওয়ার  জন্য। এখন প্রশ্ন আসতে পারে যে, এই সফটওয়্যার আপডেট দেওয়া, এটা আমাদের কি উপকার আসে কিংবা আপডেট দিলে সাধারণত কি হয়? হ্যাঁ, আজকের আলোচনাটি মূলত উক্ত বিষয়কে ফোকাস করেই লিখা। আলোচনা বিলম্ব না করে চলুন জেনে নিই মোবাইল সফটওয়্যার কিংবা অ্যাপস আপডেট দিলে কি হয়, সে সম্পর্কে। ( প্লে স্টোর অ্যাপস ডাউনলোড সহ বাংলা সার্চ ইঞ্জিন সম্পর্কে জানুন )

অ্যাপস অথবা সফটওয়্যার আপডেট দিলে কি হয়

অ্যাপস অথবা সফটওয়্যার আপডেট দিলে কি হয়
অ্যাপস অথবা সফটওয়্যার আপডেট দিলে কি হয়

আপনি যখন একটি স্মার্টফোন ব্যবহার করবেন, তখন ধারাবাহিকভাবে নিয়মিত এর সফটওয়্যার সমূহের আপডেট আসবে, এটাই স্বাভাবিক। তবে আমাদের মধ্যে অধিকাংশের এই অ্যাপস আপডেট নিয়ে রয়েছে নানা রকম ভুল চিন্তায়। অনেকে ভেবে থাকে, সফটওয়্যার আপডেট দিলে হয়তো বা মোবাইল হ্যাং কিংবা স্লো হয়ে যাবে। আবার অনেকে চিন্তা করে সফটওয়্যার আপডেট দেওয়ার মাধ্যমে কি কোনো ভাবে মোবাইল বা ডিভাইস হ্যাক হয়ে যাওয়ার সম্ভাবণা রয়েছে? একরম নানা প্রশ্ন তাদের মাথায় ঘুরপাক খায়। যে বিধায় এখন আমরা জানার চেষ্টা করবো মূলত সফটওয়্যার আপডেট দিলে প্রকৃতপক্ষে কি হয়? সফটওয়্যার আপডেট দিলে মোবাইলের থাকা পুরাতন অ্যাপস সমূহ নতুন ভার্সনে কনভার্ট হয়। সফটওয়্যারে নতুন নতুন ফিচার যুক্ত হয়। ইউজার এক্সপেরিন্স বৃদ্ধি পায়। Application Error ঠিক হয়ে যায়। অ্যাপ্লিকেশন এর Speed বেড়ে যায়। নতুন নতুন এমন ফিচার যুক্ত হয়, যা পুরাতন ভার্সনে যুক্ত ছিল না। ফোনের performance improve হয় সহ  সফটওয়্যারের ইন্টার্নাল কোডিং ক্রুটি দূর হয়। এতে করে সফটওয়্যার বা ডিভাইস হ্যাক হওয়ার সম্ভাবনা হ্রাস পায়। অর্থাৎ Software এর Security দ্বিগুণ হয়। মূলত সফটওয়্যার আপডেট দিলে এগুলোই হয়ে থাকে।

সফটওয়্যার আপডেট দেওয়া কি উচিত?

সফটওয়্যার আপডেট দেওয়া কি উচিত
সফটওয়্যার আপডেট দেওয়া কি উচিত

আশা করি সফটওয়্যার আপডেট দেওয়া উচিত কি-না, তা সম্পর্কে ইতিপূর্বে ধারণা পেয়ে গেছেন। তবে যদি আপনার অ্যান্ড্রয়েড ভার্স কিছুটা পুরাতন হয়ে থাকে, তাহলে অনেকাংশে আপনার ডিভাইসে ইচ্ছাকৃত ভাবেও অ্যাপস আপডেট দেওয়া সম্ভব হয়ে উঠে না। কারণ আপডেট ভার্সণ আর মোবাইলের অ্যান্ড্রয়েড ভার্সণ কোনো ভাবেই খাপ খায় না অথবা সহজে বললে সাপোর্ট করে না। কিন্তু যখনই প্রশ্ন আসে সফটওয়্যার আপডেট দেওয়া উচিত কি না, তখন এর উত্তর অবশ্যই হবে হ্যাঁ। সকল মোবাইল ব্যবহারকারীর উচিত নিয়মিত তাঁর মোবাইলে থাকা সফটওয়্যাগুলোকে আপ টু ডেট রাখা। অন্যথায় উপরে উল্লেখিত ফিচার বা সুবিধা হতে বঞ্চিত হওয়ার সম্ভাবনা বেড়ে যায়। আর সিকিউরিটির একটি ব্যাপার থেকেই যায়। যা কোনো ভাবেই এড়ানো সম্ভব নয়। যে বিধায় অবশ্যই আপনাকে সফটওয়্যার আপডেট দেওয়া উচিত। ( ছাত্র জীবনে সফল হওয়ার উপায় সম্পর্কে জানুন )

কিভাবে সফটওয়্যার আপডেট দিতে হয়?

কিভাবে সফটওয়্যার আপডেট দিতে হয়
কিভাবে সফটওয়্যার আপডেট দিতে হয়

আলোচনার প্রেক্ষিতে এখন প্রশ্ন আসতে পারে যে, কিভাবে সফটওয়্যার আপডেট দিতে হয়? কিংবা কোন উপায় অবলম্বণ করে একজন খুব সহজেই তার মোবাইল ফোনটি আপডেট দিতে পারে? উক্ত উপায় বা পদ্ধতি জানতে চলুন নিম্নোক্ত স্টেপগুলো ধীরে ধীরে জানা যাক। ফোন আপডেট করার নিয়ম হলো-

  • আপনার ফোনে সেটিংস অ্যাপ টি খুলুন।
  • স্ক্রিনের নীচে,  সিস্টেমের > আরও সেটিংস >সিস্টেম আপডেট অপশন টি খুলুন।
  • আপনার ডিভাইসের “অ্যান্ড্রয়েড সংস্করণ” এবং “নিরাপত্তা প্যাচ স্তর” পরীক্ষা করুন।
  • এরপর check for update -এ ক্লিক করুন, এখানে যদি নতুন আপডেট দেখা যায়, তাহলে ক্লিক করার সাথে সাথে ডাউনলোড শুরু হবে। এর জন্য, আপনার ওয়াই-ফাই বা মোবাইল ডেটা অন রাখতে হবে। এর সাইজ খুব বেশি হতে পারে, তাই শুধুমাত্র ভালো গতির সম্পন্ন ইন্টারনেট ব্যবহার করুন।
  • এই আপডেটটি একটি সাধারণ সফ্টওয়্যার আপডেটও হতে পারে অথবা এটি একটি অ্যান্ড্রয়েড আপডেটও হতে পারে।
  • ডাউনলোড শেষ হওয়ার পর, Install Update– এ ক্লিক করুন এবং আপনার মোবাইল আপডেট হতে শুরু করবে।
  • এই সময়, আপনার ফোন অনেকবার রিস্টার্ট হবে, তাই আতঙ্কিত হওয়ার কোন কারন নেই, মাঝখানে কিছু করবেন না, আপডেট সম্পূর্ণ হতে দিন।
  • আপডেটটি সম্পূর্ণ হতে কিছুটা সময় লাগতে পারে। কিছু সময়ের মধ্যে আপনার ফোন আপডেট হবে এবং স্ক্রিনে দেখা যাবে আপনার মোবাইল সর্বশেষ সংস্করণে আপডেট হয়েছে।

উপরোক্ত স্টেপগুলো ফলো বা অনুসরণ করার মাধ্যমে একজন যে কেউ তার ডিভাইসের সফটওয়্যারগুলো খুব সহজেই আপডেট দিয়ে দিতে পারে। আশা করি এখন হতে সকল পাঠকগণ তাদের ব্যবহৃত সফটওয়্যাগুলো আপডেট দিতে সক্ষম হবে।

সফটওয়্যার আপডেট দেওয়ার পূর্বে করণীয়

সফটওয়্যার আপডেট দেওয়ার পূর্বে করণীয়
সফটওয়্যার আপডেট দেওয়ার পূর্বে করণীয়

তাড়াহুড়ো করে আমাদের মধ্যে অনেকে তাঁর শখের ফোনটিকে আপডেট করতে গিয়ে নানা রকম সমস্যায় পড়তে হয়। আর সেই বিধায় বেশি কিছু জিনিস মোবাইলের সফটওয়্যার আপডেট দেওয়ার পূর্বে খেয়াল রাখা অত্যন্ত জরুরি। কি সে জিনিসগুলো?

সফটওয়্যার আপডেট দেওয়ার পূর্বে অবশ্যই দেখে নিবেন আপনার মোবাইলের চার্জ সম্পূর্ণ রয়েছে কি-না। অণ্যথায় সফটওয়্যার আপডেট হতে অতিরিক্ত সময় নিলে মোবাইল বন্ধ হয়ে যাওয়ার সম্ভবণা থাকে। আর দ্ধিতীয় বিষয়টি হলো অত্যন্ত গুরুত্বপূর্ণ। আপডেট দেওয়ার পূর্বে অবশ্যই দেখে নিবেন আপনার মোবাইলে যথেষ্ট পরিমাণ ডাটা বা ইন্টারনেট রয়েছে কি-না। অন্যথায় আপডেটের মাঝে আটকে যাওয়ার সম্ভাবনা থাকে। আর সর্বশেষ হলো সফটওয়্যার আপডেট দেওয়ার পূর্বে চেষ্টা করবেন ডিভাইসের সবগুলো ফাইল ব্যাকআপ রাখতে। যদি কোনো কারণে আপনার মোবাইলের কোনো গুরুত্বপূর্ণ ফাইল ডিলিট হয়ে যায়, যাতে পরবর্তীতে কোনো রকম সমস্যা তৈরি না হয়।

তাহলে সফটওয়্যার আপডেট দেওয়ার পূর্বে আপনার করণীয়গুলো কি কি সে সম্পর্কে আশা করি বিস্তারিত জানতে পেরেছেন। এখন যদি আপনারা পাঠকগণের মধ্যে কেউ সফটওয়্যার আপডেট দিতে চান, তাহলে অবশ্যই করণীয়গুলো আরেকবার পড়ে নিবেন এবং মান্য করার চেষ্টা করবেন।

সফটওয়্যার আপডেট দিলে কি হয় নিয়ে শেষ কথা

সফটওয়্যার আপডেট দিলে কি হয় নিয়ে শেষ কথা

সফটওয়্যার আপডেট দিলে কি হয় নিয়ে আমাদের মধ্যে যে সন্দেহ বা চিন্তা ছিল, আশা করি এখন তা অনেকাংশে কমে গিয়েছে। যেহেতু আমরা প্রায় সবাই এখন স্মার্ট ডিভাইস বা মোবাইল ফোন ব্যবহার করি, সেহেতু উপরোক্ত তথ্যগুলো সম্পর্কে অবগত থাকা প্রত্যেকের উচিত। আর এমনিতে ইন্টারনেট তথা গুগলে প্রচুর পরিমাণে এই নিয়ে সার্চ হয় যে, সফটওয়্যার আপডেট দিলে কি হয়  বা কোনো রকম ক্ষতি হয় কি-না ডিভাইসের। যাইহোক, সেই প্রেক্ষিতেই আজকের আমাদের এই আর্টিকেল। আজকের আর্টিকেলে আমরা উক্ত বিষয়ের উত্তর জানার পাশাপাশি আনুসাঙ্গিক অন্য সকল বিষয়ে বিস্তারিত জানতে পেরেছি। যেমন কিভাবে সঠিক উপায়ে সফটওয়্যার আপডেট দিতে হয়, সফটওয়্যার আপডেট দেওয়া উচিত কি-না সহ ইত্যাদি। সর্বপরি, আশা করি আজকের আর্টিকেলটি দ্ধারা পাঠকগণ বেশ চমৎকারভাবে উপকৃত হতে পারবে।

সফটওয়্যার আপডেট দিলে কি হয় নিয়ে প্রশ্ন-উত্তর

অ্যান্ড্রয়েড ভার্সন কিভাবে আপডেট করবেন?

অ্যান্ড্রয়েড ভার্সন কিংবা মোবাইল অ্যান্ড্রয়েড ভার্সনের সফটওয়্যারগুলো ঠিক একই পদ্ধতি অর্থাৎ উপরোক্ত স্টেপগুলো অনুসরণ করার মাধ্যমে আপডেট দিতে পারেন। অথবা গুগল প্লে স্টোর হতে সরাসরি আপডেট দিতে পারেন।

সফটওয়্যার আপডেট দিলে ডিভাইসের ক্ষতি হওয়ার সম্ভাবণা থাকে কি-না?

সফটওয়্যার আপডেট দিলে একটি ডিভাইসের কোনো রকম ক্ষতি হয় না। বরং ঐ ডিভাইসের ইউজার এক্সপেরিয়েন্স বৃদ্ধি পায় বহুগুণে। সিকিউরি নিশ্চিত হয় এবং নতুন নতুন ফিচার যুক্ত হয়।

সফটওয়্যার আপডেট দিলে কি হয় সম্পর্কে আরো জানতে

BanglaTeach
E-HaqDigital Marketer at- BanglaTeach

E-Haq is the founder of BanglaTeach. He is expertise on Education, Health, Financial, Banking, Religious and so on.

Leave a Comment